রাজীব কুমারকে বাঁচাতেই মরিয়া হয়ে মোদি সাক্ষাৎ-এ মমতা, কটাক্ষ কৈলাশ বিজয়বর্গীয়ের

“শহরের প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারকে বাঁচাতে এটাই শেষ চেষ্টা” বলে কটাক্ষ করেছেন কৈলাশ বিজয়বর্গীয়

রাজীব কুমারকে বাঁচাতেই মরিয়া হয়ে মোদি সাক্ষাৎ-এ মমতা, কটাক্ষ কৈলাশ বিজয়বর্গীয়ের

কৈলাশ বিজয়বর্গীয় বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বৈঠকের কারণ, “যে কেউ বুঝতে পারবেন”

কলকাতা:

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে দিল্লি রওনা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। সেই পদক্ষেপকেই কটাক্ষ করলেন বিজেপির সাধারণ সম্পাদক কৈলাশ বিজয়বর্গীয় (Kailash Vijayvargiya) । তিনি বলেন, মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সাক্ষাৎ-এর জন্য সময় চেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী, “শহরের  প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারকে বাঁচাতে এটাই শেষ চেষ্টা” বলে কটাক্ষ করেছেন কৈলাশ বিজয়বর্গীয়। তাঁর দাবি, সারদাকাণ্ডে “রাজীব কুমারের (Rajeev Kumar) গ্রেফতারিতে তাঁর রাজ্য মন্ত্রিসভার অর্ধেক সদস্যই জেলে যাবেন”। রাজ্য সচিবালয় সূত্রের খবর, বুধবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কৈলাশ বিজয়বর্গীয় কলকাতায় সাংবাদিকদের বলেন, “এর আগে, প্রত্যেকটি ইস্যুতেই, তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে অপমান করেছেন। তিনি এও বলেছেন যে, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নরেন্দ্র মোদিকে সম্মান করার প্রয়োজন নেই বলেই তিনি মনে করেন। তিনি শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান, নীতি আয়োগ বৈঠক বা মুখ্যমন্ত্রীদের বৈঠকে যোগ দেননি”।

রাজীব কুমারের খোঁজে বিশেষ দল তৈরি করল সিবিআই: সূত্র

কলকাতায় সাংবাদিকদের কৈলাশ বিজয়বর্গীয় আরও বলেন, “হঠাৎ করে কেন তিনি প্রধানমন্ত্রীর থেকে চাইলেন, তা যে কেউ বুঝতে পারবে”। তাঁর দাবি, রাজীব কুমারসহ দলের অন্যান্য নেতাদের বাঁচানোর জন্য তৃণমূলনেত্রীর প্রয়াসে কোনও ফল হবে না। তাঁর কথায়, “তিনি যেহেতু জানেন যে, রাজীব কুমারের গ্রেফতারি তাঁর মন্ত্রিসভার অর্ধেক সদস্যকে জেলে নিয়ে যাবে, সেই জন্য তিনি তাঁকে বাঁচানোর মরিয়া চেষ্টা করছেন। তবে দুর্নীতি থেকে রাজীব কুমার এবং অন্যান্য নেতাদের বাঁচানোর তাঁর এই প্রয়াসে কোনও লাভ হবে না”।

এর আগে ২০১৮-এক ২৫ মে বিশ্বভারতীর সমাবর্তন অনুষ্ঠানে একমঞ্চে হাজির হন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আগাম জামিন চেয়ে জেলা আদালতের দ্বারস্থ রাজীব কুমার

বিজেপির দাবিকে ভিত্তিহীন বলে মন্তব্য করে তৃণমূলের দাবি, রাজ্যের উন্নয়ন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার সঙ্গে অধিকার রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। জোড়াফুল শিবিরের এক শীর্ষ নেতা বলেন, “এই সমস্ত ভিত্তিহীন দাবি বন্ধ করা উচিত বঙ্গ বিজেপির। একটি যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামোতে, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ-এর সম্পূর্ণ অধিকার রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। এই বৈঠকটি রাজ্যের উন্নয়নের বিষয়ে আলোচনা করার জন্যই”।

সারদাকাণ্ডে সিবিআইয়ের আতসকাঁচের তলায় এসেছেন তৃণমূলের একাধিক নেতা থেকে শুরু করে কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার।

"কেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মোদির সঙ্গে দেখা করছেন সেটা ওপেন সিক্রেট":বিজেপি

সারদাকাণ্ডে বেশী অঙ্কের ফেরৎ-এর প্রলোভন দেখিয়ে বাজার থেকে বেআইনিভাবে প্রায় ২৫০০ কোটি টাকা তোলা এবং তা তছরূপের অভিযোগ উঠেছে সারদাকাণ্ডে। ২০১৪ এ সারদাসহ অন্যান্য চিটফান্ডের তদন্তের দায়িত্বভার সিবিআইকে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। তার আগে পর্যন্ত চিটফান্ডগুলির তদন্ত করছিল রাজ্য সরকার গঠিত বিশেষ তদন্তকারী দল বা সিট, তারই প্রধান ছিলেন রাজীব কুমার।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com