রাজ্যের নাম পরিবর্তনের দাবি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা হয়েছে, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “এটা খুব ভাল বৈঠক ছিল...আমরা উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা করেছি”, লোকসভা নির্বাচনের পর এই প্রথমবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক তাঁর

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক “ভাল” ছিল বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

হাইলাইটস

  • প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, নাম পরিবর্তন নিয়ে কিছু করবেন: মুখ্যমন্ত্রী
  • মুখ্যমন্ত্রী জানান, পুজোর পর প্রধানমন্ত্রীকে বৈঠকের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন
  • লোকসভা নির্বাচনের পর প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এটি তাঁর প্রথম বৈঠক
নয়াদিল্লি:

বুধবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) সঙ্গে নয়াদিল্লিতে বৈঠক করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়  (Mamata Banerjee)। বাংলার প্রধান প্রশাসক জানান, রাজ্যের নাম পরিবর্তন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে আলোচনা করেছেন তিনি, এবং ইতিবাচক উত্তর পেয়েছেন। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, এই বিষয়টি নিয়ে কিছু করবেন তিনি”। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করতে মঙ্গলবার নয়াদিল্লি পৌঁছান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, লোকসভা নির্বাচনের পর, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এটি তাঁর প্রথম বৈঠক। মুখ্যমন্ত্রী জানান, দুর্গাপুজোর পর, রাজ্যে এসে একটি বৈঠক করার জন্যও প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “বাংলার অর্থনৈতিক উন্নতি নিয়ে আমরা কথা বলেছি। বাংলার জিডিপি ১২.৮ শতাংশ...দেশের মধ্যে যা প্রথম”, আগে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, এটি তাঁর “রুটিন” বৈঠক এবং রাজ্যের জন্য কেন্দ্রের বকেয়া টাকা দাবি করবেন তিনি।

বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রীর সঙ্গে দেখা, সৌজন্য বিনিময় মুখ্যমন্ত্রীর

দীর্ঘদিন ধরেই রাজ্যের নাম বদলের বিষয়টি বকেয়া পড়ে রয়েছে, সেটি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “আমরা রাজ্যের বদল করে বাংলা রাখতে চাই, সেটি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি”। সংসদের বাজেট অধিবেশনে রাজ্যের নাম বদলের বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন একটি প্রতিনিদি দল, যদিও কেন্দ্রের তরফে সম্মতি দেওয়া হয়নি।

রাজীব কুমারকে বাঁচাতেই মরিয়া হয়ে মোদি সাক্ষাৎ-এ মমতা, কটাক্ষ কৈলাশ বিজয়বর্গীয়ের

রাজ্যের চিটফান্ডগুলি নিয়ে সিবিআই তদন্তে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে একাধিকবার সংঘাতে জড়িয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্র উল্লেখ করেন, রাজনৈতিক মতভেদ সরিয়ে রেখে কেন্দ্র ও রাজ্যের এসঙ্গে কাজ করা “সাংবিধানিক বাধ্যবাধ্যকতা”।

বিজেপির অভিযোগ, কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের “বৈঠক শেষ চেষ্টা”, সারদাকাণ্ডে রাজীব কুমারকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় সিবিআই।