ডিএমকের মহা বৈঠকের আগে আস্তিন গোটাচ্ছেন আলাগিরি

কে হবে দলের পরবর্তী প্রধান, তা নিয়ে ডিএমকে’র মহা গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকের আগে বিতর্কে ঘৃতাহুতি দিলেন দল থেকে চার বছর আগে বহিষ্কৃত হয়ে যাওয়া, করুণানিধির জ্যেষ্ঠ সন্তান 67 বছরের এম কে আলাগিরি।

করুণানিধির সমাধিক্ষেত্রে আজ এসেছিলেন জ্যেষ্ঠ সন্তান আলাগিরি।

হাইলাইটস

  • করুণানিধির জ্যেষ্ঠ সন্তান আলাগিরি।
  • করুণানিধির নির্বাচিত উত্তরাধিকার হলেন স্ট্যালিন।
  • মোদীকে সমর্থন জানানোর জন্য চার বছর আগে দল থেকে বহিষ্কৃত হন আলাগিরি
চেন্নাই:

কে হবে দলের পরবর্তী প্রধান, তা নিয়ে ডিএমকে’র মহা গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকের আগে বিতর্কে ঘৃতাহুতি দিলেন দল থেকে চার বছর আগে বহিষ্কৃত হয়ে যাওয়া, করুণানিধির জ্যেষ্ঠ সন্তান 67 বছরের এম কে আলাগিরি। বৈঠকের আগের দিন করুণানিধির সমাধিক্ষেত্রতে যান তিনি। কেন ওখানে গিয়েছিলেন, জানতে চাইলে তাঁর উত্তর, বাবাকে শ্রদ্ধা জানাতে এসেছিলাম। যদিও, এই প্রসঙ্গে তিনি এই কথা জানাতেও ভোলেননি যে, তাঁর বাবার সমর্থকরা তাঁকেও সমর্থন জানিয়েছেন। এই বিবৃতিকে রাজনৈতিক মহল তাঁর ছোট ভাই এম কে স্ট্যালিনের উদ্দেশে প্রচ্ছন্ন হুমকি হিসেবেই দেখছে। যে স্ট্যালিনের দলের প্রধান হওয়ার সম্ভাবনা সবথেকে বেশি বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

“নিজের দুঃখের কথা জানাতে গিয়েছিলাম আমার বাবাকে। কী জানিয়েছি, তা এখন বলব না। শুধু এটুকুই বলব, কালাইনারের সমস্ত অনুগত সমর্থকই আমার দিকে রয়েছেন। তাঁরা আমকেই সমর্থন করছেন”, বলেন আলাগিরি। তিনি আরও বলেন, আমি দলের প্রতি বীতশ্রুদ্ধ। পরিবারের প্রতি নয়।

করুণানিধির নির্বাচিত রাজনৈতিক উত্তরাধিকার এম কে স্ট্যালিনই এক বছরের বেশি সময় ধরে দলের প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন। এই সময়টার মধ্যে করুণানিধি জনসমক্ষেই আসেননি। দলীয় সূত্রে খবর, গোটা দলের দায়িত্বই নিয়ে নিয়েছেন স্ট্যালিন। তাই আলাগিরির মন্তব্যে বিচলিত হওয়ার কিছু নেই। জল্পনা চলছে, আগামী মঙ্গলবারের বৈঠকে দলের প্রধান হিসেবে স্বতঃস্ফূর্তভাবে তাঁর নামই বিবেচনা করা হবে।

আলাগিরিকে ওই বৈঠকের বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, “আমি আর দলের সদস্য নই। আমাকে তাই এই নিয়ে কিছু জিজ্ঞাসা করবেন না”, মঙ্গলবারের বৈঠক নিয়ে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে এই জবাব দেন আলাগিরি।

উল্লেখ্য, 2014 সালের জানুয়ারি মাসে দলের বিরুদ্ধে মুখ খোলায়  ডিএমকে থেকে বহিষ্কৃত করা হয় করুণানিধির জ্যেষ্ঠ পুত্র আলাগিরিকে।

mp25gtio

 

More News