This Article is From Oct 17, 2018

#MeToo আন্দোলনে সমর্থন থাকবে: বাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠার পর বললেন নন্দিতা দাস

খ্যাতনামা চিত্রশিল্পী যতীন দাসের বিরুদ্ধে গতকাল অভিযোগ আনেন এক কাগজ প্রস্তুতকারী কম্পানির সহ-প্রতিষ্ঠাতা

#MeToo আন্দোলনে সমর্থন থাকবে: বাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠার পর বললেন নন্দিতা দাস

এনিয়ে সবার সমর্থন মিলেছে বলে জানান নন্দিতা দাস

হাইলাইটস

  • A woman has claimed she was sexually harassed 14 years ago by Jatin Das
  • Her has dismissed the allegations as "vulgar"
  • Jatin Das is the latest name in the #MeToo campaign
মুম্বাই:

#MeToo আন্দোলনে নিজের বাবার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ নিয়ে মুখ খুললেন চলচ্চিত্র অভিনেত্রী তথা পরিচালক নন্দিতা দাস ৷ তবে এই আন্দোলনে তাঁর সমর্থন থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি৷  খ্যাতনামা চিত্রশিল্পী যতীন দাসের বিরুদ্ধে গতকাল অভিযোগ আনেন এক কাগজ প্রস্তুতকারী কম্পানির সহ-প্রতিষ্ঠাতা ৷ ওই মহিলার
অভিযোগ,  ১৪ বছর আগে যতীন দাসের যৌন হয়রানির শিকার হতে হয়েছিল তাঁকে ৷ যদিও এই অভিযোগকে "কুতসিত"  আখ্যা দিয়ে বিষয়টি খারিজ করে দিয়েছেন ওই শিল্পী ৷ 

 #MeToo : অভিযোগ শুনবে চার অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির কমিটি, জানালেন মানেকা

ফেসবুকে এনিয়ে নন্দিতা দাস লেখেন, তাঁর বাবার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ "বিরক্তিকর" ৷ কিন্তু প্রকৄতই যেসব মহিলারা নিগৃহীত ও হয়রানির শিকার হয়েছেন তিনি তাঁদের সঙ্গে আছেন ৷ সেই সঙ্গে সবাইকে সতর্ক করে তিনি বলেছেন,  কাউকে অভিযুক্ত করার আগে তা নিয়ে নিশ্চিত হতে হবে মহিলাদের ৷ তিনি লেখেন, "আমার বাবার
বিরুদ্ধে যে বিরক্তিকর অভিযোগ উঠেছে তা তিনি অস্বীকার করেছেন এবং এরপরেও আমি #MeToo আন্দোলনের সমর্থক হিসেবে মুখ খুলব ৷" অভিনেত্রী আরও বলেন, "প্রথম থেকেই আমি বলে আসছি এখন সবার শোনার সময়  যাতে মহিলারা (ও পুরুষরা) মুখ খুলতে নিরাপদ বোধ করেন ৷ সেইসঙ্গে এই আন্দোলন যাতে লঘু
না হয়ে যায় তাই অভিযোগ করার আগে তা নিয়ে নিশ্চিত হওয়ার প্রয়োজন আছে ৷"  আর এনিয়ে সবার সমর্থন মিলেছে বলেও জানান তিনি ৷ 

#Me too: একা প্রিয়া রামানী নন আকবেরর বিরুদ্ধে আইনি লড়াইয়ের শপথ 20 মহিলা সাংবাদিকের

যতীন দাসের বিরুদ্ধে অভিযোগকারীর নাম নিশা বোরা ৷ টুইটারে তিনি অভিযোগ এনেছেন এই চিত্রশিল্পীর বিরুদ্ধে ৷ জানান, তখন ২৮ বছর বয়স ছিল ৷ এক ডিনার ইভেন্টে যতীন দাস দিন কয়েকের জন্য তাঁকে অ্যাসিস্ট করতে বলেন ৷ তাতে সম্মত হন ৷ এরপর কাজের দ্বিতীয় দিনেই শিল্পীর খিড়কি গ্রামের স্টুডিওতে শ্লিলতাহানির
শিকার হন ৷ এবং বাধ্য হন সেখান থেকে চলে আসতে ৷ যদিও পদ্মভূষণে সম্মানিত ওই শিল্পী সব অভিযোগই অস্বীকার করেছেন ৷ 


সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে  যতীন দাস বলেন, "আমি আঘাত পেয়েছি ৷ এখন এধরনের ঘটনা ঘটছে ৷ কিছু মানুষ এধরনের কাজ করে, আর কিছু মানুষ অভিযোগ দায়ের করে ৷ কিন্তু, আমি তাঁকে চিনিও না, তাঁর সঙ্গে কখনও দেখাও হয়নি ৷ যদিও আলাপ করেও থাকি এরকম কারও সঙ্গে কিন্তু এধরনের ব্যবহার করিনি ৷ এটা
কুতসিত ৷" সেইসঙ্গে বলেন, "এখন এই খেলাটা চলছে, কেউ বাস্তবে এধরনের কাজ করছে, আবার কেউ কেউ এধরনের অভিযোগ এনে মজা করছে ৷"

 

 

NDTV থেকে প্রকাশিত কোনো তথ্য যদি আপনার শেয়ার করতে ইচ্ছা করে, তাহলে দয়া করে মেল করুন worksecure@ndtv.com