মুখে মৌমাছির পাল নিয়ে চার ঘণ্টা বসে! গিনেস বুকে নাম তুললেন কেরলের তরুণ

এমএসের বাবা সূর্যকুমার একজন পুরস্কারপ্রাপক মধু চাষী

মুখে মৌমাছির পাল নিয়ে চার ঘণ্টা বসে! গিনেস বুকে নাম তুললেন কেরলের তরুণ

বিশ্ব রেকর্ড গড়তে মুখভর্তি মৌমাছি নিয়ে চার ঘণ্টা বসেছিলেন ওই যুবক।

তিরুবনন্তপুরম:

মৌমাছি অনেকের কাছে আতঙ্কের কারণ। হূলের ভয়ে অনেকে চাক ভাঙতেও ভয়। কিন্তু সেই পতঙ্গের পালকে চারঘন্টা মাথায় ও মুখে নিয়ে বসে থাকলেন কেরলের এক তরুণ (Kerala youth with swam-bee)। তাঁর এই অনন্য কীর্তি রেকর্ড গড়ল গিনেস বুকে। নেচার এমএস নামে ওই তরুণ ৪ ঘণ্টা ১০ মিনিট ৫ সেকেন্ডস। গিনেস (Guinness World Record) সূত্রে খবর, পতঙ্গপ্রেমী এই তরুণের পুরো মুখ আর মাথায় মৌমাছি বসেছিল। এই অবস্থায় তিনি কাটিয়ে দিয়েছেন চার ঘণ্টারও বেশি সময়। ডেইলি মেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমএস বলেছেন, "মৌমাছি (Bee) আমার প্রিয় বন্ধু। আমার ইচ্ছা অন্যরাও ওদের বন্ধু বানাক। বাবার সঙ্গে থেকেই মৌমাছির সঙ্গে ঘর করার কৌশর রপ্ত করেছি। সাত বছর বয়স থেকে ওদের মুখ ও মাথায় নিয়ে ঘুরে বেড়াই।" সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, এমএসের বাবা সূর্যকুমার একজন পুরস্কারপ্রাপক মধু চাষী।

ইউরো উইকলি নিউজ সূত্রে খবর, এখন অনায়াসে ৬০ হাজার মৌমাছিকে মাথায় ও মুখে বসতে দিতে স্বচ্ছন্দ্য এই তরুণ। তাঁর দাবি, "সমাজের বাস্তুতন্ত্র ঠিক রাখতে মৌমাছির ভূমিকা অসামান্য। এরা সমাজবদ্ধ জীবও বটে। তাই এদের সঙ্গে বন্ধুত্ব রেখে চললে আখেড়ে লাভ মানুষের।"

দু'বছর আগে একইভাবে মৌমাছি সংরক্ষণ ও মধু চাষে সচেতনতা বাড়িয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েছিলেন এমএস।

Click for more trending news