"সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা হবে না": এসপিজি সুরক্ষা প্রত্যাহারে নিয়ে বলল কেন্দ্র

Congress বলেছে যে সনিয়া-রাহুল-প্রিয়াঙ্কা গান্ধি ভদরা এবং মনমোহন সিংয়ের এসপিজি সুরক্ষা প্রত্যাহার নিয়ে সরকারকে পক্ষপাতদুষ্ট রাজনীতির উর্ধ্বে ওঠা উচিত

গান্ধি পরিবারকে এখন জেড-প্লাস সুরক্ষা দেওয়ার ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার (ফাইলচিত্র)

নয়া দিল্লি:

গান্ধি পরিবার এবং প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের এসপিজি সুরক্ষা প্রত্যাহারের বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের নেওয়া পদক্ষেপের বিরুদ্ধে সংসদে সরব হয়েছে কংগ্রেস (Congress)। তবে এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সাফ জানিয়ে দিয়েছে যে "ওই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের কোনও সম্ভাবনাই নেই, কংগ্রেস চাইলে এ বিষয়ে তাঁদের প্রশ্ন রাখতে পারে।" মঙ্গলবার এসপিজি সুরক্ষা প্রত্যাহারের (Congress security cover)বিরুদ্ধে লোকসভায় বিক্ষোভ দেখানোর পর বুধবার রাজ্যসভাতেও বিক্ষোভ দেখান কংগ্রেস সাংসদরা। সনিয়া গান্ধি, রাহুল গান্ধি, প্রিয়াঙ্কা গান্ধি ভদরা এবং মনমোহন সিংয়ের এসপিজি সুরক্ষা প্রত্যাহার নিয়ে সরকারকে পক্ষপাতদুষ্ট রাজনীতির উর্ধ্বে ওঠা উচিত, বলেন কংগ্রেস নেতা আনন্দ শর্মা। তাঁরা "জাতীয় স্বার্থে" কাজ করেছেন, এমনটাই বলেন ওই কংগ্রেস নেতা। তাঁদের জীবন সংশয়ের মতো হুমকি রয়েছে, তাই তাঁদের এসপিজি নিরাপত্তাই (SPG security) দেওয়া উচিত, সওয়াল তাঁর।

আর এসপিজি সুরক্ষা নয়, এখন থেকে জেড প্লাস নিরাপত্তা পাবে গান্ধি পরিবার

"দয়া করে পক্ষপাতদুষ্ট রাজনীতির উর্ধ্বে উঠে পর্যালোচনা করুন এবং জাতীয় স্বার্থে ওই নিরাপত্তা ব্যবস্থা পুনরুদ্ধার করুন, অন্যথায় আজ, আগামীকাল এবং ভবিষ্যতে এই নিরাপত্তা প্রত্যাহারের উদ্দেশ্য নিয়ে প্রশ্ন করা হবে", বলেন কংগ্রেস নেতা আনন্দ শর্মা ।

প্রবীণ ওই কংগ্রেস নেতা যুক্তি দেন যে মনমোহন সিং ১০ বছর ধরে দেশের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। এছাড়াও, সনিয়া গান্ধি হলেন শহিদ প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধির পুত্রবধূ এবং শহিদ প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধির স্ত্রী।

এসপিজি নিরাপত্তা প্রত্যাহার করে সনিয়া গান্ধির জন্য বরাদ্দ ১০ বছরের পুরনো গাড়ি

তিনি বলেন, "আমরা সরকারকে অনুরোধ করছি যে আমাদের নেতাদের নিরাপত্তার বিষয়টি পক্ষপাতদুষ্ট রাজনৈতিক বিবেচনার বাইরে রেখে বিবেচনা করার জন্যে"। 

বিজেপির জেপি নাড্ডা বলেন যে এই সিদ্ধান্ত নিয়ে "রাজনৈতিক বিষয় কিছু নেই"। "এখানে রাজনৈতিক কোনও কারণে এই সুরক্ষা প্রত্যাহার করা হয়নি। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের একটি নির্দিষ্ট নিয়ম রয়েছে এবং সেখানের একটি নির্দিষ্ট প্রোটোকল রয়েছে। এটা কোনও রাজনীতিবিদ নিজের উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে করেনি, এই বিষয়টি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক ঠিক করে এবং হুমকির সম্ভাবনা অনুযায়ী সুরক্ষা দেওয়া হয় এবং প্রয়োজনে তা প্রত্যাহারও করে নেওয়া হয়", বলেন বিজেপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নাড্ডা।

কেন্দ্রীয় সরকার বলেছে যে সিদ্ধান্তটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের নির্দিষ্ট কমিটি আলাপ আলোচনা করেই নিয়েছে এবং সেখানে কোনও রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ করা হয়নি।

;চলতি মাসের শুরুতেই গান্ধি পরিবারের উপর থেকে এসপিজি নিরাপত্তা প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। তাঁদের জেড প্লাস ধরণের নিরাপত্তা দেওয়া হয়। ১০০ জন সিআরপিএফ মোতায়েন করা হয়েছে। ১৯৯১ সালে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধি জঙ্গি গোষ্ঠী এলটিটিই-র বোমা বিস্ফোরণে নিহত হন। তারপর থেকেই গান্ধি পরিবারকে কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে দেওয়া হয়। এসপিজি নিরাপত্তায় কেবল দেশ নয়, বিদেশে গেলেও মিলত ৩,০০০ সদস্যের নিরাপত্তা বাহিনীর সুরক্ষা। কমান্ডোরা তাঁদের বাসভবনে থেকেই তাঁদের নিরাপত্তা দিতেন।

এখন জেড প্লাস নিরাপত্তায় দিল্লি পুলিশ সনিয়া ও রাহুল গান্ধির বাড়ির সামনে পুলিশ কর্মী মোতায়েন রেখেছে। এর আগে এসপিজি নিরাপত্তার সময় বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কমান্ডোরা দায়িত্বে থাকতেন।

More News