অধিকাংশ নেতা দুর্নীতিগ্রস্ত, বিফলে যাবে ‘দিদিকে বলো’: দিলীপ ঘোষ

নজরে আসে ক্ষমতায় থেকেও কেন জনসংযোগ হারাচ্ছে দলের নেতা, কর্মীরা। সেই ক্ষতে প্রলেপ দিতে কালক্ষেপ না করেই তাই নতুন কর্মসূচির ঘোষণা করে দেন তৃণমূল নেত্রী।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
অধিকাংশ নেতা দুর্নীতিগ্রস্ত, বিফলে যাবে ‘দিদিকে বলো’: দিলীপ ঘোষ
মালদহ: 

কাটমানি ফেরতের কথা বলে প্যান্ডোরার বাক্স খুলে দিয়েছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। কোচবিহার থেকে কাকদ্বীপ, সর্বত্র আন্দোলন দানা বাঁধে। পঞ্চায়েত পুরসভা স্তরে তৃণমূল (TMC) জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে উঠে আসে ক্ষোভের বহিপ্রকাশ। একে লোকসভা ভোটে বিপর্যয়। অন্যদিকে কাটমানি বিতর্কে অস্বস্তি বা়ড়ে রাজ্যের শাসক শিবিরের। নজরে আসে ক্ষমতায় থেকেও কেন জনসংযোগ হারাচ্ছে দলের নেতা, কর্মীরা। সেই ক্ষতে প্রলেপ দিতে কালক্ষেপ না করেই তাই নতুন কর্মসূচির ঘোষণা করে দেন তৃণমূল নেত্রী। গত ২৯ জুলাই সামনে আনেন ‘দিদিকে বলো' (Didike Bolo) অ্যাপ ও ফোন নম্বর। যার মাধ্যমে রাজ্যবাসী সহজেই সরাসরি অভিযোগ জানাতে পারবেন মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। ২১শের বিধানসভা ভোটের কথা মাথায় রেখে এমন সুচারু জনসংযোগের পদক্ষেপকে অনেকেই মাস্টার স্ট্রোক বলছেন। পরিসংখ্যান বলছে এদান্তি নিচু তলায় কমেছে জোড়াফুল ছেড়ে পদ্মে যাওয়ার হিড়িকও। তবে এতে ডরাবার পাত্র নন রাজ্য বিজেপি (BJP) সভাপতি  দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। তাঁর সাফ কথা, এসবে চিঁড়ে ভিজবে না। 

বাংলার মানুষ বলছে “দিদিকে ছাড়ো”, কটাক্ষ শিবরাজ সিং চৌহানের

শুক্রবার মালদায় দলীয় কর্মসূচিতে ছিলেন দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। তিনি বলেন, ‘অধিকাংশ নেতা, জনপ্রতিনিধি দুর্নীতিগ্রস্ত। তাই সংযোগের কর্মসূচি নিলে মানুষ আর তৃণমূলে (TMC) আস্থা রাখতে পারবেন না। ফলে সবই বিফলে যাবে।' তাঁর হুঁশিয়ারি, লোকসভা ভোটের ফল বলছে ২১শে বাংলা দখল করে বিজেপি। তাই গেরুয়া শিবিরের কর্মী, সমর্থকদের শাসিয়ে কোনও লাভ নেই। দেওয়ালের লিখন পরিষ্কার বুঝেও চেষ্টা করে যাচ্ছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। দাবি রাজ্য বিজেপি সভাপতির।  

তৃণমূলের দাবি, ‘দিদিকে বলো' (Didike Bolo) কর্মসূচি বাংলায় ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। নেত্রীর নির্দেশে বিধায়করা এলাকায় গিয়ে কর্মীর বাড়ি রাত্রি যাপন করছেন। শুনছেন সাধারণ মানুষের অভাব অভিযোগের কথা। এতে সন্তুষ্ট মানুষ। না পাওয়ার কথা বলতে পেরে শাসক শিবিরের প্রতি তাদের ভরসা বাড়ছে। তাতেই ২১ জয়ের কাজ অনেকটা এগিয়ে নেওয়া গেল বলে মত ঘাসফুল নেতাদের। 

জনসংযোগে “দিদিকে বলো”, হেল্পলাইন চালু করল তৃণমূল কংগ্রেস

শুধু তৃণমূল নয়। এদিন মালদায় গেরুয়া শিবিরের এই নেতার নিশানায় ছিল কংগ্রেসও (Congress)। জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ বিলোপ নিয়ে প্রবল বিরোধীতা করেছে হাত শিবির। যাকে কটাক্ষ করে মেদিনীপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘অধীর চৌধুরী থেকে গুলাম নবি আজাদ, ৩৭০ বিলোপ নিয়ে ওঁদের কথায় ধারাবাহিকতার অভাব রযেছে। এছাড়া যুক্তির ধার নেই বিরোধীতায়।'



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................