সিএএ এনআরসির প্রতিবাদে হাতে তুলি মমতার, আঁকলেন প্রতিবাদী চিত্র

গত ডিসেম্বরে ওই আইন পাশ হওয়ার পর থেকে দেশজুড়ে বিরোধ শুরু হয়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও প্রতিবাদে সামিল হন।

সিএএ এনআরসির প্রতিবাদে হাতে তুলি মমতার, আঁকলেন প্রতিবাদী চিত্র

মঙ্গলবার মেয়ো রোডে মহাত্মা গান্ধির মূর্তির পাদদেশে ছবি আঁকেন মুখ্যমন্ত্রী।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন এবং প্রস্তাবিত এনআরসির প্রতিবাদে (Protest Against CAA,NRC) এবার হাতে তুলি তুলে নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। অন্যান্য শিল্পীদের সঙ্গে মঙ্গলবার তাঁকে ছবি আঁকতে দেখা গেল। মুখ্যমন্ত্রী সকলের কাছে আর্জি জানান, সিএএ ও এনআরসির বিরু্দ্ধে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ করার জন্য। তিনি জানান, তিনি কোনও ভাবেই রাজ্যে এই আইন কার্যকরী করতে দেবেন না। মঙ্গলবার মেয়ো রোডে মহাত্মা গান্ধির মূর্তির পাদদেশে ওই ছবি আঁকেন মুখ্যমন্ত্রী। এক তৃণমূল নেতা জানিয়েছেন, ওই ছবি নানা গ্যালারিতে প্রদর্শিত হবে। তিনি বলেন, ‘‘এই ছবি সিএএ-র বিরুদ্ধে আমাদের প্রতিবাদের অঙ্গ।''

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে রাজ্যপালকে ঘিরে বিক্ষোভ সিএএ-বিরোধী পড়ুয়াদের

গত ডিসেম্বরে ওই আইন পাশ হওয়ার পর থেকে দেশজুড়ে বিরোধ শুরু হয়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও প্রতিবাদে সামিল হন। এপর্যন্ত সিএএ ও এনআরসির বিরুদ্ধে ১১টি প্রতিবাদ মিছিল ও সাতটি জনসভা করেছেন তিনি।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনে ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে আগত ধর্মীয় নির্যাতনের শিকার হিন্দু, খ্রিস্টান, শিখ, ফার্সি, জৈন ও বৌদ্ধ শরণার্থীদের ভারতীয় নাগরিকত্ব প্রদানের কথা বলা হয়েছে।

''একদলীয় শাসনের রাজ্যগুলিই CAA-বিরোধী প্রস্তাব পাস করেছে": অজিত পাওয়ার

আইন অনুযায়ী, এই সম্প্রদায়ের শরণার্থীদের বেআইনি অনুপ্রবেশকারী হিসেবে দেখা হবে না। তাঁদের ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হবে।

সমালোচকদের মতে, এই আইন মুসলিমদের জন্য বৈষম্যমূলক এবং এটি সংবিধানের বর্ণিত দেশের ধর্মনিরপেক্ষ ভাবমূর্তির পরিপন্থী। 



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
More News