‘‘সীমিত সাধ্যের মধ্যে ৫ লক্ষ টাকা করে দান রাজ্য ও কেন্দ্রের তহবিলে’’, টুইট মুখ্যমন্ত্রীর

তিনি জানান, ‘‘আমি বিধায়ক কিংবা মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে কোনও বেতন নিই না। এমনকী সাত বারের সাংসদ হিসেবে যে পেনশন পাই, তাও নিই না।’’

‘‘সীমিত সাধ্যের মধ্যে ৫ লক্ষ টাকা করে দান রাজ্য ও কেন্দ্রের তহবিলে’’, টুইট মুখ্যমন্ত্রীর

টুইট করে একথা জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্যে করোনা (Coronavirus) মোকাবিলায় তৈরি তহবিলে ৫ লক্ষ টাকা জমা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (PM Modi) ত্রাণ তহবিলেও ৫ লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছেন তিনি। মঙ্গলবার বিকেলে টুইট করে একথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন তাঁর অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডল থেকে টুইট করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি জানান, ‘‘আমি বিধায়ক কিংবা মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে কোনও বেতন নিই না। এমনকী সাত বারের সাংসদ হিসেবে যে পেনশন পাই, তাও নিই না। আমি সীমিত সাধ্যের মধ্যে রয়েছি। আমার রোজগারের প্রাথমিক সূত্র হল আমার সৃষ্টিশীল কাজ। আমার সুর ও বই থেকে আমি যে রয়্যালটি পাই সেটুকুই।''

তিনি আরও লেখেন, ‘‘সেই সীমিত সাধ্যের মধ্যেও আমি আমার দেশকে কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সাহায্য করতে ৫ লক্ষ টাকা দান করেছি প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ত্রাণ তহবিলে। আরও ৫ লক্ষ টাকা দিয়েছি পশ্চিমবঙ্গের আপৎকালীন ত্রাণ তহবিলে।''

করোনা সংক্রমণ রুখতে গত সপ্তাহ থেকে ২১ দিনে সম্পূর্ণ লকডাউনে রয়েছে। আগামী ১৫ এপ্রিল লকডাউন শেষ হওয়ার কথা। গত ২৪ মার্চ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই লকডাউনের ঘোষণা করেন রাত আটটায় জাতির উদ্দেশে ভাষণের সময়।

প্রসঙ্গত, দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৪৫৩। মৃত ৪৭। সবথেকে বেশি আক্রান্ত মহারাষ্ট্রে। সেখানে আক্রান্ত ২৪৮। মৃত ১০। পশ্চিমবঙ্গে আক্রান্তের সংখ্যা ২৭। মৃত ৩।

গত ডিসেম্বরে চিনের উহান শহর থেকে উৎপত্তি লাভ করার পর বিশ্বের অসংখ্য দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। বিশ্বজুড়ে ত্রাসের সঞ্চার করেছে এই মারণ ভাইরাস।