This Article is From Jun 12, 2020

কেবল মহারাষ্ট্রেই করোনা আক্রান্ত ১ লক্ষেরও বেশি মানুষ! মুম্বইয়ে ৫৫,৪৫১ টি সংক্রমণ

রাজ্যের রাজধানী মুম্বই, দেশের করোনাভাইরাস সংক্রমণের তালিকায় সবার আগে, ১,৩৬৬ টি নতুন সংক্রমণ এবং ৯০ টি নতুন মৃত্যুর খবর মিলেছে বাণিজ্য নগরীতে।

কেবল মহারাষ্ট্রেই করোনা আক্রান্ত ১ লক্ষেরও বেশি মানুষ! মুম্বইয়ে ৫৫,৪৫১ টি সংক্রমণ
মুম্বই:

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৩ লক্ষ মানুষ, আর তার মধ্যে ১ লক্ষেরও বেশি সংক্রমণ কেবল ধরা পড়েছে মহারাষ্ট্রেই! শুক্রবার ৩,৪৯৩ টি নতুন করোনা সংক্রমণের খবর মেলার পরে দেশের মধ্যে করোনভাইরাস-আক্রান্তের নিরিখে সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় নিজের স্থান ধরে রাখল মহারাষ্ট্র, এখানে সংক্রমণ এক লাখের সীমা অতিক্রম করেছে। সরকারি তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ১২৭ টি মৃত্যু নিয়ে মৃতের সংখ্যা  ৩,৭১৭-তে পৌঁছেছে।

রাজ্যের রাজধানী মুম্বই, দেশের করোনাভাইরাস সংক্রমণের তালিকায় সবার আগে, ১,৩৬৬ টি নতুন সংক্রমণ এবং ৯০ টি নতুন মৃত্যুর খবর মিলেছে বাণিজ্য নগরীতে। দেশের মূলধনের রাজধানীতে এখন মোট আক্রান্ত ৫৫,৪৫১ জন এবং মৃত্যুর সংখ্যা ২,০৪৪।

৪৭,৭৯৬ জন মানুষ এখনও পর্যন্ত এই রোগকে হারিয়ে সেরে উঠেছেন; শুক্রবারই ১,৭১৮ জনকে হাসপাতাল থেকে ছাড়া হয়েছে। রাজ্যে ৪৯,৬১৬ জন করোনাক পজিটিভ এই রাজ্যে এখন। মহারাষ্ট্রের আরোগ্যলাভের হার এখন ৪৭.৩ শতাংশ, করোনাভাইরাসে মৃত্যুর হার সেখানে ৩.৭ শতাংশ। সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ১,৫৫৩ টি প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারান্টাইন সেন্টারে ৭৫,০৬৭ টি আইসোলেশন বেড রয়েছে। যার ২৮,২০০ টিই ভর্তি। ৫,৭৯,৫৬৯ জন এখনও পর্যন্ত হোম-কোয়ারান্টাইনড হয়েছেন।

মহারাষ্ট্র ৩১ মে তার ‘মিশন বিগিন আগেইন' পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে যাতে সুরক্ষা নির্দেশিকা এবং সামাজিক দূরত্বের নিয়মগুলি বজায় রেখে ভোর ৫ টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত বাইরের কার্যকলাপ এবং সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত দোকানপাট ফের চালু করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

করোনাভাইরাসের ক্রমবর্ধমান গতি উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং আবারও সম্পূর্ণ লকডাউন হতে চলেছে অর্থাৎ প্রয়োজনীয় পরিষেবাগুলি বাদ দিয়ে সমস্ত নিষেধাজ্ঞা ফের জারি হতে চলেছে এমন গুজবও ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে শুক্রবার অবশ্য স্পষ্ট করে জানান যে সম্পূর্ণ লকডাউন ফের প্রয়োগ করা হবে না।

সরকার ‘আনলক ১' পরিকল্পনা ঘোষণার কয়েকদিন পরেই করোনাভাইরাস সংক্রামিত তিন লক্ষেরও বেশি রোগীর খবর মিলেছে। শুক্রবার নতুন করে ২,৯০৩ টি সংক্রমণ মেলায় মোট তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩,০৪,০১৯-এ।