“শিবসেনার সমর্থন পাব’, বিধানসভার মেয়াদ শেষের একদিন আগে বললেন নীতিন গড়করি

Maharashtra government formation: শিবসেনার সঙ্গে জট কাটাতে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে নীতিন গড়করির নামও ঘোরাফেরা করছে

নীতিন গড়করি বলেন, “মহারাষ্ট্রের বর্তমান পরিস্থিতি” নিয়ে নাগপুরে “মানুষের সঙ্গে দেখা করবেন”

হাইলাইটস

  • “মহারাষ্ট্রের বর্তমান পরিস্থিতি” নিয়ে নাগপুরে “মানুষের সঙ্গে দেখা করবেন”
  • সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে তাঁর নাম ঘোরাফেরা করছে
  • বাল ঠাকরের ঘনিষ্ঠ ছিলেন নীতিন গড়করি, উদ্ধব ঠাকরেরও ঘনিষ্ঠ
নয়াদিল্লি/মুম্বই:

দেবেন্দ্র ফড়নবিশের নেতৃত্বে মহারাষ্ট্রে সরকার (Maharashtra Government) গঠন করা উচিত বিজেপি-শিবসেনা জোটের, এমনটাই বললেন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী নীতিন গড়করি (Nitin Gadkari), পাশাপাশি জানালেন, শিবসেনার সমর্থন  পাবে তাঁর দল। এদিনই হঠাৎই নাগপুরে রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘের সদর দফতরে উড়ে যান গড়করি, তিনি বলেন, “দেবেন্দ্র ফড়নবিশকেই পছন্দ, এবং তাঁরই সরকারের নেতৃত্ব দেওয়া উচিত। বিজেপি ১০৫টি আসন জিতেছে, ফলে বিজেপিরই মুখ্যমন্ত্রী হওয়া উচিত”। শিবসেনাকে আটকাতে সর্বসম্মত প্রার্থী হিসেবে তাঁর নামও ঘোরাফেরা করছে। জল্পনার নিয়ে প্রতিক্রিয়ায় নীতিন গড়করি বলেন, “আমি দিল্লিতে, আমার মহারাষ্ট্রে যাওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই”। আজই মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারির সঙ্গে দেখা করবে বিজেপির একটি প্রতিনিধি দল।

বৃহস্পতিবার রাজ্যপালের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবে বিজেপি, আবারও ৫০-৫০ দাবি শিবসেনার

গতমাসে মহারাষ্ট্রের বিধানসভা নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায় বিজেপি ও শিবসেনা জোট, বিজেপি জেতে ১০৫টি আসন, এবং ৫৬টি আসনে জয় পায় শিবসেনা। তবে ২৪ অক্টোবর ফলাফল প্রকাশের পর থেকেই “৫০-৫০” ফর্মূলার দাবি জানিয়েছে শিবসেনা, আর তা নিয়েই থেমে রয়েছে মহারাষ্ট্রের সরকার গঠন প্রক্রিয়া, তাদের  তরফে বলা হয়েছে, এটি নিয়ে লোকসভা নির্বাচনের আগেই বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে।

সরকার গঠনের মাত্র ২৪ ঘন্টা আগে, মেয়াদের অর্ধেক সময়ের জন্য তাদের তরফে মুখ্যমন্ত্রী পদের দাবির উল্লেখ করেছে, পাশাপাশি সমানভাবে দফতর ভাগেরও দাবি জানিয়েছে তারা। বিজেপির তরফে বলা হয়েছে, পূর্ণ সময়ের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবেই কাজ চালিয়ে যাবেন দেবেন্দ্র ফড়নবিশ। 

মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের সময় এগিয়ে আসায় "ষড়যন্ত্র" করছে বিজেপি, অভিযোগ শিবসেনার

নাগপুরে রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘ প্রধান মোহন ভগবতের সঙ্গে দেখা করবেন নীতিন গড়করি।  সাংবাদিকদের তিনি বলেন, আরএসএস অথবা মোগন ভগবতের “কোনও ভূমিকা নেই”, এবং কোনও সময়েই ছিল না।

সম্ভাব্য মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে ঘোরাফেরা করছে নীতিন গড়করির নামও, শিবসেনার সঙ্গে জোট কাটাতে সেই পথেই হাঁটা হতে পারে।

দেবেন্দ্র ফড়নবিশের ওপর খুবই অসন্তুষ্ট শিবসেনা, নির্দিষ্ট সময় অন্তর শিবসেনার মুখ্যমন্ত্রী পদের দাবি খারিজ করে দিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার রাতে মোহন ভাগবতের সঙ্গে নীতিন গড়করির বৈঠক গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।

তবে দলীয় সুপ্রিমো উদ্ধব ঠাকরে এবং মোহন ভাগবতের সঙ্গে বৈঠকের তত্ত্ব খারিজ করে দিয়েছেন শিবসেনা সাংসদ এবং মুখপাত্র সঞ্জয় রাউত।

নীতিন গড়করির প্রতি তুনামূলকভাবে নরম মনোভাব রয়েছে শিবসেনার, এর আগে মহারাষ্ট্রে বিজেপি-শিবসেনা দোট সরকারের মন্ত্রী ছিলেন তিনি, এবং শিবসেনার প্রতিষ্ঠাতা বাল ঠাকরেরও অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ছিলেন। উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গেও ভাল সম্পর্ক রয়েছে গড়করির।

 সপ্তাহান্তে, সমস্যা মেটাতে গড়করির হস্তক্ষেপ চেয়ে মোহন ভাগবতকে চিঠি লেখেন শিবসেনা নেতা কিশোর তিওয়ারি। চিঠি লেখা সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে, সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “দু ঘন্টার মধ্যে সমস্যার সমাধানে সক্ষম গড়করি”।

More News