মহারাষ্ট্র সরকারের নেতৃত্ব দেবেন উদ্ধব ঠাকরে, বৈঠকের পর জানালেন শরদ পাওয়ার

Maharashtra Goverment Formation: কোনও দলই সরকার গড়তে না পারায়, মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হওয়ার এক সপ্তাহ পরেই, জোট দানা বাঁধল

সরকারের শীর্ষ পদের জন্য শিবসেনা প্রধানকে রাজি করিয়েছে এনসিপি এবং কংগ্রেস

মুম্বই:

মহারাষ্ট্রে (Maharashtra) শিবসেনা, এনসিপি এবং কংগ্রেস জোট সরকারের মুখ্যমন্ত্রী হবেন উদ্ধব ঠাকরে (Uddhav Thackeray), শুক্রবার মুম্বইয়ে তিন দলের বৈঠকের পর সূত্র মারফৎ এমনটাই জানা গিয়েছে। সরকারের শীর্ষ পদের জন্য শিবসেনা প্রধানকে রাজি করিয়েছে এনসিপি এবং কংগ্রেস। জোট প্রায় চূড়ান্ত হয়ে যাওয়ার পথে, সেই কারণেই রাষ্ট্রপতির ডাকা সম্মেলনে তিনদিনের দিল্লি সফর বাতিল করে দিয়েছেন রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারি। সূত্র মারফৎ ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে, যে কোনও মুহুর্তে সরকার গঠনের দাবি জানাতে পারে জোট, সেই কারণেই মুম্বইয়ে থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রাজ্যপাল। ছেলে আদিত্য ঠাকরের সঙ্গে বৈঠক থেকে বেরোনোর সময়ে উদ্ধব ঠাকরে বলেন, “ ইতিবাচক, ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে”।

মহারাষ্ট্রে সরকার গড়া নিয়ে তিন দলের বৈঠক, রবিবার সনিয়া-শরদ আলোচনা

কোনও দলই সরকার গড়তে না পারায়, মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হওয়ার এক সপ্তাহ পরেই, জোট দানা বাঁধল।

বিধাননসভা নির্বাচনে, ২৮৮ আসনের মধ্যে ১০৫টিতে পদ্মফুল ফোটে, শিবসেনা পায় ৫৬টি আসন, ফলে অনায়সেই সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায় বিজেপি-শিবসেনা জোট।তবে ক্ষমতা ভাগাভাগি নিয়ে তাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব এবং পরে জোট ভেস্তে যায়।

নির্দিষ্ট সময় অন্তর মুখ্যমন্ত্রীর পদ এবং সমান ক্ষমতার দাবি নিয়ে মতানৈক্যের জেরে তিন দশকের পুরানো জোট ভেঙে যায় শিবসেনা ও বিজেপির। গত সোমবার কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধিকে ফোন করে সমর্থনের অনুরোধ জানান উদ্ধব ঠাকরে।

মহারাষ্ট্রে ক্ষমতা বণ্টন নিয়ে গভীর রাতে উদ্ধব ঠাকরে-কংগ্রেস আলোচনা

আদর্শগতভাবে ভিন্নদল শিবসেনার সঙ্গে কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধি জোটের ইঙ্গিত দেওয়ার পরেই, তা দানা বাঁধে। দেশের বাণিজ্যরাজ্য থেকে বিজেপিকে ক্ষমতা দখলের বৃত্ত থেকে ছিটকে দিতে চান তারা, কংগ্রেস সর্বোচ্চ নেত্রীকে মহারাষ্ট্রের নেতারা এমনটাই জানিয়েছেন বলে খবর।

মহারাষ্ট্রে জোটের কারিগর এনসিপি সুপ্রিমো শরদ পাওয়ার, কংগ্রেস ও শিবসেনার সঙ্গে সেতুবন্ধের ভূমিকায় অবতীর্ণ হন তিনি। গত দুসপ্তাহে, দিল্লিতে দুবার কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধির সঙ্গে দেখা করেন শরদ পাওয়ার।

সিদ্ধান্ত নিতে পারছিল না কংগ্রেস, বুধবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন এনসিপি  সুপ্রিমো, সেই সময়ে মহারাষ্ট্রের জটিলতা নিয়ে কঠোর বার্তা মেলে। সেদিনই সন্ধ্যায় এনসিপির সঙ্গে শরদ পাওয়ারের বাড়িতে বৈঠক করে কংগ্রেস।

More News