This Article is From Jan 12, 2019

পিরিয়ড নিয়ে সংস্কার কাটাতে স্যানিটারি প্যাডের দীর্ঘ লাইন গড়ে গিনেস রেকর্ড

১৫ থেকে ২৪ বছর বয়সী মহিলাদের মধ্যে মাত্র ৫৮ শতাংশ নারী মাসিক চলাকালীন স্বাস্থ্যসুরক্ষায় স্বাস্থ্যকর পদ্ধতি ব্যবহার করেন।

পিরিয়ড নিয়ে সংস্কার কাটাতে স্যানিটারি প্যাডের দীর্ঘ লাইন গড়ে গিনেস রেকর্ড

গিনেস বিশ্বরেকর্ডে নাম তোলার আগে স্যানিটারি প্যাড সাজাচ্ছেন এক মহিলা (এএফপি)

নিউ দিল্লি:

বেঙ্গালুরুর একটি মেডিকেল কংগ্রেসে অংশগ্রহণকারীরা পিরিয়ডকালীন স্বাস্থ্যবিধি প্রচারের লক্ষ্যে স্যানিটারি প্যাডের দীর্ঘতম লাইন গড়ে নতুন গিনেস রেকর্ড স্থাপন করেছেন। ৬২ তম অল ইন্ডিয়া কংগ্রেস অব অবস্রেটিকস অ্যান্ড গাইনেকোলজি'র (এআইসিওজি) পাঁচশ মানুষ ১০,১০৫ টি স্যানিটারি ন্যাপকিন দিয়ে ১,০৭৮ মিটার (৩,৫৩৭ ফুট) লম্বা লাইন গড়েছেন। এই লাইন গড়তে তাঁদের সময় লেগেছে সাড়ে সাত ঘন্টা।

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড কর্মকর্তাদের দ্বারা স্বীকৃত এই স্যানিটারি প্যাডের লাইনের মধ্য দিয়ে একটি জরায়ুর ছবিও গড়া হয়েছে। এই শিল্পীদের স্লোগানই হল, “নাথিং ইজ কিউটেরাস দ্যান ইওর ইউটেরাস!” স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ গীতা প্রমোদ শানভাগ বলেন, "প্রত্যেক মহিলার তাঁদের সুস্বাস্থ্যের জন্য স্যানিটারি প্যাড দরকার। স্বাস্থ্যবিধি খুবই গুরুত্বপূর্ণ, নাহলে বেশিরভাগ মহিলাকেই পেলভিক ইনফেকশন, মূত্রনালীর সংক্রমণ এবং এই জাতীয় নানা স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগতে হতে পারে।"

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে কে দিলেন ‘যাদু কি ঝাপ্পি'

২০১৭ সালে প্রকাশিত একটি জাতীয় পরিবার স্বাস্থ্য সমীক্ষার (এনএফএইচএস) প্রতিবেদন অনুসারে, ১৫ থেকে ২৪ বছর বয়সী মহিলাদের মধ্যে মাত্র ৫৮ শতাংশ নারী মাসিক চলাকালীন স্বাস্থ্যসুরক্ষায় স্বাস্থ্যকর পদ্ধতি ব্যবহার করেন। ওয়াটারএড এবং ইউনিসেফের এক গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, দক্ষিণ এশিয়ায় এক তৃতীয়াংশেরও বেশি ছাত্রী তাঁদের মাসিক চলাকালীন স্কুলে যেতে পারেনি।

জুলাই মাসে, সরকার নারী শিক্ষা ও ক্ষমতায়ন বৃদ্ধির জন্য স্যানিটারি প্যাডের উপর বিতর্কিত কর প্রত্যাহার করেছিল। পরে বহু সমাজকর্মী ও বলিউড তারকারা এই বিষয়ে সরাসরি প্রচারে নামেন, মাসিক সংক্রান্ত ট্যাবু কাটাতে সরব হন তাঁরা।

নতুন নাগরিকত্ব বিলের মাধ্যমেই নিজেদের 'বাঙালি বিরোধী' তকমা ঘোচাতে চায় বিজেপি



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)