মোদী দিনে ১৮ ঘণ্টা কাজ করেন আর রাহুল তো মাঝে মাঝেই বিদেশে গিয়ে ছুটি কাটান: অমিত

Lok Sabha Elections 2019: রাহুলবাবা দু-তিন মাস পর পর বিদেশে ছুটি কাটাতে চলে যান। তাঁকে নিয়ে মা সোনিয়া গান্ধীও চিন্তায় থাকেন: অমিত

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
মোদী দিনে ১৮ ঘণ্টা কাজ করেন আর রাহুল তো মাঝে মাঝেই বিদেশে গিয়ে ছুটি কাটান: অমিত

Lok sabha Election 2019: আরও একবার সংবিধানের ৩৭০ ধারা বিলোপ করা নিয়ে সরব হন অমিত


পালামৌ, ঝাড়খন্ড: 

হাইলাইটস

  1. ঝাড়খণ্ডের সভা থেকে কংগ্রেস সভাপতিকে তীব্র আক্রমণ করলেন বিজেপি সভাপতি
  2. রাহুলকে নিয়ে এমনকি মা সোনিয়া গান্ধীও চিন্তায় থাকেন
  3. কংগ্রেস কখনও পাকিস্তানকে যোগ্য জবাব দেওয়ার চেষ্টা করেনিঃ অমিত

লোকসভা নির্বাচনের চতুর্থ দফার  (Lok sabha Election 2019, phase 4) ভোট শুরু হওয়ার আগে ঝাড়খণ্ডের সভা থেকে কংগ্রেস সভাপতিকে (Rahul Gandhi) তীব্র আক্রমণ করলেন বিজেপি সভাপতি। অমিত শাহ (Amit Shah) দাবি করেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Narendra Modi)  দিনে ১৮ ঘণ্টা কাজ করেন। গত কুড়ি বছরে একদিনও ছুটি নেননি। আর রাহুল গান্ধী মাঝেমধ্যেই বিদেশে ছুটি কাটাতে চলে যান! তাঁর কথায়, ‘ আমি গুজরাট থেকে মোদীজির সঙ্গে কাজ করছি। গত কুড়ি বছরে তাঁকে একদিনও ছুটিতে দেখিনি। আর অন্যদিকে আছেন রাহুলবাবা। দু-তিন মাস পর পর বিদেশে ছুটি কাটাতে চলে যান। তাঁকে নিয়ে তাঁর দলের নেতাকর্মীরা তো বটেই এমনকি মা সোনিয়া গান্ধীও চিন্তায় থাকেন।' এর পাশাপাশি আরও একবার পাকিস্তান প্রসঙ্গে কংগ্রেসকে তীব্র আক্রমণ করেন তিনি। অমিত বলেন, ‘ কংগ্রেস কখনও পাকিস্তানকে যোগ্য জবাব দেওয়ার চেষ্টা করেনি। আমার এখনও ভাবলে কষ্ট হয় পাকিস্তানের জঙ্গীরা ভারতে ঢুকে সেনাবাহিনীর জওয়ান হেমরাজের মাথা কেটে নিয়ে গিয়েছিল কিন্তু ক্ষমতায় থাকা সত্ত্বেও কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ সরকার চুপ করে বসে ছিল। প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের নেতৃত্বে চলা  সরকার কোনও ইতিবাচক পদক্ষেপ করেনি।'  বিজেপি সভাপতি ২০১৩ সালের একটি ঘটনার কথা তুলে ধরছিলেন। সে সময় লান্স নায়েক হেমরাজকে পাকিস্তান থেকে ঢুকে পড়া জঙ্গীরা খুন করে তারপর তার মাথা কেটে নিয়ে চলে যায়। এই ঘটনার কথাই নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে তুলে ধরে কংগ্রেসকে তীব্র আক্রমণ করলেন বিজেপি সভাপতি।

অতুল্য ঘোষের স্মৃতি বিজড়িত আসানসোলের দখল থাকবে কার হাতে?

দুটি বিষয়ের সঙ্গেই আরও একবার সংবিধানের ৩৭০ ধারা বিলোপ করা নিয়ে সরব হন অমিত। এই ধারা অনুযায়ী কাশ্মীরের বাসিন্দারা কয়েকটি বিশেষ সুবিধা পান। দীর্ঘদিন ধরেই বিজেপি এই ধারা বিলোপের কথা বলে আসছে। অন্যদিকে কাশ্মীরের রাজনৈতিক দলগুলি বিজেপির এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করেছে। তারপরও নিজেদের নির্বাচনী ইস্তেহারে বিজেপি জানিয়েছে তাদের সরকার ৩৭০ ধারা বিলোপ করবে। এ প্রসঙ্গে অমিত বলেন, ‘কংগ্রেস, ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা, রাষ্ট্রীয় জনতা দল ৩৭০ ধারার বিলোপ চায়না।  কিন্তু আমরা নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করে বলেছি। ওরা ভুল দিক বেছে নিয়েছে।' এই জনসভা থেকেই অমিতকে বলতে শোনা যায়, ‘ আমি গত চার পাঁচ মাসে দেশের উত্তর থেকে দক্ষিণ পূর্ব থেকে পশ্চিমের বিভিন্ন জায়গায় সভা করেছি। সমস্ত জায়গায় গিয়ে বুঝেছি দেশের মানুষ আবার মোদী সরকারকেই ক্ষমতায় দেখতে চায়।'  ঝাড়খন্ডে এবার তিন দফায় ভোট হচ্ছে। ২৯ এপ্রিল, ৬ই মে এবং ১২ মে ভোট দেবে ঝাড়খন্ড।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)


পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................