This Article is From May 17, 2019

গোলমালের পরেই প্রচার পক্রিয়া বন্ধ করে দিতে চেয়েছিলেন রাজ্যের দুই পর্যবেক্ষক

Lok sabha Election 2019: নির্বাচন কমিশনের (Election Commission) নির্দেশ অনুযায়ী বৃহস্পতিবার রাত ১০টার পর প্রচার করা বেআইনি

গোলমালের পরেই প্রচার পক্রিয়া বন্ধ করে দিতে চেয়েছিলেন রাজ্যের দুই পর্যবেক্ষক

Lok sabha Election 2019: শেষ দফার ভোট প্রচার এ রাজ্যে এক দিন আগেই শেষ হয়ে গিয়েছে

হাইলাইটস

  • শেষ দফার ভোট প্রচার এ রাজ্যে এক দিন আগেই শেষ হয়ে গিয়েছে
  • কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী বৃহস্পতিবার রাত ১০টার পর প্রচার করার বেআইনি
  • গত মঙ্গলবার বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ কলকাতায় রোড শো করেন
নিউ দিল্লি:

শেষ দফার ভোট প্রচার এ রাজ্যে এক দিন আগেই শেষ হয়ে গিয়েছে। নির্বাচন কমিশনের (Election Commission) নির্দেশ অনুযায়ী বৃহস্পতিবার রাত ১০টার পর প্রচার করা বেআইনি। গত মঙ্গলবার বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ কলকাতায় রোড শো  করেন। সেই কর্মসূচিকে ঘিরে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। বেনোজির ভাবে ৩২৪ ধারা (article 324) প্রয়োগ করে কমিশন। কমিয়ে দেয় প্রচারের সময়। এবার জানা গেল পশ্চিমবঙ্গের দুই পর্যবেক্ষক- বিশেষ পর্যবেক্ষক (Special Observer)  বিবেক দুবে এবং পুলিশ পর্যবেক্ষক (Police Observer) অজয় নায়েক দুজনেই চেয়েছিলেন প্রচার তৎক্ষণাৎ শেষ করে দেওয়া হোক। মানে তাদের মনে হয়েছিল পরিস্থিতি যা তাতে আর প্রচার করতে দেওয়া ঠিক হবে না। কিন্তু কমিশন সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয় বলে এনডিটিভি জানতে পেরেছে। কমিশনের তরফে সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে প্রচার প্রক্রিয়া কবে শেষ হবে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া পর্যবেক্ষকদের এক্তিয়ারের মধ্যে পড়ে না।

প্রচারের সময়সীমা কমিয়ে দেওয়ায় কমিশনের কাজকর্ম নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বিরোধী দলগুলি। আর এ ব্যাপারে দেশের অন্য বিরোধী নেতা-নেত্রীদের পাশে পেয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দোপাধ্যায়। ভোট প্রচারে বৃহস্পতিবার গোটা দিন ধরে তিনি বলেছেন এই সিদ্ধান্ত অগণতান্ত্রিক এবং এটি মোদি (দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী)- কে দেওয়া কমিশনের একটি উপহার।
তাঁর কথায়, ‘বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর দুটি জনসভা করার কথা ছিল। তাই তাঁকে আলাদা করে সুবিধা পাইয়ে দেওয়া হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের উচিত ছিল অমিত শাহকে (বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ) শাস্তি  দেওয়া। তা না করে তারা বিজেপিকে উপহার দিয়েছেl

এনডিটিভি জানতে পেরেছে কমিশনের দুই কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক বুধবার জানিয়েছিলেন পরিস্থিতি এতটাই অবনতির দিকে যাচ্ছে যে নতুন করে প্রচারের সুযোগ থাকলে আরও ভয়াবহ ঘটনা ঘটতে পারে। তাই সঙ্গে সঙ্গে প্রচার বাতিল করে দেওয়া উচিত। কিন্তু কমিশনের ফুল বেঞ্চ মনে করে তা করা ঠিক হবে না। তাই কিছুটা সময় নিয়ে প্রচার বন্ধ করা হয়।

এদিকে এনডিটিভিকে কমিশন বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, পর্যবেক্ষকরা সঙ্গে সঙ্গে প্রচার প্রক্রিয়া শেষ করে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন- এই বক্তব্যে তথ্যগত ত্রুটি আছে। তার কারণ প্রচারে সময়সীমা নির্ধারণ করা পর্যবেক্ষকদের কাজের মধ্যে পড়ে না।