বুথ ফেরত সমীক্ষা ‘অসত্য’ দাবি বিজেপির শরিক দলের নেতার

Lok Sabha elections 2019: অমিত শাহ থেকে শুরু করে প্রায় প্রত্যেকেই মনে করছেন একাধিক বুথ ফেরত সমীক্ষায় যে ফল উঠে এসেছে ২৩ তারিখ তা অক্ষরে অক্ষরে মিলে যাবে।

বুথ ফেরত সমীক্ষা ‘অসত্য’ দাবি বিজেপির শরিক দলের নেতার

General elections 2019: তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী বললেন, তাঁর দল  রাজ্যের ৩৯টি আসন জিতবে

চেন্নাই:

বুথ ফেরত সমীক্ষা (Exit Polls) নিয়ে উৎসাহিত বিজেপি। দলের সভাপতি অমিত শাহ (BJP President) থেকে শুরু করে প্রায় প্রত্যেকেই মনে করছেন একাধিক বুথ ফেরত সমীক্ষায় যে ফল উঠে এসেছে ২৩ তারিখ তা অক্ষরে অক্ষরে মিলে যাবে। কিন্তু এরই মধ্যে ভিন্ন সুর শোনা গেল তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী তথা এনডিএ-র অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শরিক এআইডিএএমকে-র নেতা ই পালানীস্বামীর মুখে।   

Election 2019: এগজিট পোল আসতেই, জোটসঙ্গীদের জন্য নৈশভোজ অমিত শাহের

দক্ষিণ ভারতে এনডিএ-র এই অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শরিক নেতা বললেন বুথ ফেরত সমীক্ষার ফলাফল মিথ্যে। বিভিন্ন সংস্থার বুথ ফেরত সমীক্ষার হিসেব ধরে পোল অফ পোলস করছে এনডিটিভি। তাতে দেখা যাচ্ছে শরিকদের সঙ্গে ঐক্যবদ্ধভাবে বিজেপি ৩০২টি আসন পেতে পারে এবং কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ পেতে পারে ১২২ টি আসন। ১১৮টি আসন পেতে পারে অন্য দলগুলি।

তামিলনাড়ুর হিসেব বলছে এবার বিরোধী দল ডিএমকে-র ফল ভাল হবে। রাজ্যের ৩৯টি আসনের মধ্যে ২৭টি তাদের দখলে যেতে পারে।একটি সমীক্ষা বলছে ২৭ নয় ৩৪টি আসন পেতে পারে করুনানিধির দল। গত বছর তাঁর প্রয়াণের পর  ছোট ছেলে এম কে স্ট্যালিন দলের ভার নিয়েছেন। নিজেকে তামিলনাড়ুর মধ্যে আটকে না রেখে গোটা দেশের বিভিন্ন বিজেপি বিরোধী নেতার সঙ্গে মঞ্চ ভাগ করে নিয়েছেন তিনি।  কলকাতায় বিজেপি বিরোধী ইউনাইটেড ইন্ডিয়ায় জনসভায় যোগ দিতে এসেছিলেন তিনি। 

সন্ত্রাসের অভিযোগে আটটি লোকসভা কেন্দ্রের কয়েকটি বুথে পুননির্বাচনের দাবি জানাল বিজেপি

এই প্রেক্ষিতে তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী বললেন, তাঁর দল  রাজ্যের ৩৯টি আসন জিতবে। বুথ ফেরত সমীক্ষায় যে ফল উঠে এসেছে তা মিলবে না। ২০১৪ সালে এআইএডিএমকের ফল অসম্ভব ভালো হয়েছিল। জয়ললিতার নেতৃত্বে রাজ্যের ৩৭টি আসনেই জিতেছিলেন তাঁর দলের প্রার্থীরা। বছর দুয়েক বাদে প্রয়াত হন তিনি। তাঁর মৃত্যুর পর এই দলে বিভাজন স্পষ্ট হয়। সর্বক্ষণের সঙ্গী শশী কলাও দুর্নীতি মামলায় দোষী সাব্যস্ত হন। এখন তিনি জেলে। এরকমই একাধিক ঘটনায় এআইএডিএমকে নিজের সংগঠন হারাতে থাকে। অন্যদিকে করুনানিধি মৃত্যুর পর সংগঠনকে সম্পূর্ণ নিজের হাতে নিয়ে ঢেলে সাজিয়েছেন স্টালিন।

More News