"অপদার্থের দল, বিনাশকারীর দল, তাণ্ডবকারীর দল বিজেপিকে একটা ভোট নয়": মমতা

Lok Sabha elections 2019: তাঁর সভায় উপস্থিত কয়েক হাজার জনতার সামনে দাঁড়িয়ে একের পর এক তোপ দাগেন মমতা গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

বিজেপিকে একের পর এক তোপ মমতার । (ছবি প্রতীকী)


কোচবিহার: 

কোচবিহারের দিনহাটায় আসন্ন লোকসভা নির্বাচন (Lok Sabha elections 2019) নিয়ে সভা করতে এসে বিজেপি  (BJP) তথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে (PM Modi) রীতিমত কচুকাটা করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। তাঁর সভায় উপস্থিত কয়েক হাজার জনতার সামনে দাঁড়িয়ে একের পর এক তোপ দাগেন মমতা গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে। তিনি মোদীকে কটাক্ষ করে বলেন, "হাজার হাজার কোটি টাকা কোথায় গেল? সাহারার টাকা কোথায় গেল? চোরের মায়ের বড় গলা! আপনাকে আমি ফুৎকারে উড়িয়ে দিচ্ছি। আমি আপনার মত মিথ্যে কথা বলি না। কুৎসা করি না। লজ্জা করে না! আপনার রাজত্বে ভারতবর্ষে ১২ হাজার কৃষক আত্মহত্যা করেছে!" তাঁর কথায়, "মোদী আর এখন প্রধানমন্ত্রী নন। উনি এখন এক্সপায়ারিবাবু"। ভারতীয় জন পার্টিকে নিশানা করে মমতা আরও বলেন, "বিজেপি অপরাধীদের টিকিট দেয়, লুঠেরাদের টিকিট দেয়, অস্ত্র ব্যবসায়ীদের টিকিট দেয়"।

জনতার উচ্ছ্বসিত স্লোগান ও হাততালির মধ্যেই তিনি বলতে থাকেন, "আহা হা! কোচবিহার নাকি দখল করে নেবে! মামদোবাজি! আরে বাংলা তো পরে! আগে তো দিল্লির ইলেকশন! সেটা আগে জিতুক! অপদার্থের দল, বিনাশকারী দল, তাণ্ডবকারীর দল, ডাকাতের দল, গো-রক্ষাকারীর দল তোমরা আমাদের শেখাবে?! দিল্লি বাংলাকে পথ দেখায় না! বাংলাই বাংলাকে পথ দেখায়"!

তিনি বলেন, "বিজেপি জিতলে আর কোনও গণতন্ত্র থাকবে না দেশে। মনে রাখবেন। ওরা দেশকে কিন্তু জবরদখল করে নেবে!"

নিজের সরকারের কাজ নিয়েও একাধিক কথা বলেন মমতা। তিনি বলেন, তৃণমূল সরকারের আমলেই এসেছে বিনামূল্যে ওষুধ। 

কোচবিহারের বাসিন্দাদের উদ্দেশে তাঁর আরও বক্তব্য যে, বহুদিন ধরে ঝুলে থাকা ছিটমহলের জমি নিয়ে সমস্ত সমস্যা মিটিয়েছি আমরাই। 

চিটফান্ড কেলেঙ্কারি নিয়েও মোদী তথা সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন তিনি। বলেন, " চিটফান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম তদন্ত শুরু করি আমরা। সব কাগজপত্র রয়েছে আমার কাছে। বড় বড় কথা বলছেন মোদী! অসমের ডেপুটি সিপিএম কত টাকা নিয়েছিল সারদা থেকে"?

তিনি মোদীর বিরুদ্ধে আক্রমণ অব্যাহত রেখে বলেন, "একটা লোক নিজেকে কী ভাবে ভগবান জানে! নিজের নামে সিনেমা বের করছে। নিজের নামে টি-শার্ট বের করছে। প্যান্টুল বিক্রি করছে!"

কয়েকদিন আগেই অমিত শাহ দাবি করেছিলেন, বাংলায় জিতলে এনআরসি চালু করবেন। সেই দাবির বিরুদ্ধে রীতিমত বোমা ফাটিয়ে তৃণমূল সুপ্রিমোর জবাব, "আবার বলছে, বাংলায় এসে এনআরসি করবে! ওরে ৪২'টা আসনের মধ্যে একটা আসনে জিতে দেখা আগে! তারপর ওই বড় বড় কথা শুনব"! 



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................