মন খারাপ করবেন না, আমি এরপরেও প্রধানমন্ত্রী হতে পারি, সমর্থকদের আশ্বাস মায়াবতীর

মায়াবতী বুধবার জানিয়েছিলেন আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তিনি বহুজন সমাজ পার্টির প্রার্থীদের জন্য প্রচারের নামলেও ভ‌োটে দাঁড়াবেন না।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
মন খারাপ করবেন না, আমি এরপরেও প্রধানমন্ত্রী হতে পারি, সমর্থকদের আশ্বাস মায়াবতীর

এই নির্বাচনে যে লড়বেন না ৬৩ বছরের ‘বহেনজি', তা মোটামুটি ঠিকই হয়ে গিয়েছে।


নিউ দিল্লি: 

হাইলাইটস

  1. লোকসভা নির্বাচনে না লড়ার কথা আগেই জানিয়েছিলেন মায়াবতী
  2. তিনি প্রার্থীদের হয়ে প্রচার করবেন
  3. তবে, সমর্থকদের হতাশ হতে বারণ করেন তিনি

বুধবারই ঘোষণা করেছিলেন যে, তিনি আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে (Lok Sabha election) লড়াই করবেন না। কেবল বহুজন সমাজ পার্টির প্রার্থীদের হয়ে প্রচার করবেন। তারপর মায়াবতী (Mayawati)  ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দিলেন, ভোটে দাঁড়াচ্ছেন না মানে এই নয় যে তাঁর প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সম্ভাবনা শেষ হয়ে গেল। প্রধানমন্ত্রী বা মন্ত্রী হওয়ার ছ'মাসের মধ্যে সংশ্লিষ্ট প্রার্থীকে কোনও একটি আসন থেকে জিতে আসতে হবে, নিয়ম এমনটাই। টুইট করে তিনি বলেন, বিএসপি (BSP) কর্মীরা যেন মন খারাপ না করেন। “আমি যখন ১৯৯৫ সালে প্রথমবার উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হই, সেইসময় আমি উত্তরপ্রদেশের বিধানসভা বা কাউন্সিল, কোনওটারই সদস্য ছিলাম না। কেন্দ্রের ক্ষেত্রেও নিয়মটা তাই। মন্ত্রী বা প্রধানমন্ত্রী হওয়ার ছ'মাসের মধ্যে জিতে আসতে হবে লোকসভা বা রাজ্যসভা থেকে। তাই লোকসভা নির্বাচনে আমার লড়ার খবর পেয়ে মন খারাপ করবেন না”, বলেন তিনি।

জম্মু-কাশ্মীরের ক্যাম্পে ৩ সিআরপিএফকে গুলি করে আত্মহত্যার চেষ্টা জওয়ানের

মায়াবতী বুধবার জানিয়েছিলেন আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তিনি বহুজন সমাজ পার্টির প্রার্থীদের জন্য প্রচারের নামলেও ভ‌োটে দাঁড়াবেন না। “আমি ভোটে লড়ব না। আমি অত্যন্ত আত্মবিশ্বাসী যে, আমার দল আমার এই সিদ্ধান্তের কথা বুঝতে পারবে। আমাদের জোট খুব ভালো করছে। তবে, আমি একটি আসন খালি রেখে দিয়েছি এবং যদি এর পরে ইচ্ছে হয়, তাহলে সেখান থেকে লড়ব”, লখনউতে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এই কথা বলেন মায়াবতী। উত্তরপ্রদেশে তাদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী সমাজবাদী পার্টির সঙ্গে গত জানুয়ারি মাসেই জোট হয়। সেই জোটই বিজেপির বিরুদ্ধে লড়বে ১১ এপ্রিল থেকে ১৯ মে পর্যন্ত।

উত্তরপ্রদেশের চারবারের এই মুখ্যমন্ত্রী বহুবার সাংসদও হয়েছেন। ১৯৯৪ সালে প্রথমবার রাজ্যসভা থেকে সাংসদ হন।

দোলের পরে আঙুলে রঙ দিয়ে ‘দেশের সবথেকে বড় উৎসব' সার্থক করার বার্তা কমিশনের

এই নির্বাচনে যে লড়বেন না ৬৩ বছরের ‘বহেনজি', তা মোটামুটি ঠিকই হয়ে গিয়েছে। মায়াবতী এবং অখিলেশ দুজনেই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে, তাঁরা দলের হয়ে প্রচারেই বেশি সময় দেবেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে উত্তরপ্রদেশ থেকে একটি আসনও পায়নি মায়াবতীর বহুজন সমাজ পার্টি। বেশিরভাগ আসনেই তারা তৃতীয় স্থানে ছিল।



লোকসভা নির্বাচন 2019-এর সাম্প্রতিকতম খবর, লাইভ আপডেটস এবং নির্বাচনের সময়সূচি পান ndtv.com/bengali/elections-এর থেকে। 2019-এর ভারতের সাধারণ লোকসভা নির্বাচনের প্রতিটি আপডেট পাওয়ার জন্য আমাদের FacebookTwitter-এর দিকেও নজর রাখুন।লোকসভা নির্বাচন 2019-এর প্রতিটা (543)আসনের আপডেট জানুন

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................