Election 2019

Sponsors

বাংলার ভোটাররাই কেন্দ্রীয় বাহিনী চায়, দাবি বাবুলের

Lok Sabha Elections 2019: তৃতীয় দফা ভোটের আগে রাজ্যে বিশেষ পর্যবেক্ষক নিয়োগ করেছে নির্বাচন কমিশন।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
বাংলার ভোটাররাই কেন্দ্রীয় বাহিনী চায়, দাবি বাবুলের

আগামী ২৯ তারিখ আসানসোলে লোকসভা কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ হবে।


কলকাতা: 

হাইলাইটস

  1. বাংলার ভোটাররাই কেন্দ্রীয় বাহিনী চায়, দাবি বাবুলের
  2. ইতিহাসে এরকম পরিস্থিতি এর আগে কখনও তৈরি হয়নিঃ বাবুল
  3. লোকসভা নির্বাচন যত এগোচ্ছে ততই রাজনৈতিক উত্তাপ বাড়ছে

পশ্চিমবঙ্গ এমন একটা রাজ্য যেখানে ভোটারাই নিরাপদে ভোট দিতে কেন্দ্রীয় বাহিনী চাইছে। ইতিহাসে এরকম পরিস্থিতি এর আগে কখনও তৈরি হয়নি। এমনই দাবি করলেন আসানসোলের বিজেপি প্রার্থী তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo)। লোকসভা নির্বাচন যত এগোচ্ছে ততই রাজনৈতিক উত্তাপ বাড়ছে। তৃতীয় দফা ভোটের আগে রাজ্যে বিশেষ পর্যবেক্ষক নিয়োগ করেছে নির্বাচন কমিশন। দায়িত্ব নিয়ে অজয় ভি নায়েক বলেছেন বিহারে ১০-১৫ বছর আগে যে অবস্থা ছিল এখন বাংলার অবস্থা ও তাই। প্রায় একই কথা বললেন বাবুল(Babul Supriyo)। ইতিমধ্যেই বিশেষ পর্যবেক্ষকের মন্তব্যের সমালোচনা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নির্বাচনী  জনসভা থেকে রবিবার তিনি বলেছেন, সরকারি আধিকারিক রাজনৈতিক নেতাদের ভাষায় কথা বলছেন।

চার দিনে রাজ্যের তিন জায়গায় তিন মিছিল করলেন মমতা

সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বাবুল(Babul Supriyo) বলেন, "প্রতিটি বুথেই যাতে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকে তা আমাদের নিশ্চিত করতে হবে। ইতিহাসে এই প্রথম বার সাধারণ মানুষ কেন্দ্রীয় বাহিনী দাবিতে সরব হয়েছে। তারা বলছে বাহিনী মোতায়েন করা হোক যাতে আমরা ভোট দিতে পারি"। এর আগে আসানসোলে একাধিকবার  সংঘর্ষ হয়েছে । রামনবমীর মিছিল ঘিরে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। কয়েকটি বাড়িতে  আগুন ধরিয়ে দেওয়ার মতো ঘটনাও ঘটে। দুষ্কৃতীদের ছোঁড়া বোমার আঘাতে আহত হন কয়েকজন। এই পরিস্থিতিতেই কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবিতে আরও একবার সরব হলেন বাবুল(Babul Supriyo)।

দেড় বছর হয়ে গেল, মহম্মদ আফরাজুলের হত্যা এখনও ভোলেনি মালদহ

রাজ্য প্রশাসনের উদ্দেশে  তিনি বলেন, "প্রতিদিন রাত্রে বিজেপি কর্মীদের বাড়িতে হানা দিচ্ছে পুলিশ। বেছে বেছে বিজেপি কর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দেওয়া হচ্ছে"। তাঁর দাবি শাসকদল জানে মানুষ তাদের ওপর রেগে গিয়েছে। রাজ্যের ‘নিষ্ঠুর' মুখ্যমন্ত্রী ভয়ের রাজত্ব কায়েম করেছেন। সেই কারণেই নির্বাচনের আগে সন্ত্রাস হচ্ছে। সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে পুলিশকে ব্যবহারের অভিযোগ আনেন বাবুল। তিনি বলেন, "পুলিশ এবং প্রশাসনকে যেভাবে প্রয়োজন মমতা সেভাবে ব্যবহার করছেন। আর তাই কেন্দ্রীয় বাহিনী ছাড়া সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সম্ভব নয়"। আগামী ২৯ তারিখ আসানসোলে ভোটগ্রহণ।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)

NDTV Beeps - your daily newsletter

................... Advertisement ...................
................... Advertisement ...................