সাধ্বীর হয়ে প্রচার করবেন না মধ্যপ্রদেশ বিজেপির এই সংখ্যালঘু মুখ

ভোপাল লোকসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপি এবার সাধ্বী প্রজ্ঞা সিং ঠাকুরকে প্রার্থী করেছে। আর প্রজ্ঞা যাতে নির্বাচনে জিততে পারেন তার জন্য চেষ্টা করছে দল।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
সাধ্বীর হয়ে প্রচার করবেন না মধ্যপ্রদেশ  বিজেপির এই সংখ্যালঘু মুখ

গত বিধানসভা নির্বাচনে ফাতিমা ভোপাল  উত্তর কেন্দ্র থেকে লড়েছিলেন।


ভোপাল: 

হাইলাইটস

  1. সাধ্বীর হয়ে প্রচার করবেন না মধ্যপ্রদেশ বিজেপির ফাতিমা সিদ্দিকি
  2. লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি এবার সাধ্বী প্রজ্ঞা সিং ঠাকুরকে প্রার্থী করেছে
  3. প্রজ্ঞা যাতে নির্বাচনে জিততে পারেন তার জন্য চেষ্টা করছে বিজেপি

ভোপাল লোকসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপি এবার সাধ্বী প্রজ্ঞা সিং ঠাকুরকে  (Praggya Singh Thakur) প্রার্থী করেছে। আর প্রজ্ঞা যাতে নির্বাচনে (Lok sabha Election 2019 ) জিততে পারেন তার জন্য চেষ্টা করছে দল। ভোপালের সমস্ত বিধায়ক এবং বিভিন্ন  নির্বাচনে দলের হয়ে লড়াই করা প্রার্থীদের কাছে  প্রজ্ঞার জন্য প্রচার করতে অনুরোধ  করেছে বিজেপি। তবে গত বিধানসভা নির্বাচনে ভোপাল উত্তর কেন্দ্র থেকে ভোটে লড়া ফাতিমা সিদ্দিকি দলকে জানিয়ে দিয়েছেন প্রজ্ঞার হয়ে তিনি প্রচার করবেন না। বিধানসভা নির্বাচনে মধ্যপ্রদেশে বিজেপির একমাত্র সংখ্যালঘু প্রার্থী ছিলেন ফাতিমা। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানের সঙ্গে ফাতেমার সম্পর্ক খুবই ভাল। ফাতিমা জানিয়েছেন শিবরাজকে দেখেই তিনি বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন, প্রার্থী হয়েছিলেন। তবে লোকসভা  নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে প্রজ্ঞা সিং ঠাকুরের নাম ঘোষণা হতেই সম্পর্কের অবনতি হয়েছে।  

মহুয়ার অভিযোগ প্রসঙ্গে নির্বাচন কমিশনকে ব্যবস্থা নিতে বলল সুপ্রিম কোর্ট

এনডিটিভিকে তিনি বলেন, ‘ শিবরাজ সিং চৌহানকে দেখেই আমি দলে এসেছিলাম। সব সময় সমস্ত ধর্মকে সম্মান করেছি। কোনও ধর্মকে কোনও দিন অসম্মান করিনি। আর তাই প্রজ্ঞার সঙ্গে আমি থাকতে পারবো না।' বিধানসভায় দলের প্রার্থী ফাতিমা যাতে সাধ্বীর হয়ে প্রচার করেন তার জন্য চেষ্টা করে চলেছে বিজেপি। অন্যদিকে এই ঘটনায়  বিজেপিকে আক্রমণ করেছে কংগ্রেস। মধ্যপ্রদেশ কংগ্রেসের মুখপাত্র রবি সাক্সেনা বলেছেন, সাধ্বী আসার পরই এখানকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ক্ষুন্ন হয়েছে। এই ঘটনাটি খুবই দুর্ভাগ্যজনক। সমাজের সমস্ত অংশের মানুষ বিজেপির এই সিদ্ধান্তে কষ্ট পেয়েছেন। তবে কংগ্রেস যাই বলুক না কেন নিজেদের সিদ্ধান্তে বিজেপি অনড়। রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী এবং বিধায়ক বিশ্বাস সারাঙ্গ জানিয়েছেন, সাধ্বী প্রজ্ঞা শুধু বিজেপির প্রার্থী নন, যারা দেশকে টুকরো টুকরো করতে চায় অশান্তি সৃষ্টি করতে চায় সন্ত্রাসবাদীদের হাত শক্ত করতে চায় তাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের মুখও বটে। আমরা সবাই তাকে জিতিয়ে আনার জন্য সবরকমের  চেষ্টা করব।

গত বিধানসভা নির্বাচনে ফাতিমা ভোপাল  উত্তর কেন্দ্র থেকে লড়েছিলেন। তাঁর বিপক্ষে ছিলেন কংগ্রেসের পাঁচবারের বিধায়ক আরিফ আকিল। তবু কড়া টক্কড়  দিয়েছিলেন ফাতিমা। ৩৬ শতাংশ ভোটও পেয়েছিলেন। বাবা রসুল আহমেদ সিদ্দিকী একটা সময় কংগ্রেসেই ছিলেন। বিধায়কও হয়েছিলেন দুবার। পরে দল  ত্যাগ করেন বিজেপিতে যোগ দেন তিনি। আর সেই সূত্রেই বিজেপিতে আসেন  ফাতিমা।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................