অতুল্য ঘোষের স্মৃতি বিজড়িত আসানসোলের দখল থাকবে কার হাতে?

Lok Sabha Election 2019: আসানসোল লোকসভায় হাই ভোল্টেজ লড়াই হচ্ছে। শেষ হাসি কে হাসবেন তা জানা যাবে পরের মাসের ২৩ তারিখ।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
অতুল্য ঘোষের স্মৃতি বিজড়িত আসানসোলের দখল থাকবে কার হাতে?

Lok Sabha Election 2019: Phase 4: আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রে প্রথম ভোট হয় ১৯৫৭ সালে


কলকাতা: 

হাইলাইটস

  1. আসানসোল লোকসভা কেন্দ্র প্রথম ভোট ১৯৫৭ সালে
  2. ১৯৬২ সালের নির্বাচনে জেতেন বঙ্গ কংগ্রেসের প্রবাদপ্রতীম নেতা অতুল্য ঘোষ
  3. ২০১৪ সাল পর্যন্ত দীর্ঘদিন বামপন্থীদের হাতেই থেকেছে লোকসভা কেন্দ্রটি

কাল রাজ্যের ৮টি লোকসভা কেন্দ্রে নির্বাচন। তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি আলোচনা হচ্ছে বহরমপুর (Baharampur LokSabha Seat)এবং আসানসোলকে (Asansol LokSabha Seat) নিয়ে। এর পাশাপাশি কৃষ্ণনগর থেকে শুরু করে বাকি আসনগুলির চর্চায় রয়েছে। তবে আসানসোল আসনটি কয়েকটি দিক থেকে বিশেষ। প্রথম কথা এখানকার সাংসদ বিজেপির বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo) । শুধু সংসদ নয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও। তাঁর বিরুদ্ধে এবার আরেক সাংসদ মুনমুন সেনকে (Moonmoon Sen) প্রার্থী করেছে তৃণমূল। স্বভাবতই আসানসোল লোকসভায় হাই ভোল্টেজ লড়াই হচ্ছে। শেষ হাসি কে হাসবেন তা জানা যাবে পরের মাসের ২৩ তারিখ। তবে তার আগে জেনে নেওয়া যাক আসানসোল লোকসভা কেন্দ্র সম্পর্কে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য।

আসানসোল লোকসভা কেন্দ্র প্রথম ভোট ১৯৫৭ সালে। কংগ্রেসের মনমোহন দাস জেতেন। পরে উপনির্বাচনে জিতে আসেন অতুল্য ঘোষ। পরে ১৯৬২ সালের নির্বাচনেও জেতেন বঙ্গ কংগ্রেসের প্রবাদপ্রতীম নেতা। কিন্তু ১৯৬৭ সাল থেকে আসানসোল বামেদের শক্ত ঘাঁটি হতে শুরু করে। ১৯৭৭ সালে তাতে প্রথম ধাক্কা দেন কংগ্রেসের আনন্দ গোপাল মুখোপাধ্যায়। পরেরবার প্রবল ভাবে ফিরে আসে বামেরা। সেই তখন থেকে ২০১৪  সাল পর্যন্ত একটানা বামপন্থীদের হাতেই থেকেছে লোকসভা কেন্দ্রটি। কখনও জিতেছেন হারাধন রায়। কখনও জিতেছেন বিকাশ চৌধুরী বা বংশ গোপাল চৌধুরীরা। ১৪  সালের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের হেভিওয়েট প্রার্থী কে প্রায় ৭৪ হাজার ভোটে হারিয়ে জয়ী হন বাবুল। পরে তাঁকে নিজের মন্ত্রিসভায় জায়গা দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ন্ডবেশ্বর বারাবনী,কুলটি জামুরিয়া, রানিগঞ্জ আসানসোল উত্তর এবং  আসানসোল দক্ষিণ- এই বিধানসভা কেন্দ্র গুলি নিয়ে আসানসোলল লোকসভা কেন্দ্রটি তৈরি হয়েছে।

এবারের লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন তিনি তার বিরুদ্ধে মুনমুন ছাড়াও আছেন আরও কয়েকজন। তাঁর মধ্যে  গৌরাঙ্গ চট্টোপাধ্যায়কে ঘিরে স্বপ্ন দেখছে  বাম শিবির। তবে মূল লড়াইটা তৃণমূলের সঙ্গে বিজেপির। রাজনৈতিক লড়াই শুরুর আগে বাকযুদ্ধ চলছে জোরকদমে। নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে মুন মুন বলেছেন মা সুচিত্রা সেনের কথা ভেবে আমাকে ভোট দিন। এই বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ করেছেন তিনি। বলেছেন মুনমুন মায়ের নামে ভোট  চাইছেন। এটা দেখতে মোটেই ভালো লাগছে না। তবে নির্বাচনী প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পর সমালোচিত হয়েছেন তৃণমূলের বিরুদ্ধে একটি লিখেছিলেন তিনি। সেই গানটি কেই প্রচার এর কাছে ব্যবহার করার পরিকল্পনা করেছিল বিজেপি কিন্তু নির্বাচন কমিশন জানিয়ে দিয়েছে এই গান ব্যবহার করা যাবে না অন্য পক্ষ প্রচার চালাচ্ছে আসানসোলে কিন্তু টলিউড এবং  বলিউডের একসময়ের নায়িকা না বাংলা ও হিন্দি ছবির জনপ্রিয় গায়ক নাকি অন্য কাউকে  কাকে বেছে নেবে আসানসোল তা জানা যাবে ২৩ তারিখ।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)


পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................