সংশোধনের পর, এবার শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনেই থাকবে এসপিজি

এমাসেই, রাহুল গান্ধি, সনিয়া গান্ধি, প্রিয়াঙ্কা গান্ধি বঢ়রার এসপিজি প্রত্যাহার করে কেন্দ্র, কংগ্রেসের “তিনজনের জীবন নিয়ে খেলা”-র অভিযোগ করে

সংশোধনের পর, এবার শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনেই থাকবে এসপিজি

এসপিজি সংশোধনী অনুযায়ী, এবার থেকে প্রধানমন্ত্রী মোদি এবং তাঁর সঙ্গে পরিবারকেই নিরাপত্তা দেবে এসপিজি

নয়াদিল্লি:

প্রধানমন্ত্রী এবং তাঁর সরকারি বাসভবনে থাকা সদস্যদের জন্যই এবার থেকে বরাদ্দ হবে এসপিজি নিরাপত্তারক্ষী (SPG Security) । লোকসভায় প্রবল হট্টোগোলের মধ্যেই পেশ করা হয় এসপিজি সংশোধনী আইন, সেখানে আরও বলা হয়েছে, এবার থেকে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীদের পাঁচ বছর নিরাপত্তা দেওয়া হবে। এর আগে ব্যক্তি বিশেষ খতিয়ে দেখে এনিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হত। এসপিজি সংশোধনী আইন পেশ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, এর আগে গান্ধি পরিবারের সদস্যদের থেকেও এসপিজি (Special Protection Group) বাহিনী প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। সংশোধনীতে বলা হয়েছে, “ সুরক্ষা দেওয়া হবে, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী, তাঁর সঙ্গে থাকা পরিবারের সদস্য, সরকারি বাসভবনে তাঁর সঙ্গে থাকা পরিবারের সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর দফতরে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে পাঁচ বছর পর্যন্ত নিরাপত্তা দেওয়া হবে”।

“রাজনীতির অঙ্গ”, এসপিজি প্রত্যাহার নিয়ে বললেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধি বঢ়রা

সেখানে আরও বলা হয়েছে, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর থেকে নিরাপত্তা প্রত্যাহারের সঙ্গে সঙ্গে তাঁর পরিবারের সদস্যদের থেকেও নিরাপত্তা প্রত্যাহার করা হবে।

কার্যক্ষেত্রে এর অর্থ, ৩,৫০০ শক্তিশালী এসপিজি আধিকারিক এবার থেকে সমস্ত রাজনৈতিক নেতানেত্রীকে বাদ দিয়ে শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেই নিরাপত্তা দেবেন।

সংশোধনীতে বলা হয়েছে, “এটা দেশে ভৌগলিক-রাজনীতির বদল ঘটাবে, বিরূপ প্রতিবেশী এবং বিভিন্ন দিক থেকে দেশ যত হুমকি পাচ্ছে সেদিক থেকেও বদল ঘটাবে। এই নিরাপত্তাবাহিনী শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রীর দফতরের প্রতি দায়বদ্ধ থাকবে, প্রধানমন্ত্রী এবং তাঁর সঙ্গে থাকা পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তার জন্য এপিজি তৈরি করার উদ্দ্যেশে বিশেষ আইন তৈরি করতে হয়েছে”।

"সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা হবে না": এসপিজি সুরক্ষা প্রত্যাহারে নিয়ে বলল কেন্দ্র

ভারতের প্রধানমন্ত্রী এবং তাঁর সঙ্গে থাকা পরিবারের সদস্যদের জন্য ২৫ বছর, নিরাপত্তার দায়িত্ব থাকে এসপিজি বাহিনীর ওপর। ১৯৮৫ সালে পেশ করা এসপিজি  আইন অনুসারেই এটা করা হয়েছে, কংগ্রেসী প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধি হত্যার তিন বছর পর, এই আইন তৈরি করা হয়।

এখনও পর্যন্ত চারবার এই আইনের সংশোধন করা হয়েছে।

চলতি মাসেই, সনিয়া গান্ধি, রাহুল গান্ধি এবং প্রিয়াঙ্কা গান্ধি বঢ়রার থেকে এসপিজি বাহিনী প্রত্যাহার করে কেন্দ্রীয় সরকার। সরকারি সূত্র মারফৎ জানা গিয়েছে, নিরাপত্তা নিয়ে  পর্যালোচনা এবং একাধিক উদাহরণ তুল ধরে, যে, “এসপিজির সঙ্গে সহযোগিতা এবং তাঁদের মসৃণভাবে কাজে বাধা” দিয়েছেন গান্ধি পরিবারের সদস্যরা, পদক্ষেপ করা হয়েছে।

এসপিজি নিরাপত্তা প্রত্যাহার করে সনিয়া গান্ধির জন্য বরাদ্দ ১০ বছরের পুরনো গাড়ি

এই সিদ্ধান্তের পরেই ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে, কেন্দ্রের বিরুদ্ধে “তিনজনের জীবন নিয়ে খেলা”র অভিযোগ তোলেন কংগ্রেস নেতারা।

গান্ধি পরিবারের দুই সদস্য খুন হয়েছে, এবং প্রধানমন্ত্রী এবং জনাকয়েক ছাড়া, তাঁরা সবচেয়ে বেশী সুরক্ষিত। এবার থেকে তাঁর জেড প্লাস ক্যাটাগরির নিরাপত্তা পাবেন।

“একাগ্রতা এবং বিচক্ষণতা” দিয়ে সুরক্ষার জন্য এসপিজির প্রধান অরুণ সিনহাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সনিয়া গান্ধি। তিনি বলেন, গান্ধি পরিবার “আশ্বাস এবং ভরসা” পেয়েছেন এসপিজি বাহিনীর নিরাপত্তার ঘেরাটোপে, বাহিনীকে অসাধারণ বলে উল্লেখ করেছেন সনিয়া গান্ধি।

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com