শেষ মুহূর্তে বাতিল করা হল "চা চক্রে দিলীপ দা", ক্ষুব্ধ BJP

Cha Chakrey Dilip Da: অনেকেই বলছেন, তৃণমূলের "দিদি কে বলো"-র পাল্টা দিতেই এই "চা চক্রে দিলীপ দা" আয়োজন করেছে BJP।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
শেষ মুহূর্তে বাতিল করা হল

"Cha Chakrey Dilip Da" যেন তৃণমূল কংগ্রেসের "দিদিকে বলো"-র উত্তর বিজেপির।


কলকাতা: 

রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে তত যেন একে অপরকে টেক্কা দেওয়ার লড়াইয়ে ছুটছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিরোধী দল বিজেপি। দুই দলেরই এখন লক্ষ্য জনসংযোগ বাড়ানো। তৃণমূল কংগ্রেস চালু করেছে "দিদিকে বলো" তো তারই পাল্টা যেন বিজেপির “চা চক্রে দিলীপ দা”। মঙ্গলবার কলকাতা থেকে ১২০ কিলোমিটার দূরে কৃষ্ণনগরে “চা চক্রে দিলীপ দা” (Cha Chakrey Dilip Da) করার পরিকল্পনা করা হয়েছিল রাজ্য বিজেপির তরফে। চায়ের সঙ্গে স্থানীয়দের থেকে তাঁদের সমস্যার কথা শুনবেন বিজেপির (BJP) রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ(Dilip Ghosh), এই ছিল আয়োজন।  তবে একটি রাজ্য সরকারি সংস্থা বিজেপিকে জানায় ওই অনুষ্ঠানের জন্যে নির্ধারিত স্থানটির বুকিং বাতিল করা হয়েছে। নদিয়া জেলার কৃষ্ণনগর পুরসভার কার্যনির্বাহী আধিকারিক সোমবার একটি চিঠিতে বলেন যে "আপনারা অবগত হয়েছেন যে জরুরি সরকারি সভার কারণে ৩/৯/১৯ তারিখে দ্বিজেন্দ্র মঞ্চ সরবরাহ করা সম্ভব নয় যা আপনি আগে বুক করেছিলেন। সুতরাং ওই বুকিং বাতিল করা হল। "

1p81f5e8

রাজ্য সরকারি সংস্থা বিজেপিকে ঠিক একদিন আগে জানায় যে একটি অনুষ্ঠানের জন্য বুকিং বাতিল করা হয়েছে।

চিঠিটি ঘূর্ণির রাজু শেখ, মাজিদ লেন, কৃষ্ণনগর, এই ঠিকানায় পাঠানো হয়।

যদিও বিজেপি পুরসভার চিঠির কথা উল্লেখ করে জানিয়েছে, "চা চক্র" নির্ধারিত সময় দুপুর সাড়ে বারোটাতেই কৃষ্ণনগরে অনুষ্ঠিত হবে। তবে কোথায় হবে সেটি তা মিডিয়া হোয়াটস অ্যাপে জানিয়ে দেওয়ার হবে বলে বলেন এক বিজেপি কর্মী।

সকালে রাস্তার দোকানে চা খেতে গিয়ে তৃণমূলের হাতে হেনস্থার অভিযোগ দিলীপ ঘোষের

তবে রাজনৈতিক মহল বলছে তৃণমূলের "দিদি কে বলো" জনসংযোগ কর্মসূচির পাল্টা বিজেপির "চা চক্রে দিলীপ দা" । এটিও একটি জনসংযোগ কর্মসূচি যেখানে দিলীপ ঘোষ বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে স্থানীয় মানুষদের চায়ের আড্ডায় অংশ নেবেন। সেখানে দিলীপ ঘোষকে 'দাদা' হিসাবে মনে করে নিজেদের অভাব-অভিযোগ তুলে ধরতে পারবেন স্থানীয় মানুষজন। দিলীপ ঘোষ ওই সব সমস্যা শুনবেন এবং চেষ্টা করবেন তার সমাধান করতে, জানিয়েছে বিজেপি।

এই চা চক্রের প্রোমোতে রবীন্দ্রসঙ্গীত ব্যবহার করা হয়েছে, যাতে বাঙালিরা বিজেপির এই কর্মসূচির সঙ্গে একাত্ম হতে পারে। পাশাপাশি ২০২১-এর আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে দিলীপ ঘোষকেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসাবে তুলে ধরতে চাইছে বিজেপি।

৮ জন তৃণমূল বিধায়ক আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন,মন্তব্য দিলীপ ঘোষের

সোমবার, বিজেপির ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংয়ের উপর হামলার কথা বলতে গিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, "পুলিশ বিজেপি নেতাদের সঙ্গে এত খারাপ ব্যবহার করছে, নির্যাতন করছে যে আমিও রাস্তার পাশে এক কাপ চা পানের জন্যেও দাঁড়াতে পারি না।" গত শনিবার, সকাল ৭ টায় কলকাতার লেক টাউনে একটি  'চা চক্র' বা চায়ের আড্ডায় যাওয়ার সময় আক্রান্ত হন খরাজপুরের বিজেপি সাংসদ তথা রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তৃণমূল সমর্থকরা দিলীপ ঘোষকে দেখে "ফিরে যান" স্লোগান দিতে থাকেন, সেই সময় পাল্টা বিজেপি সমর্থকরাও "তৃণমূল হঠাও, দেশ বাঁচাও" বলে চিৎকার শুরু করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে নামতে হয় পুলিশকে।

রবিবারও দিলীপ ঘোষ যাদবপুরে একটি 'চা চক্র' আয়োজন করেন। তবে সেখানে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটলেও কৃষ্ণনগরে চায়ের আড্ডা শুরুর আগেই ওই কর্মসূচি ঘিরে উত্তেজনা দানা বেঁধেছে।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................