This Article is From Feb 01, 2020

IndiGo'র থেকে ক্ষমা-সহ ২৫ লক্ষ টাকার ক্ষতিপূরণ দাবি কুণাল কামরার

প্রকাশ্যে ক্ষমাপ্রার্থনা ও ক্ষতিপূরণ দাবি করে ইন্ডিগোকে (IndiGo) আইনি নোটিশ পাঠালেন কুণাল কামরা (Kunal Kamra )। বুধবার অন বোর্ড জাতীয় এক বৈদ্যুতিন মাধ্যমের সাংবাদিককে হেনস্থা করে 'নিষিদ্ধ' হয়েছেন ওই কৌতুকাভিনেতা।

IndiGo'র থেকে ক্ষমা-সহ ২৫ লক্ষ টাকার ক্ষতিপূরণ দাবি কুণাল কামরার

প্রকাশ্যে ক্ষমাপ্রার্থনা ও ক্ষতিপূরণ দাবি করে ইন্ডিগোকে আইনি নোটিশ পাঠালেন কুণাল কামরা।

হাইলাইটস

  • ইন্ডিগোকে আইনি নোটিশ পাঠালেন কুণাল কামরা
  • ওই বিমান সংস্থার থেকে ক্ষমা-সহ ২৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করা হয়েছে
  • ছয় মাসের জন্য ওই কৌতুক অভিনেতাকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ইন্ডিগো
মুম্বই/ নয়াদিল্লি:

প্রকাশ্যে ক্ষমাপ্রার্থনা ও ক্ষতিপূরণ দাবি করে ইন্ডিগোকে (IndiGo) আইনি নোটিশ পাঠালেন কুণাল কামরা (Kunal Kamra )। বুধবার অন বোর্ড জাতীয় এক বৈদ্যুতিন মাধ্যমের সাংবাদিককে হেনস্থা করে 'নিষিদ্ধ' হয়েছেন ওই কৌতুকাভিনেতা। ইন্ডিগো-সহ চারটি বিমান সংস্থা তাঁকে আগামী ছ'মাসের জন্য কালো তালিকাভুক্ত করেছে। যে তালিকায় সম্ভবত নাম লেখাতে চলেছে এয়ার এশিয়া ও ভিস্তারা। এবার যে বিমানে ওই ঘটনা ঘটেছে, সেই ইন্ডিগো বিমান সংস্থাকে আইনি নোটিশ (Legal Notice) পাঠিয়ে কুণালের আইনজীবী বলেছেন, "আমার মক্কেলকে মানসিক বেদনা ও অস্থিরতা দেওয়ার জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে ইন্ডিগোকে। পাশাপাশি এই সিদ্ধান্তের জেরে আমার মক্কেলের পূর্ব নির্ধারিত অনুষ্ঠান বাতিল হয়েছে। ফলে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন তিনি। তাই ক্ষতিপূরণ স্বরূপ আপনাদের ২৫ লক্ষ টাকা দিতে হবে।" বুধবার ইন্ডিগোর বিমানে অনবোর্ড অবস্থায় সাংবাদিক অর্ণব গোস্বামীকে হেনস্থা করার অভিযোগ উঠেছে ওই কৌতুক অভিনেতার বিরুদ্ধে। অভিযোগ, অন বোর্ড অভব্য আচরণ করে বিমান যাত্রা আইনের ধারা লঙ্ঘন করেছিলেন তিনি। এমন অভিযোগ তুলে ছ' মাসের জন্য কুণাল কামরার ইন্ডিগো বিমানে যাতায়াতের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে ওই বিমান সংস্থা। সেই পথে হেঁটেছে এয়ার ইন্ডিয়া, গো এয়ার এবং স্পাইস জেটও। ওই চারটি বিমান সংস্থার সিদ্ধান্ত টুইট করে প্রকাশ করেছেন অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রী হরদীপ পুরি। সেই সিদ্ধান্তেরর বিরোধিতা করে নিজের বিমান সংস্থাকে মেল পাঠান ইন্ডিগো পাইলট রোহিত মাতেতি। ঘটনার দিন ওই বিমানেই অন ককপিট ছিলেন সেই পাইলট। .

Kunal Kamra-কে "নিষিদ্ধ ঘোষণা"র পিছনে যুক্তি দিল ডিজিসিএ  

দেখুন কী লিখেছিল ইন্ডিগো:

মেলে ওই পাইলট  লেখেন, "আমার বিমান সংস্থা একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সম্পূর্ণ সোশাল মিডিয়া পোস্টের ওপর ভিত্তি করে। এটা দেখে আমি খুব মর্মাহত। সেক্ষেত্রে পাইলট-ইন-কমান্ড (Captain) হিসেবে আমার সঙ্গে আলোচনা করা হয়নি। আমার ন'বছরের পেশায় এই ঘটনা অভাবনীয়।" এমনকি কুণাল কামরার বিরুদ্ধে নেওয়া সিদ্ধান্ত অসামরিক বিমান আইন মেনে হয়নি বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি। পাইলট বলেন, "ওই যাত্রীর অন বোর্ড আচরণ লেবেল ১ ধারাকে উল্লঙ্ঘন করেনি। তাই আমি  মনে করিনা এ বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করা যেতে পারে। অনবোর্ড কোনও যাত্রীর আচরণ অত্যন্ত অসহনশীল হলেই পাইলট সেই ঘটনায় অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু এক্ষেত্রে সেই ঘটনা ঘটেনি।" ইন্ডিগোর থেকে রীতিমতো কৈফিয়ত চেয়ে ওই ক্যাপ্টেনের প্রশ্ন, "হাই প্রোফাইল কেস বলেই কী বিশেষ সেই যাত্রীর ওপর নিষেধাজ্ঞা চাপানোর ধারা অন্যরকম? এটা কি অনিশ্চয়তার পরিবেশ তৈরি করবে না?" যদিও পিটিআই ইন্ডিগোর বিবৃতি উদ্ধৃত করে বলেছে, "যুক্তিপূর্ণ অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা ওই পদক্ষেপ নিয়েছি। এই ঘটনার প্রেক্ষিতে অভ্যন্তরীণ কমিটি তদন্ত করছে।"

কাপুরুষ": কৌতুক অভিনেতা কুণাল কামরাকে নিষিদ্ধ ঘোষণায় বিমান সংস্থাকে আক্রমণ করলেন Rahul Gandhi

সে ঘটনার পর  ইন্ডিগোর পাইলট ক্যাপ্টেন রোহিত মাতেতিকে স্যালুট জানিয়েছেন কুণাল কামরা (Kunal Kamra)। ক্যাপ্টেনের ভূয়সী প্রশংসা করে বৃহস্পতিবার কুণাল কামরা বলেন, "ক্যাপ্টেন রোহিত মাতেতিকে আমার স্যালুট।" 

ec4fnt5o

 সূত্রের খবর একজন যাত্রীকে সর্বাধিক ৩০ দিনের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করা যেতে পারে। ডিজিসিএ জানিয়েছে, অভিযোগের ভিত্তিতে একটি অভ্যন্তরীণ কমিটি গড়া হয়েছে। গোটা ঘটনার তদন্ত করতে সেই কমিটি ৩০ দিন সময় পাবে। তদন্ত রিপোর্টের ভিত্তিতে অসামরিক বিমান মন্ত্রকের আপিলেট বডি বা আদালতে দরবার করতে পারেন সেই যাত্রী। 

(PTI থেকে সংগৃহীত)