Coronavirus: এবার চিনের মারণ ভাইরাসের সন্ধান মিলল এক ভারতীয়র শরীরে

চিন থেকে ছড়াতে শুরু করা প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন প্রথম ভারতীয়। সৌদি আরবের হাসপাতালে কর্মরত এক নার্স আক্রান্ত হয়েছেন এই ভাইরাসে।

Coronavirus: এবার চিনের মারণ ভাইরাসের সন্ধান মিলল এক ভারতীয়র শরীরে

সৌদি আরবের হাসপাতালে কর্মরত এক নার্স আক্রান্ত হয়েছেন এই ভাইরাসে।

হাইলাইটস

  • করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন প্রথম ভারতীয়
  • সৌদি আরবের হাসপাতালে কর্মরত এক ভারতীয় নার্সের শরীরে মিলেছে ভাইরাস
  • করোনা ভাইরাসটির নাম 2019-nCoV
নয়াদিল্লি:

চিন (China থেকে ছড়াতে শুরু করা প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে (Coronavirus) আক্রান্ত হলেন প্রথম ভারতীয়। সৌদি আরবের (Saudi Arabia) হাসপাতালে কর্মরত এক নার্স আক্রান্ত হয়েছেন এই ভাইরাসে। এখনও পর্যন্ত ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে এই ভাইরাসের প্রকোপে। ভারতের বিদেশ প্রতিমন্ত্রী ভি মুরলিধরন জানিয়েছেন, প্রায় ১০০ জন ভারতীয় নার্সকে পরীক্ষা করা হলে একজন ছাড়া আর কারও শরীরে ওই ভাইরাস পাওয়া যায়নি। তিনি টুইট করে জানান, আসির জাতীয় হাসপাতালে ওই নার্সের চিকিৎসা শুরু হয়েছে। এবং তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠছেন। প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ভারতীয় নার্সদের আলাদা করে রাখা হয়েছে ওই ভাইরাসের প্রকোপ থেকে বাঁচাতে। 

কতটা ভয়ঙ্কর চিনের নতুন ভাইরাস, জেনে নিন ১০ তথ্য

কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্করকে চিঠি লিখে সৌদি আরবের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে আক্রান্ত নার্সের সুচিকিৎসার বিষয়টি নিশ্চিত করতে অনুরোধ জানান। তিনি চিঠিতে লেখেন, ‘‘সৌদি আরবের আজির আবা আল হায়াত হাসপাতালে নার্সদের মধ্যে করোনা ছড়িয়ে পড়েছে। গুরুত্ব সহকারে বিচার করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।''

ভারত এই অসুখের বিষয়ে উদ্বিগ্ন ও সতর্ক। যদিও এখনও পর্যন্ত ভারতে এই অসুখে কারও আক্রান্ত হওয়ার খবর মেলেনি। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত কলকাতা, মুম্বই, দিল্লি, চেন্নাই সহ সাতটি বিমানবন্দরে ৪৩টি উড়ান ও ৯,০০০ জন যাত্রীকে পরীক্ষা করে দেখা হবে।

উহান থেকে আসা যাত্রীদের ‘স্ক্রিনিং' বা পরীক্ষা করা হচ্ছে আমেরিকা, ব্রিটেন, জাপান, তাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া প্রভৃতি দেশে। রাশিয়াও পরিচ্ছন্নতা ও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রমে নজর দিয়েছে।

করোনা ভাইরাসটির নাম 2019-nCoV। সার্স ভাইরাসের মতোই ক্ষমতা এই ভাইরাসের। প্রসঙ্গত, ২০০২-০৩ সালে সার্স ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চিনে ৩৪৯ জন ও হংকংয়ের ২৯৯ জন মারা যান। আক্রান্তদের জ্বর, কাশি, শ্বাসকষ্ট, গলা ফুলে যাওয়া কিংবা সর্দির মতো উপসর্গ দেখা দিচ্ছে সার্স আক্রান্তদের মতোই। 

দেখুন করোনা ভাইরাস সম্পর্কে বিশেষজ্ঞের মতামত:
More News