কর্তারপুরে উদ্বোধনের দিনের তীর্থযাত্রীদের ফি দিতে হবে, অবস্থান বদল পাকিস্তানের

Kartarpur corridor: ১ নভেম্বর পাক প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেন, তীর্থযাত্রীদের জানান কোনও ফি দিতে হবে না, অবস্থান বদলে, তারা জানাল ২০ ডলার ফি দিতে হবে

কর্তারপুরে উদ্বোধনের দিনের তীর্থযাত্রীদের ফি দিতে হবে, অবস্থান বদল পাকিস্তানের

শনিবার কর্তারপুর করিডরের উদ্বোন, শিখ তীর্থযাত্রীদের ওপর ২০ ডলার ফি ধার্য করেছে পাকিস্তান

নয়াদিল্লি:

কর্তারপুর করিডরের (Kartarpur Corridor) শনিবারের তীর্থযাত্রীদের ২০ ডলার করে ফি দিতে হবে, শুক্রবার এমনটাই জানিয়ে দিল পাকিস্তান। শনিবার কর্তারপুর করিডরের উদ্বোধন, সেখানে যাওয়া সেদিনের তীর্থযাত্রীদেরও ফি দিতে হবে। ১ নভেম্বর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান (Imran Khan) ঘোষণা করেন, উদ্বোধনের দিন তীর্থযাত্রীদের কোনও ফি দিতে হবে না, ওই দিন গুরু নানকদেবের ৫৫০ তম জন্ম বার্ষিকি। শনিবার সকালে কর্তারপুর করিডরের ভারতের দিকের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, এবং পাকিস্তানের দিকের উদ্বোধন করেন ইমরান খান। শিখ তীর্থযাত্রীদের ওপর পাকিস্তানের ধার্য করা ২০ ডলার ফি নিয়ে আপত্তি জানায় ভারত। তা নিয়ে তীর্থযাত্রীদের অনলাইন রেজিস্ট্রেশন শুরুও পিছিয়ে যায়।

নভ্যোজৎ সিধুকে কর্তারপুর করিডর দিয়ে পাকিস্তানে যাওয়ার অনুমতি: সূত্র

পঞ্জাবের ডেরা বাবা নানক মন্দির এবং কর্তারপুরের দরবার সাহিবকে যোগ করেছে কর্তারপুর করিডর। আন্তর্জাতিক সীমান্ত থেকে ৪ কিলোমিটার দূরত্বে পঞ্জাব প্রদেশের নরওয়াল জেলায় রয়েছে এই মন্দির। এখানেই শিখ ধর্মের প্রতিষ্ঠাতা গুরু নানক দেব তাঁরজ জীবনের শেষ ১৮ বছর কাটিয়েছিলেন বলে মনে করা হয়।

প্রথম দফার শিখ তীর্থযাত্রীদের মধ্যে রয়েছেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং, অভিনেতা রাজনীতিবিদ সানি দেওল, কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি এবং হরসিমরত কৌর বাদল। গুরুদুয়ারা দরবার সাহিবে যাওয়ার জন্য বৃহস্পতিবার বিদেশমন্ত্রকর রাজনৈতিক ছাড়পত্র দিয়েছে কংগ্রেস বিধায়ক নভোজৎ সিং সিধুকে।   

গুরু নানকের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ভারত থেকে পাকিস্তানে যাচ্ছেন ১,১০০ শিখ: রিপোর্ট

শনিবার কর্তারপুরে যাচ্ছেন ভারতীয় তীর্থযাত্রীদের ৫৫০ জন, বৃহস্পতিবার বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে, তাদের অবস্থান পাকিস্তান নিশ্চিত করেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

বুলবুল নিয়ে আপডেট জানতে ক্লিক করুন:

শুক্রবার থেকে সোমবার, এই চারদিনে ডেরা বাবা নানাকে প্রায় ৩০,০০০ তীর্থযাত্রীর সমাগম হতে পারে। তাঁদের ৫৪৪টি ইউরোপিয়ান কেয়াদার তাঁবুতে রাখা হবে, এবং ১০০টি স্যুইস কটেজ এবং ২০টি দরবারের ধাঁচের তাঁবু রয়েছে ৩০ একর জায়গায়।

More News