Jharkhand Election: মহারাষ্ট্রের পর ঝাড়খণ্ডেও জোট নিয়ে বেকায়দায় বিজেপি

Jharkhand Election: এই পরিস্থিতিতে বিজেপি তাদের দ্বিতীয় প্রার্থী তালিকা প্রকাশ স্থগিত রেখেছে। এর আগে রবিবার তারা প্রথম প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছিল।

জোট গড়া নিয়ে এবার ঝাড়খণ্ডেও (Jharkhand) বেকায়দায় বিজেপি।

নয়াদিল্লি:

মহারাষ্ট্রে তাদের দীর্ঘদিনের সঙ্গী শিবসেনা সরকার গড়তে রাজি না হওয়ার পর এবার ঝাড়খণ্ডেও (Jharkhand) বেকায়দায় বিজেপি (BJP)। আগামী ৩০ নভেম্বর পাঁচ দফায় বিধানসভা নির্বাচন ঝাড়খণ্ডে। বিজেপির জোটসঙ্গী এজেএসইউ এবং এলজেপি তাদের উপরে চাপ বাড়াচ্ছে। চিরাগ পাসওয়ানের লোক জনশক্তি পার্টি বা এলজেপি ২০১৪ সালে মাত্র একটি আসনেই প্রার্থী দিয়েছিল এবং তাতে হেরে গিয়েছিল। কিন্তু এবার তারা একাই ৫০টি আসনে প্রার্থী দিতে চায়। অথচ প্রাথমিক ভাবে বিজেপিকে তারা জানিয়েছিল তারা কেবল ছ'টি আসনে প্রার্থী দিতে চায়। সেই ছ'টি কেন্দ্র হল জারমুন্ডি, নালা, হুসেইনাবাদ, বারকাগাঁও, লাতেহার ও পাঙ্কি।

চিরাগ পাসওয়ান টুইট করে জানান, ‘‘লোক জনশক্তি পার্টি সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা একাই ৫০টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। আজ সন্ধ্যায় দলের প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশিত হবে।''

মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির সুপারিশ করল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা

এদিকে অল ঝাড়খণ্ড স্টুডেন্টস ইউনিয়ন তথা এজেএসইউ বিজেপিকে আরও বড় সমস্যায় ফেলতে পারে। কারণ তাদের সমর্থন আরও বেশি। ২০১৪ সালে আটটি আসনে প্রার্থী দিয়ে পাঁচটিতেই জয়লাভ করেছিল তারা। এলজেপি বা জনতা দল ইউনাইটেডের থেকে তারা বেশি সফল হয়েছিল।

এজিএসইউ চক্রধরপুরে তাদের প্রার্থী দিয়েছে। এখান থেকেই ভোটে দাঁড়িয়েছেন বিজেপির রাজ্য মুখ্য লক্ষ্ণণ গিলুয়া। এই পরিস্থিতিতে বোঝা যাচ্ছে রাজ্যের ৮১টি আসনের জন্য নতুন করে সমঝোতায় বসতে হবে দুই দলকে। ২০১৪ সালে তারা একসঙ্গে ভোটে লড়েছিল।

Guru Nanak Jayanti: দেশবাসীকে গুরুপূর্ণিমার শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী মোদি

এজেএসইউ ১৯টি আসনে প্রার্থী দিতে চাইলেও বিজেপি তাদের ন'টির বেশি আসন দিতে চায় না। সূত্রানুসারে তেমনটাই জানা যাচ্ছে। এজিএসইউ ১২ জম প্রার্থীর নাম এরই মধ্যে ঘোষণা করে দিয়েছে। এর মধ্যে চারটিতে বিজেপিও প্রার্থী দিয়েছে। সেই কেন্দ্রগুলি হল সিমারিয়া, সিন্দ্রি, মান্ডু ও চক্রধরপুর।

এই পরিস্থিতিতে বিজেপি তাদের দ্বিতীয় প্রার্থী তালিকা প্রকাশ স্থগিত রেখেছে। এর আগে রবিবার তারা তাদের প্রথম প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছিল। সেই তালিকায় ৫২ জনের নাম ছিল।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিজেপির রঘুবর দাস জামসেদপুর থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

গত বারের নির্বাচনে বিজেপি ৭২টি আসনে প্রার্থী দিয়েছিল। এজেএসইউ আটটি ও এলজেপি একটি আসনে প্রার্থী দিয়েছিল। বিজেপি জিতেছিল ৩৭টি আসনে। এজেএসইউ পেয়েছিল পাঁচটি আসন। এলজেপি কোনও আসন পায়নি।

এদিকে কংগ্রেস ৩১টি আসনে প্রার্থী দিচ্ছে। তাদের জোটসঙ্গী ঝাড়খণ্ড মুক্তিমোর্চা প্রার্থী দিচ্ছে ৪৩টি আসনে। বাকি কেন্দ্রে লালুপ্রসাদ যাদবের দল রাষ্ট্রীয় জনতা দল প্রার্থী দেবে।

হাইলাইটস

  • ৫০টি আসনে প্রার্থী দিতে চায় লোক জনশক্তি পার্টি
  • এজেএসইউ ১৯টি আসনে প্রার্থী দিতে চাইলেও বিজেপি রাজি নয়
  • সূত্রানুসারে জোটসঙ্গীদের সঙ্গে আসন বণ্টন নিয়ে আলোচনা চালাচ্ছে বিজেপি
More News