পঠনকক্ষে জামিয়ার পড়ুয়াদের উপরে পুলিশি হামলার ভিডিও প্রকাশ করল প্রতিবাদীরা

ভিডিওয় দেখা গিয়েছে পুলিশদের পরনে ‘রায়ট গিয়ার’। বিশেষ ভাবে সজ্জিত পুলিশরা এসে লাঠি দিয়ে মারতে থাকে পড়ুয়াদের। অনেক পড়ুয়াকে পালাতে দেখা যায়।

শনিবার প্রকাশ্যে এল ওই সিসিটিভি ফুটেজ।

হাইলাইটস

  • জামিয়ার পড়ুয়াদের উপরে পুলিশি হামলার ভিডিও প্রকাশ্যে এল
  • ৪৯ সেকেন্ডের ক্লিপে পড়ুয়াদের লাঠি দিয়ে মারতে দেখা যাচ্ছে পুলিশকে
  • ভিডিওটি প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন পড়ুয়াদের একটি দল
নয়াদিল্লি:

দিল্লির জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (Jamia Millia University) পড়ুয়াদের উপরে পুলিশের নির্যাতনের এক ভিডিও প্রকাশ্যে এল। সেই ভিডিওয় (Video Of Cops Attacking Students) দেখা যাচ্ছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের পঠনকক্ষে পড়ুয়াদের উপরে হামলা চালাচ্ছে পুলিশরা। ওইদিন সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদ (Protest Against CAA)করার সময় পড়ুয়াদের উপরে চড়াও হওয়ার অভিযোগ উঠেছিল পুলিশের উপরে। ৪৯ সেকেন্ডের ক্লিপে দেখা যাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরনো পঠন কক্ষে বসে রয়েছেন পড়ুয়ারা। অকস্মাৎ সেখানে প্রবেশ করে পুলিশরা। পুলিশকে দেখেই এক ব্যক্তি একটা ডেস্কের আড়ালে লুকোতে চেষ্টা করে। আরও একজনকে পালাতে দেখা যায়। পুলিশকে লাঠি দিয়ে পড়ুয়াদের মারতে দেখা যাচ্ছে ভিডিওয়। ভিডিওটি প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন পড়ুয়াদের একটি দল ‘জামিয়া কো-অর্ডিনেশন কমিটি।' টুইটারে ভিডিওটি প্রকাশ করে ওই কমিটি।

ভিডিওয় দেখা গিয়েছে পুলিশদের পরনে ‘রায়ট গিয়ার'। বিশেষ ভাবে সজ্জিত পুলিশরা এসে লাঠি দিয়ে মারতে থাকে পড়ুয়াদের। অনেক পড়ুয়াকে পালাতে দেখা যায়।

গত ১৫ ডিসেম্বর জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়ারা একটি মিছিল করেন সিএএ-র বিরোধিতা করে। এরপরই সেখানে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পড়ুয়াদের উপরে চড়াও হয় পুলিশ। পুলিশ লাঠিচার্জ করার পাশাপাশি কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়ে আন্দোলন প্রতিহত করতে চেষ্টা করে। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতরে প্রবেশ করে প্রায় ১০০ জনকে আটক করে তারা।

ঘটনার পরে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে সরব হন বহু মানুষ। পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতেই তাদের ওই পদক্ষেপ করতে হয়েছিল।

জামিয়ার পড়ুয়াদের অনেকেই ওই হিংসার ঘটনা থেকে নিজেদের সরিয়ে নিয়েছিল। পরে পুলিশ আড়ালে জানিয়েছিল স্থানীয় দুষ্কৃতীরাই অশান্তি তৈরি করেছিল। পরে পড়ুয়াদের তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়, তারা আবারও প্রতিবাদ করবে। তবে আন্দোলন হবে শান্তিপূর্ণ ভাবেই।