সিঙ্গুর সফর নিয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে রাজ্যের সংঘাত চরমে

সোমবার শান্তিনিকেতনে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে যোগ দিয়ে ফেরার পথে সিঙ্গুরে গিয়েছিলেন রাজ্যপাল।

সিঙ্গুর সফর নিয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে রাজ্যের সংঘাত চরমে

জুলাইয়ের শেষে রাজ্যের রাজ্যপাল হ‌ন জগদীপ ধনখড়।

রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় (Jagdeep Dhankhar) ও রাজ্যের শাসক দলের (TMC) মধ্যে সংঘাত আরও গভীর হল রাজ্যপালের ঝটিকা সিঙ্গুর সফরকে (Singur visit) ঘিরে। বৃহস্পতিবার রাজ্যপাল প্রশ্ন তুললেন, তাঁর সিঙ্গুর যাওয়া নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস এত বিচলিত হচ্ছে কেন। তিনি বলেন, একজন রাজ্যপাল হিসেবে তিনি সিঙ্গুর ও নন্দীগ্রামে যেতেই পারেন সেখানকার সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করতে। প্রসঙ্গত, ৩৪ বাম শাসনের পরে রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের আগমনের পিছনে ছিল তৎকালীন বিরোধী নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সিঙ্গুর ও ন‌ন্দীগ্রাম আন্দোলন। এদিন সংবাদমাধ্যমকে জগদীপ ধনখড় জানান, ‘‘আমি সিঙ্গুরে গিয়েছিলাম জেলা শাসককে জানিয়ে। একই ভাবে বর্ধমান ও দুর্গাপুরেও যাই।''

সিঙ্গুরে যাওয়া নিয়ে তিনি বলেন, ‘‘কোনও কিছু গোপন করার চেষ্টা করা হলে সে ব্যাপারে মানুষের আগ্রহ বেড়ে যায়। সুতরাং কেউ কিছু লুকোতে চাইলে আমিও সেটা দেখতে আগ্রহী হই।''

রাজ্যপাল জানান, তিনি সোমবার সিঙ্গুর সাব ডিভিশনের বিডিও অফিসে যেতে গেলে তাঁকে বাধা দেন কোনও রাজনৈতিক দলের (শাসক তৃণমূল কংগ্রেস) মহিলা কর্মীরা। তিনি দাবি করেন, ওই মহিলা কর্মীদের পাঠানো হয়েছিল তাঁকে বিডিও অফিসে যেতে বাধা দেওয়ার জন্য।

সোমবার শান্তিনিকেতনে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে যোগ দিয়ে ফেরার পথে সিঙ্গুরে গিয়েছিলেন রাজ্যপাল। তার আগে শান্তিনিকেতনে যাওয়ার পথে বর্ধমান ও দুর্গাপুরে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে মানুষের সঙ্গে কথা বলতে দেখা যায় তাঁকে।

তৃণমূ‌ল কংগ্রেস রাজ্যপালের এই সিঙ্গুর যাত্রার সমালোচনা করে বিস্ময় প্রকাশ করে জান‌িয়েছে, উনি হয়তো নিজের ‘‘সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা'' ভুলে যাচ্ছেন।

জুলাইয়ের শেষে রাজ্যের রাজ্যপাল হ‌ন জগদীপ ধনখড়। তারপর থেকেই রাজ্য সরকারের সঙ্গে বারে বারে বিতর্কে জড়িয়েছেন তিনি। ১৯ সেপ্টেম্বর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে ঘেরাও হলে তাঁকে উদ্ধার করতে ছুটে যান রাজ্যপাল। পরে দুর্গাপুজো কার্নিভা‌লে তাঁকে অসম্মানিত হতে হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিন‌ি। ক'দিন আগেও রাস উৎসবে যোগ দিতে শান্তিপুরে যাওয়ার জন্য সরকারের কাছে হেলিকপ্টার না মেলায় অসন্তুষ্ট হয়েছিলেন রাজ্যপাল।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
More News