This Article is From Oct 18, 2019

জেলে ৪ কেজি ওজন কমেছে, চিদাম্বরমের জামিনের আবেদন কপিল সিবালের

সিবিআই আদালতে জানায়, জামিন পেলে দেশ থেকে পালাতে পারেন পি চিদাম্বরম। এবং অন্য সাক্ষীদেরও প্রভাবিত করতে পারেন।

গত ২১ আগস্ট নাটকীয় ভাবে চিদাম্বরমকে তাঁর বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে সিবিআই।

নয়াদিল্লি:

প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরম (P Chidambaram), তাঁর ছেলে কার্তি চিদাম্বরম এবং সিনিয়র সরকারি কর্মীদের বিরুদ্ধে আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায় (INX Media corruption case) অভিযোগ আনা হয়েছে ঘুষের বিনিময়ে করদাতাদের প্রবল ক্ষতির সম্মুখীন করার ব্যাপারে। শুক্রবার সিবিআই একথা জানিয়েছে। চিদাম্বরমের জামিনের আবেদনের উত্তরে সিবিআই আদালতে জানায়, ৭৪ বছরের প্রবীণ কংগ্রেস নেতা দেশ থেকে পালাতে পারেন এবং অন্য সাক্ষীদেরও প্রভাবিত করতে পারেন। সিবিআই জানিয়েছে, চার্জশিট ফাইল করা হয়েছে বিশেষ আদালতে। সিবিআইয়ের প্রতিনিধি সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা জানিয়েছেন, ‘‘এক সাক্ষী বিবৃতি দিয়েছেন, তিনি প্রভাবিত হয়েছেন। আমরা তাঁর পরিচয় সামনে আনতে চাই না। তাঁর নাম বদ্ধ খামে সিবিআই আদালতে জমা দেওয়া হয়েছে।''

তিনি আরও বলেন, দেশের প্রয়োজন দুর্নীতির ক্ষেত্রে ‘শূন্য সহন নীতি' অবলম্বন করা।

জিয়াগঞ্জে খুন হওয়া শিক্ষকের আত্মীয়দের সমস্ত আইনি সহায়তা দেবে সরকার: মুখ্যমন্ত্রী মমতা

সিবিআইয়ের বিরোধিতা করে চিদাম্বরমের আইনজীবী ও তাঁর দলীয় সতীর্থ কপিল সিবাল বলেন, ‘‘পি চিদাম্বরমের পাসপোর্ট আটক করা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিশ জারি করা হয়েছে। এবং তিনি ভ্রমণের জন্য কোনও আবেদনও করেননি। তাহলে বিমানে দেশ ছাড়ার ঝুঁকির কথা আসছে কেন?''

চিদামন্বরম জেল হেফাজতে থাকার পর তাঁর ওজন কমেছে ৪ কেজি। পাশাপাশি শীতের আগমন ও ডেঙ্গুর আতঙ্কের প্রসঙ্গ তুলে কপিল সিবাল বলেন, তাঁকে জেলে রাখার একমাত্র কারণ তাঁকে ছোট করা। তিনি বলেন, ‘‘যদি সাক্ষী প্রভাবিক হয়েই থাকেন, তাহলে সরকারের দায়িত্ব তাঁকে সুরক্ষা দেওয়া... উনি কাউকেই প্রভাবিত করেননি।''

অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনা করায় বিরোধীদের তোপের মুখে পীযূষ গয়াল

দু'পক্ষের বক্তব্য শোনার পর আদালত জামিনের আবেদনের শুনানি স্থগিত রেখেছেন।

গত ২১ আগস্ট নাটকীয় ভাবে চিদাম্বরমকে তাঁর বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে সিবিআই। সিবিআই হেফাজতে ১৪ দিন থাকার পরে তাঁকে ৫ সেপ্টেম্বর তিহার জেলে পাঠানো হয়।

বুধবার অন্য একটি আর্থিক দুর্নীতি মামলায় তাঁকে গ্রেফতার করেছে ইডি। বৃহস্পতিবার তিহার থেকে তাঁকে ইডির হেফাজতে নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রাক্তন মিডিয়া ব্যারন পিটার মুখোপাধ্যায়ের স্ত্রী ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়ের বয়ানের ভিত্তিতেই প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পি চিদাম্বরম এবং তাঁর পুত্র কার্তি চিদাম্বরমের বিরুদ্ধে মামলাটি সাজানো হয়েছে। ওই দু'জনেই তখন আইএনএক্স মিডিয়া নামক টেলিভিশন সংস্থাটির প্রধান ছিলেন। এবং ওই সংস্থার জন্যেই পি চিদাম্বরম ইউপিএ সরকারের অর্থমন্ত্রী থাকাকালীন বৈদেশিক তহবিলের অনুমোদনে সহায়তা করেছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, তাঁর ছেলে কার্তি চিদাম্বরম এই চুক্তির বিনিময়ে বিরাট অঙ্কের ঘুষ পেয়েছিলেন। বর্তমানে মেয়ে শীনা বোরাকে হত্যার অভিযোগে জেলে রয়েছেন ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়।