CBI এখন ব্যক্তিগত প্রতিশোধ নেওয়ার দফতর: P Chidambaram প্রসঙ্গে কংগ্রেস

CBI -এর হাতে ৭৩ বছরের বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতার গ্রেফতারির পরে প্রতিবাদে মুখর Congress

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

INX Media case: বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতার গ্রেফতারির পরে প্রতিবাদে মুখর কংগ্রেস।


নয়াদিল্লি: 

বুধবার রাতে নিজের বাড়ি থেকে গ্রেফতার হয়েছেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী P Chidambaram। CBI -এর হাতে ৭৩ বছরের বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতার গ্রেফতারির পরে প্রতিবাদে মুখর Congress। বৃহস্পতিবার কংগ্রেস জানিয়ে দিয়েছে, সিবিআইকে সরকারের ‘‘ব্যক্তিগত প্রতিশোধ নেওয়ার দফতর''-এ পরিণত করা হয়েছে। কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সুরযেওয়ালা এক সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, ‘‘এই মামলাটি ন'বছর আগে দায়ের করা হয়েছিল। ওঁকে গ্রেফতার করা ১১ বছর পরে। এটা করেছে সিবিআই, যারা এখন সরকারের ব্যক্তিগত প্রতিশোধ নেওয়ার দফতর হয়ে উঠেছে। ভারত গত দু'দিনে দিনের আলোয় গণতন্ত্র এবং আইনের শাসনের হত্যা প্রত্যক্ষ করল।'' 

f6icjvvo

চিদাম্বরম বুধবার রাতে নাটকীয় ভাবে চিদাম্বরমকে গ্রেফতার করা হয় তাঁর দক্ষিণ দিল্লির বাড়ি থেকে। পাঁচিল টপকে ঢুকে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার হওয়ার পর সারা রাত সিবিআই সদর দফতরেই ছিলেন তিনি। সূত্রানুসারে তাঁর জেরা শুরু হবে সকাল থেকে। পরে সিবিআই তাঁকে আদালতে পেশ করে সর্বোচ্চ সময়ের জন্য অর্থাৎ ১৪ দিনের জন্য পুলিশ হেফাজতে চাইবে। 

P Chidambaram Arrest: নাটকীয় গ্রেফতারের পর CBI -এর দফতরে পি চিদাম্বরম, আজ তোলা হবে আদালতে

পি চিদাম্বরমের বিরুদ্ধে অভিযোগ কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী থাকাকালীন ২০০৭ সালে বিদেশ থেকে ৩০৫ কোটি টাকার তহবিল পাওয়ার জন্য আইএনএক্স মিডিয়াকে ছাড়পত্র দিয়েছিলেন তিনি, বিনিময়ে তাঁর ছেলে কার্তি চিদাম্বরমের সংস্থাকে বিরাট অঙ্কের ঘুষ দেয় আইএনএক্স মিডিয়া।

চিদাম্বরম ও তাঁর ছেলের নাম জানিয়েছেন আইএনএক্স-এর যুগ্ম প্রতিষ্ঠাতা পিটার মুখোপাধ্যায় ও ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়। তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তাঁরা তাঁদের মেয়ে শিনা বোরাকে হত্যা করেছেন। এই মুহূর্তে তাঁরা জেলে রয়েছেন। যদিও চিদাম্বরম ও তাঁর ছেলে সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

P Chidambaram-এর বিরুদ্ধে মামলা ইন্দ্রাণী মুখার্জীর বয়ানের ভিত্তিতেই গঠিত

সুরযেওয়ালা জানিয়েছেন, ‘‘৪০ বছর জনতার সেবায় নিয়োজিত এক মানুষকে গ্রেফতার করা হল জেলবন্দি এক মহিলার কথায়, যাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ নিজের মেয়েকে হত্যার।''

আদালতে আগাম জামিন খারিজ হয়ে যাওয়ার পরে ২৪ ঘণ্টা কোনও খোঁজ মেলেনি চিদাম্বরমের। পরে বুধবার সন্ধ্যায় তাঁকে কংগ্রেসের সদর দফতরে দেখা যায়।

সাংবাদিক সম্মেলন করে চিদাম্বরম বলেন, "আমি জেনে খুব অবাক হয়েছি যে আমার বিরুদ্ধে আইনের হাত থেকে পালানোর মতো অভিযোগ আনা হয়েছে, অথচ দিনভর আইনের আশ্রয়ের সন্ধানেই আমি ব্যস্ত ছিলাম।''



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................