"নাক গলাবেন না", কাশ্মীর ইস্যুতে তুরস্কের প্রেসিডেন্টকে কড়া বার্তা ভারতের

Jammu and Kashmir: ভারতের আপত্তিকে অগ্রাহ্য করেই, শুক্রবার প্রেসিডেন্ট এরদোগান কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানের অবস্থান সমর্থন করার কথা বলেন

২ দিনের সরকারি সফরে বৃহস্পতিবার পাকিস্তানে যান তুরস্কের President Erdogan

হাইলাইটস

  • পাকিস্তানে গিয়ে জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে কথা বলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট
  • পাকিস্তানের জম্মু ও কাশ্মীর অবস্থানকে সমর্থন করছেন তাঁরা, বলেন এরদোগান
  • "কাশ্মীর ভারতের অভ্যন্তরীণ ইস্যু, এ নিয়ে নাক গলাবেন না", সাফ জানাল ভারত
নয়া দিল্লি:

"নাক গলাবেন না", এভাবেই তুরস্কের প্রেসিডেন্টকে (President Erdogan) জম্মু ও কাশ্মীর ইস্যুতে কড়া বার্তা দিল ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রক। সম্প্রতি পাকিস্তান সফরে গিয়ে কাশ্মীর প্রসঙ্গে ভারতীয় পদক্ষেপের সমালোচনা করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেসেপ তাইয়েপ এরদোগান। এমনকী, ভারতের আপত্তিকে অগ্রাহ্য করেই, শুক্রবার প্রেসিডেন্ট এরদোগান কাশ্মীর (Jammu and Kashmir) ইস্যুতে পাকিস্তানের অবস্থান সমর্থন করার কথাও বলেন। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠককালে ওই কথা বলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট। আর এতেই বেজায় চটেছে ভারতীয় বিদেশমন্ত্রক। এর আগেও বারবার ভারতের তরফ (Raveesh Kumar) থেকে স্পষ্ট করে জানানো হয় যে, জম্মু ও কাশ্মীর (Kashmir) বিষয়ে নেওয়া সিদ্ধান্ত পুরোটাই অভ্যন্তরীণ, এ বিষয়ে অন্য কোনও দেশের হস্তক্ষেপ বরদাস্ত করা হবে না।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট ও তুরস্ক-পাকিস্তানের যৌথ বিবৃতিতে জম্মু ও কাশ্মীর প্রসঙ্গে যা বলা হয়েছে তার জবাব দিয়ে ভারত বলেছে, "জম্মু ও কাশ্মীর প্রসঙ্গে সমস্ত বিবৃতিকে প্রত্যাখ্যান করা হচ্ছে, কেননা এটি ভারতের একটি অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ এবং এটি পুরোপুরি অভ্যন্তরীণ বিষয়।"

জন নিরাপত্তা আইনে বন্দি করা হল জম্মু ও কাশ্মীরের নেতা শাহ ফয়জলকেও

ভারতীয় বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র রভীশ কুমার বলেন, “পাকিস্তানের সংসদে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট কাশ্মীর নিয়ে যা বলেছেন, আমরা তা পুরোপুরি নস্যাৎ করছি। পাশাপাশি তুরস্কের নেতৃত্বের কাছে আমরা এই আহ্বান জানাচ্ছি যে, তারা যেন কোনওভাবেই ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক না গলান। পাকিস্তান থেকে যে সন্ত্রাসবাদের উৎপত্তি হচ্ছে যার প্রভাব পড়ছে ভারত সহ অন্যান্য দেশে, সেই ব্যাপারেও সতর্ক থাকার অনুরোধ করছি”।

ঘটনার সূত্রপাত শুক্রবার। পাকিস্তান সফরে গিয়ে কাশ্মীর প্রসঙ্গ তুলেছিলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেসেপ তাইয়েপ এরদোগান। কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তান যা পদক্ষেপ করবে, তুরস্কের সমর্থন সবসময় পাবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। 

‘‘নিষেধাজ্ঞা দ্রুত তোলাটা গুরুত্বপূর্ণ'': কাশ্মীর প্রসঙ্গে ইউরোপীয় ইউনিয়ন

" আমাদের কাশ্মীরি ভাই-বোনরা কয়েক দশক ধরে অসুবিধার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন এবং সাম্প্রতিক সময়ে একতরফা পদক্ষেপ গ্রহণের কারণে এই ভোগান্তি মারাত্মক আকার ধারণ করেছে", একথাও বলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট। গত বছরের অগাস্টে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা রদ করে নেওয়া ভারতীয় পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করেই ওই কথা বলেন তিনি।

গত বছরের সেপ্টেম্বরেও রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ অধিবেশনে কাশ্মীর নিয়ে কথা বলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট। সেই সময়ে তাঁর মন্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ভারত বলেছিল যে কাশ্মীর ইস্যুটি ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় এবং এ নিয়ে তুরস্কের বক্তব্যের “তীব্র নিন্দা” করছে দেশ।