“সহিষ্ণুতায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ”: ধর্মীয় স্বাধীনতা সংক্রান্ত মার্কিন রিপোর্টের দাবি খারিজ করে বলল ভারত

“ভারতীয় সংবিধান সংখ্যালঘু সম্প্রদায় সহ সকল দেশবাসীর মৌলিক অধিকার রক্ষায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ”, বললেন বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
“সহিষ্ণুতায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ”: ধর্মীয় স্বাধীনতা সংক্রান্ত মার্কিন রিপোর্টের দাবি খারিজ করে বলল ভারত

সরকারের তরফে বলা হয়েছে, “ধর্মনিরপেক্ষ বৈশিষ্টের জন্য গর্বিত ভারত”


নিউ দিল্লি: 

হাইলাইটস

  1. গোরক্ষার নামে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয় নি: মার্কিন রিপোর্ট
  2. বিদেশমন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছে, ধর্মনিরপেক্ষতার জন্য গর্বিত ভারত
  3. রিপোর্টটিকে "পক্ষপাতদুষ্ট" বলেছে বিজেপি

ধর্মের স্বাধীনতা (Religious Freedom) নিয়ে সাম্প্রতিক মার্কিন রিপোর্টকে (US Report) খারিজ করে দিল কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রক। মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেছেন, “ভারতীয় সংবিধান সংখ্যালঘু সম্প্রদায় সহ সকল দেশবাসীর মৌলিক অধিকার রক্ষায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ”। ওই রিপোর্টের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি জানিয়েছেন যে, বিদেশি সংস্থার এই ধরণের রিপোর্টের কোনো বিশ্বাসযোগ্যতা নেই, ভারতে সবসময়ই দেশের নাগরিকদের সাংবিধানিক অধিকারকে অক্ষুন্ন রাখা হয়েছে।“ভারত(India) ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র,একটি বিশাল গণতান্ত্রিক কাঠামো ও বহু ভাষাভাষীর সমাজের অধিকারী এই দেশ সবসময়ই সহিষ্ণুতার পক্ষেই আস্থা রেখেছে। সংখ্যালঘু সম্প্রদায় দেশের সমস্ত নাগরিকের মৌলিক অধিকার রক্ষায় বদ্ধপরিকর এই দেশ”, দাবি রবীশের।ফের বিপুল সংখ্যক ভোটে জয়ী হয়ে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে দেশের ক্ষমতায় আসা মোদী সরকার (Narendra Modi) পক্ষপাতদুষ্ট বলে বের হওয়া ওই মার্কিন রিপোর্টের সমালোচনা করেছে বিজেপিও।

বিচারপতি নিয়োগ করুন, প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি প্রধানবিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের

“এ কথা গোটা বিশ্ব জানে যে ভারতের(India) মত গণতান্ত্রিক দেশে সবসময়ই ধর্মের অধিকারকে রক্ষা করা হয়, এই দেশ এমন একটি দেশ যেখানে নির্বাচিত গণতান্ত্রিক সরকার জনগণের সাংবিধানিক অধিকারকে রক্ষা করতে কড়া আইনও এনেছে”, জোর গলায় সওয়াল কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রকের (foreign ministry) মুখপাত্রের।

“রিপোর্ট অন ইন্টারন্যাশনাল রিলিজিয়াস ফ্রিডম 2018” (The "Report on International Religious Freedom 2018"), মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের ওয়েবসাইটে প্রকাশ পেয়েছে, যা ঘিরে এত আলোচনা। ওই রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে যে, ‘গো রক্ষা'-র ('cow vigilante') নামে এ দেশে যেভাবে মানুষ মেরে ফেলা হচ্ছে বা গণপিটুনি (mob violence) ও হুমকির ঘটনা ঘটে চলেছে তা রোধ করতে ব্যর্থ সরকার। যদিও মার্কিন রিপোর্টের ওই দাবি সরাসরি খারিজ করে দিয়েছে ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রক।

মিষ্টিমুখে শুরু বাজেট নথি ছাপার কাজ, রুদ্ধদ্বার অর্থমন্ত্রক

শনিবার বিজেপির(BJP) পক্ষ থেকেও এক বিবৃতিতে জানানো হয়,“ প্রাথমিক ভাবে এই রিপোর্টের দাবি অনুযায়ী এ দেশে সংখ্যালঘু সম্প্রদায় আক্রান্ত হচ্ছেন একথা সর্বৈব মিথ্যা।এই ধরণের যেকটি ঘটনা ঘটেছে তা আসলে সেই এলাকার কিছু দুষ্কৃতীর কাজ, এর নেপথ্যে কোনো ধর্মীয় মেরুকরণ নেই”, সংবাদমাধ্যমের সামনে এমনটা দাবি করেছেন বিজেপি মুখপাত্র তথা সাংসদ অনিল বালুনি।ভারতের গণতন্ত্রের ভিত অত্যন্ত শক্ত, এখানে নাগরিকদের যথেষ্ট স্বাধীনতা আছে এবং এ দেশের বিচারব্যবস্থাও অত্যন্ত স্বচ্ছ বলেও দাবি করেন তিনি।

চুক্তি নিয়ে আলোচনা ছাড়া পরমাণু সরবরাহ গোষ্ঠীতে ভারতের অন্তর্ভুক্তি খারিজ করল চিন

“দুর্ভাগ্যজনক ভাবে এই বিষয়টির ওই রিপোর্টে কোনো উল্লেখই নেই”, ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন বিজেপি মুখপাত্র। মোদি সরকার(Modi Govt) “সবকা সাথ, সবকা বিকাশ” ("Sabka Saath, Sabka Vikas) নীতিতেই বিশ্বাসী এবং এই সরকার সকলের জন্যেই উন্নয়ন করছে বলেও দাবি করেন বিজেপি সাংসদ অনিল বালুনি।

ওই মার্কিন রিপোর্টে ধর্ম নিরপেক্ষতা লঙ্ঘিত হচ্ছে বলে দাবি করা হয়।সার্বিক ভাবে গোটা বিশ্বের ধর্মীয় স্বাধীনতা(religious freedom )যাতে বজায় থাকে সে ব্যাপার উদ্যোগ নেওয়ার কথা বলেই ওই রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................