নরেন্দ্র মোদি ও ব্রাজিলের রাষ্ট্রপতির সাক্ষাৎ, দ্বিপাক্ষিকস্তরে স্বাক্ষরিত ১৫টি চুক্তি

দ্বিপাক্ষিকস্তরে ১৫টি চুক্তি স্বাক্ষর করল ভারত- ব্রাজিল। প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি হিসেবে এদেশে এসেছেন ব্রাজিল প্রেসিডেন্ট জায়ার মেসিয়াস বলসনারো।

নরেন্দ্র মোদি ও ব্রাজিলের রাষ্ট্রপতির সাক্ষাৎ, দ্বিপাক্ষিকস্তরে স্বাক্ষরিত ১৫টি চুক্তি
নয়াদিল্লি:

দ্বিপাক্ষিকস্তরে ১৫টি চুক্তি স্বাক্ষর করলো ভারত- ব্রাজিল। প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি হিসেবে এদেশে এসেছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট  জাইর মেসিয়াস বলসোনারো। সেই অনুষ্ঠানের দু'দিন আগে শনিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। দ্বিপাক্ষিকস্তরের সমঝোতা আরও বাড়াতে সহমতে পৌঁছন দুই রাষ্ট্রনেতা। নিরাপত্তা ও সামরিক ক্ষেত্রে সমঝোতা বাড়াতে উদ্যোগী হয়েছে ভারত-ব্রাজিল। বাড়ানো হবে বাণিজ্য, কৃষি, অসামরিক বিমান পরিবহণ, পরিবেশ, স্বাস্থ্য ক্ষেত্রেও সমঝোতা। জানা গেছে, বিশ্বজোড়া মন্দার প্রভাব পড়েছে এই দুই দেশে। তাই আর্থিক বিকাশে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগের পরিসর আরও বাড়ানো হবে। দুই রাষ্ট্রনেতার মধ্যে কী কথা হয়েছে? সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, "ভারত ও ব্রাজিলের মধ্যে সম্পর্কের নতুন অধ্যায় শুরু হল। ব্রাজিলের রাষ্ট্রপ্রধানের সফরকে সম্বোধন করেই আমি এ কথা বলেছি।"

এদিন প্রধানমন্ত্রী, ভারতের আর্থিক বিকাশের বড় শরিক হিসেবে ব্রাজিলের ভূমিকার প্রশংসা করেছেন। তিনি বলেছেন, দুটি দেশ বিশ্বজুড়ে তৈরি হওয়া একাধিক ইস্যুর দ্বারা প্রভাবিত। সেই সমস্যাগুলো দূর করে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও মজবুত করা হবে। তিনি বলেন, "সামরিক বাণিজ্যের পরিসর তৈরিতে জোড় দেওয়া হবে।"

Republic Day 2020: "লড়াইয়ের সময় অহিংসার পথ ভুললে চলবে না", জাতির উদ্দেশ্যে রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর মেসিয়াস বলসোনারো বলেছেন, শনিবার দ্বিপাক্ষিকস্তরে ১৫টি চুক্তি স্বাক্ষর করে কূটনৈতিক স্তরে আরও কাছাকাছি এসেছে দুই দেশ। যে সব ক্ষেত্রে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে, সেই ক্ষেত্রে কাজের পরিসর বাড়ল। সংগঠিত অপরাধচক্র ও আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ দমন এবং সামরিক বাণিজ্যে আরও বেশি কাজ করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ ওই দুই দেশ। শনিবার এমন দাবি করেছে সরকারি একটি সূত্র। 

More News