GDP: ভারতের অর্থনৈতিক মন্দার ফলে ভুগছে গোটা বিশ্ব, বললেন আইএমএফের অর্থনীতিবিদ

Indian Economy: সোমবার আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল আইএমএফ তার পূর্বাভাসে ভারত সহ গোটা বিশ্বের অর্থনৈতিক বৃদ্ধির পরিমাণ আরও কমিয়ে দিয়েছে

GDP: ভারতের অর্থনৈতিক মন্দার ফলে ভুগছে গোটা বিশ্ব, বললেন আইএমএফের অর্থনীতিবিদ

IMF -এর প্রধান অর্থনীতিবিদ গীতা গোপীনাথ

হাইলাইটস

  • ভারতের মন্দা বিশ্ব অর্থনীতির বৃদ্ধিকে পিছনে টানছে, বললেন গীতা গোপীনাথ
  • গীতা গোপীনাথ হলেন আইএমএফের মুখ্য অর্থনীতিবিদ
  • ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে ভারতের বৃদ্ধির হার কমে ৪.৮ শতাংশের পূর্বভাস দিল আইএমএফ
নয়া দিল্লি:

ভারত সহ গোটা বিশ্ব যেন ধুঁকছে অর্থনৈতিক মন্দায়। আর এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে বিশ্ব অর্থনীতির ধীর গতির জন্যে ঘুরিয়ে এই দেশকেই দায়ী করলেন আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল আইএমএফের মুখ্য অর্থনীতিবিদ গীতা গোপীনাথ (Gita Gopinath)। NDTV-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ভারতীয় অর্থনীতিকে (Indian Economy) মন্দা গ্রাস করছে। তার ফলে আশঙ্কা করা হচ্ছে গোটা বিশ্বের অর্থনৈতিক বৃদ্ধির সম্ভাবনা কিছুটা হলেও ধাক্কা খাবে। ভারতীয় জিডিপি-র (India's GDP) পতনের প্রভাব পুরো বিশ্বের অর্থনীতিতে পড়ছে, বলেন আইএমএফের প্রধান অর্থনীতিবিদ। গীতা গোপীনাথ বলেন, ভারতীয় অর্থনৈতিক মন্দার কারণে মনে করা হচ্ছে যে বিশ্ব অর্থনীতির বৃদ্ধির হার ০.১ শতাংশ কমতে পারে। আইএমএফের (IMF) মুখ্য অর্থনীতিবিদের ইঙ্গিত অনুযায়ী সোমবারই আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল আইএমএফ তার পূর্বাভাসে ভারত সহ গোটা বিশ্বের অর্থনৈতিক বৃদ্ধির পরিমাণ আরও কমিয়ে দিয়েছে।

এর আগে আইএমএফ জানিয়েছিল ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে ভারতের বৃদ্ধির হার থাকবে ৬.১ শতাংশ। কিন্তু তিন মাসের মধ্যেই পরিস্থিতি বিবেচনা করে তাদের হিসাব পরিবর্তন করেছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল। ভারতীয় বাজারের বর্তমান অবস্থা বিবেচনা করে দেশের মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন তথা জিডিপি ৪.৮ শতাংশ হারে বৃদ্ধি হতে পারে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

অর্থনীতি ‘পঙ্গু', বিজেপির কাছে 'শেয়ার বাজারের জুয়া': রঘুরাম রাজনের সমর্থনে শিবসেনা

আইএমএফের সর্বশেষ  পূর্বাভাস অনুসারে, ২০১৯ সালে বিশ্বব্যাপী বৃদ্ধির হার যেখানে ছিল ২.৯ শতাংশ সেখানে যদিও ২০২০ সালে তার থেকে সামান্য উন্নতি হয়ে সেটি পৌঁছে যাবে ৩.৩ শতাংশে। এর পরে, ২০২১ সালে সেটি ৩.৪ শতাংশ হওয়ার সম্ভাবনা। এর আগে, আইএমএফ গত বছরের অক্টোবরে আন্তর্জাতিক প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস প্রকাশ করে। সেখানে দেখা যায় গোটা বিশ্বের তুলনায়, ২০১৯ এবং ২০২০ এর সর্বশেষ অনুমান ০.১ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে এবং ২০২১ সালে এর প্রবৃদ্ধির অনুমান ০.২ শতাংশ পয়েন্ট হ্রাস পেয়েছে।

আন্তর্জাতিক অর্থ ভাণ্ডারের আরও বক্তব্য, ইউরোপ, আমেরিকা ও জাপানের মতো উন্নত দেশের তুলনায় ভারতের অর্থনীতির হাল আরও খারাপ। একবছর আগেও বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ দেশগুলির মধ্যে ভারতের অর্থনীতিই বিকশিত হত সবচেয়ে দ্রুত গতিতে। কিন্তু এখন তা উন্নয়নশীল দেশগুলির তুলনায় পিছিয়ে পড়েছে।

"৮, ৭, ৬.৬, ৫.8, ৫, ৪.৫ = এই তো অর্থনীতির অবস্থা": পি চিদাম্বরম

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল আইএমএফের মুখ্য অর্থনীতিবিদ গীতা গোপীনাথের মতে, ভারতে সব থেকে সঙ্কটে রয়েছে ফিনান্সিয়াল সেক্টর। বিশেষ করে নন ব্যাঙ্কিং ফিনান্স কর্পোরেশনগুলোর হাল খুবই খারাপ। ঋণের বৃদ্ধি হচ্ছে না, অর্থাৎ বাজারের অবস্থা দেখে ঝুঁকি নেওয়ার প্রবণতাও কমছে। আর তার পাশাপাশিই গ্রামীণ এলাকায় আয়ে কোনও বৃদ্ধিই হচ্ছে না। ফলে গ্রামীণ অর্থনীতিতে চাহিদা কমে গিয়েছে।

গোপীনাথ আরও বলেন যে ২০২০ সালে গোটা বিশ্বের অর্থনৈতিক বিকাশের গতি বর্তমানে খুব অনিশ্চিত। এটি আর্জেন্টিনা, ইরান এবং তুরস্কের মতো দেশগুলির অর্থনৈতিক বৃদ্ধি এবং ব্রাজিল, ভারত এবং মেক্সিকোর মতো দ্রুত উন্নয়নশীল এবং অল্প-উন্নয়নশীল দেশগুলির অর্থনৈতিক অবস্থার উপরেও নির্ভরশীল।