আইএমএ স্ক্যাম মাস্টারমাইন্ডের সুইমিং পুলে ৩০০ কেজি নকল সোনার হদিশ

IMA Ponzi Scam: সিট জানিয়েছে, পঞ্জি স্কিম অপারেটর মহম্মদ মনসুর খান জনগণকে বিপুল পরিমাণ সোনা দেখিয়ে তাঁদের সংস্থায় বিনিয়োগের জন্য প্ররোচিত করতেন।

আইএমএ স্ক্যাম মাস্টারমাইন্ডের সুইমিং পুলে ৩০০ কেজি নকল সোনার হদিশ

IMA Scam: সংস্থার মালিকের বাড়ির সুইমিং পুলের নিচে থেকে উদ্ধার প্রচুর নকল সোনার বার

হাইলাইটস

  • আইএমএ কেলেঙ্কারি মাস্টারমাইন্ডের বাড়িতে মিলল ৩০৩ কেজি নকল সোনার বার
  • প্রচুর সোনা দেখিয়ে তাঁর সংস্থায় বিনিয়োগের জন্যে প্রলুব্ধ করতেন মনসুর খান
  • গত মাসে তাঁকে দিল্লি থেকে গ্রেফতার করে ইডি
বেঙ্গালুরু:

না, মাটির তলা থেকে খুঁড়ে সোনা বের করা নয়, এবার বহুতলের ৭ তলায় এক বিরাট সুইমিং পুলের নিচে থেকেই সন্ধান পাওয়া গেল নকল সোনার বারের। আইএমএ-র (IMA Jewels Case) কোটি কোটি টাকা আর্থিক তছরুপের অভিযোগে বুধবার ওই সংস্থার মালিক  মহম্মদ মনসুর খানের (Mohammed Mansoor Khan) বেঙ্গালুরুর বাড়িতে হানা দেন সিটের আধিকারিকরা। জানা গেছে বাড়িটির ৭ তলায় একটি সুইমিং পুলের নিচে থেকে মিলেছে ৩০৩ কেজি নকল সোনার বার। সিট জানিয়েছে, পঞ্জি স্কিম অপারেটর (IMA Scam) মহম্মদ মনসুর খান জনগণকে বিপুল পরিমাণ সোনা দেখিয়ে তাঁদের সংস্থায় বিনিয়োগের জন্য প্ররোচিত করতেন। দেশ ছাড়ার আগে, মনসুর খান তাঁর (Mohammed Mansoor Khan) বাড়ির সুইমিং পুলের নিচেই ওই নকল সোনার বারগুলি লুকিয়ে রেখে যান। সিট জানিয়েছে, ওই বাড়িতে হানা দিয়ে ৩০৩ কেজি ওজনের মোট ৫,৮৮০টি সোনার বার বাজেয়াপ্ত করেছে তাঁরা।

qdn5gaq8

বিপুল অর্থ আত্মস্মাৎ করে (IMA Jewels Case) গা ঢাকা দিয়েছেন আইএমএ সংস্থার মালিক এই খবর পেয়ে তাঁর বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের মামলা দায়ের করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট

আইএমএ জুয়েলসের (IMA Jewels Case) মালিক মনসুর খানকে গতমাসেই দিল্লি থেকে গ্রেফতার করে ইডি।

সারদাকাণ্ডে তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েনকে তলব করল সিবিআই

এর আগে মনসুর খান দুবাইয়ে পালিয়ে গেছিলেন। জুলাইয়ে তিনি ভারতে ফিরে আসেন এবং দিল্লি বিমানবন্দরে পা রাখা মাত্র তাঁকে গ্রেফতার করা হয়।

এই মামলার (IMA Jewels Case) তদন্তে নেমে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট মনসুর খানের যাবতীয় অস্থাবর সম্পত্তি এবং ব্যাংক আমানত সহ ২০৯ কোটি টাকার সম্পদ বাজেয়াপ্ত করে।

প্রায় ৪০,০০০ বিনিয়োগকারীর কোটি কোটি টাকার বিনিয়োগ করা অর্থ নিয়ে আইএমএ সংস্থার মালিক (Mohammed Mansoor Khan) গা ঢাকা দেন। ওই প্রতারণার খবর পেয়ে  ইডি আইএমএ-র বিভিন্ন সংস্থা ও মহম্মদ মনসুর খানের বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের মামলা দায়ের করে।

রোজ ভ্যালির সঙ্গে সম্পর্ক জানতে চিটফান্ড দুর্নীতিতে জিজ্ঞাসাবাদ অভিনেতা প্রসেনজিতকে

এই মামলায় (IMA Scam) ইতিমধ্যেই ২৫ জনেরও বেশি মানুষকে গ্রেফতার করেছে সিট।

গ্রেফতার হওয়া অভিযুক্তদের মধ্যে রয়েছেন আইএমএর ৩২ জন পরিচালক, কর্পোরেশন, এক করদাতার স্বামী, বেঙ্গালুরু নগর জেলার প্রাক্তন জেলা প্রশাসক এবং বেঙ্গালুরু উত্তর উপ-বিভাগের সহকারী কমিশনারও।

এই মামলার (IMA Scam) পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি কংগ্রেস বিধায়ক বিজে জামির আহমেদ খানকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

সিট বহিষ্কৃত কংগ্রেস বিধায়ক আর রোশন বেগকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চাইলেও তিনি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে উপস্থিত হননি বলে জানা গেছে।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)