This Article is From Oct 02, 2019

স্কুলের বিজ্ঞাপনে নার্সারি, LKG, UKG -র প্রথম স্থানাধিকারীদের ছবি, দেখে অবাক হবেন আপনিও

টুইটারে কিছুলোক স্কুলের ওই হোর্ডিং দেখে স্কুলের সমালোচনা করেছে, তাদের মতানুসারে এত কম বয়সে বাচ্চাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ঠেলে দেওয়া উচিত না

স্কুলের বিজ্ঞাপনে নার্সারি, LKG, UKG -র প্রথম স্থানাধিকারীদের ছবি, দেখে অবাক হবেন আপনিও

হায়দরাবাদে অবস্থিত প্রিয়া ভারতী হাই স্কুল ম্যানেজমেন্ট দ্বারা এই হোর্ডিংটা লাগানো হয়েছিল

নিউ দিল্লি:

হায়দ্রাবাদে স্কুলের বিজ্ঞাপনে স্থান পেল কচি কাঁচার দল, এই বিজ্ঞাপনের হোর্ডিং-এ দেখে অবাক হয়েয়েছেন প্রায় সকলেই, তাই ভাইরাল হতে সময় লাগেনি  বিজ্ঞাপনটি। হোর্ডিং-এ সবচেয়ে কম বয়সী শিশুটির বয়স হল তিন, সে ক্লাসে সর্বোচ্চ স্থানাধিকারী।  পোস্টারে মোট ৪৪ টি বাচ্চার ছবি দেখা যায়। তাদের ছবির তলায় তাদের নাম ও সে কত নম্বর পেয়েছে তার উল্লেখ আছে।এই বাচ্চার সকলেই নার্সারি থেকে প্রথম শ্রেণির বিদ্যার্থী। সূত্র মারফত জানা গেছে, ঘটনাটি হায়দরাবাদের কোঠাপেট নামক এলাকায় অবস্থিত প্রিয়া ভারতী হাই স্কুলের, তারাই এই হোর্ডিং তা ব্যবহার করেছেন নিজেদের বিজ্ঞাপনের জন্য। ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার হওয়ার সাথে সাথে তা ভাইরাল হয়ে যায়।  

পোস্টারে বাচ্চাদের নম্বরের জায়গায় লেখা আছে ১০, ৯.৮, ৯.৭ এবং এর পরের নম্বর গুলিও দেওয়া আছে। হোর্ডিং-এর একদম নিচে গারাপাটি এডুকেশনাল সোসাইটি লেখা আছে।তার থেকে বোঝা যাচ্ছে এটি তেলেঙ্গনা সরকারের অন্তর্ভুক্ত। তবে এই হোর্ডিং তা দেখে টুইটারের ইউজাররা খুবই বিস্মিত। বিষয়টি নিয়ে একদিকে যেমন সমালোচনা হয়েছে, অন্যদিকে তেমনি বহু লোক বহু মন্তব্যও করেছে।  

টুইটারে কিছুলোক স্কুলের ওই হোর্ডিং দেখে স্কুলের সমালোচনা করেছে, তাদের মতানুসারে এত কম বয়সে বাচ্চাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ঠেলে দেওয়া উচিত না। তাদের মতে এখন তাদের শেখার সবে শুরু।তাদের এখন খেলার বয়স। দেশে এখন প্রচুর প্রি-স্কুল, সেগুলির জন্য একটা সঠিক দিক নির্ণয় করা জরুরি বলে মনে করছে তারা।একজন ইউজার লিখেছেন, ''এমন স্কুল অবিলম্বে বন্ধ করে দেওয়া উচিত। একবার ভেবে দেখুন তো শিশুটির ছবি এই হোর্ডিং-এ নেই, তার মনে কতটা চাপ পড়তে পারে।এটা শিক্ষা নয়, বাচ্চাদের শৈশব হত্যা করা। ''

দেখুন ভিডিও: