মার্কিন মুলুকে ভারতে ভাষা বৈচিত্রের প্রসঙ্গ তুলে ধরলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি

Howdy, Modi: প্রধানমন্ত্রীর বিবৃতি আমেরিকায় বিভিন্ন ভারতীয় সম্প্রদায়ের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার পদক্ষেপ বলে মনে করা হচ্ছে, হিন্দি ভীতি দুরীকরণেরও পদক্ষেপ

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
মার্কিন মুলুকে ভারতে ভাষা বৈচিত্রের প্রসঙ্গ তুলে ধরলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি

Howdy, Modi: হাউস্টনের একটি ফুটবল স্টেডিয়ামে ৫০,০০০ ইন্দো-মার্কিন নাগরিকের সমাবেশে বক্তব্য রাখছিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি


হাউস্টন: 

টেক্সাসের হাউস্টনে বিশাল সমাবেশে বক্তব্য রাখলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, সেখানে ভারতের ভাষা বৈচিত্রের প্রসঙ্গ তুলে ধরলেন তিনি, তাকে “আমাদের উদার এবং গণতান্ত্রিক সমাজের পরিচয়” বলে তুলে ধরলেন প্রধানমন্ত্রী। এর আগে হিন্দিকে ভারতের অভিন্ন ভাষা হিসেবে তুলে ধরার পক্ষে সওয়াল করেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তারপরে, বিদেশের মাটিতে এমন মন্তব্য প্রধানমন্ত্রী মোদির। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্পের সঙ্গে একমঞ্চে তিনি বলেন, “যখন আপনারা আমায় জিজ্ঞেস করেন, কেমন আছেন মোদি, আমার উত্তর, ভারতের সব ভাল”। এই কথাটি তিনি আরও ৮টি ভারতীয় ভাষায় বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

“আমার থেকে ভারতের ভাল বন্ধু কখনও ছিল না”, বললেন ট্রাম্প

৫০,০০০ ইন্দো-আমেরিকান নাগরিকে ভর্তি সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমাদের আমেরিকান বন্ধুরা, সম্ভবত অবাক হচ্ছেন, আমি কী বলছি তা নিয়ে। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, এবং আমার আমেরিকার বন্ধুরা, আমি যা বলেছি, তা হল ‘সব ভাল'। তবে আমি এটা কিছু ভারতীয় বিভিন্ন ভাষায় বললাম, যা আমাদের উদার এবং গণতান্ত্রিক সমাজের পরিচয়। এগুলি আমাদের ভাষা”।

তিনি বলেন, “কয়েক শতাব্দী ধরে, বহু ভাষা এবং উপভাষা নিয়ে এগিয়ে চলেছে আমাদের দেশ। এমনকী, আজও, এগুলো বহু মানুষের মাতৃভাষা। শুধুমাত্র ভাষাই নয়, ধর্মের ক্ষেত্রে বৈচিত্র, খাদ্যাভাসে বৈচিত্র, জলবায়ু ইত্যাদি ক্ষেত্রেও। আমাদের দেশ এই গ্রহকে অন্যতম করে তুলেছে”।

প্রধানমন্ত্রী মোদির বিবৃতি আমেরিকায় বিভিন্ন ভারতীয় সম্প্রদায়ের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার পদক্ষেপ বলে মনে করা হচ্ছে, হিন্দি লাগু করার ভিতী দুরীকরণেরও পদক্ষেপ।

৩৭০ ধারা নিয়ে দাঁড়িয়ে সম্মান প্রদর্শনের অনুরোধ প্রধানমন্ত্রী মোদির

এর আগে, হিন্দি দিবসের অনুষ্ঠানে, হিন্দির মাধ্যমে ভারতকে ঐক্যবদ্ধ করে তোলার আহ্বান জানিয়েছিলেন অমিত শাহ, আঞ্চলিকদলের নেতারা তাতে ক্ষুব্ধ হন, তাঁদের দাবি, এটি অহিন্দিভাষী রাজ্যের ওপর হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার প্রচেষ্টা।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “আজ, একটা ভাষা, যা গোটা দেশকে ঐক্যবদ্ধ করে তুলতে পারে, তাহলে সেটা হিন্দি ভাষা, এই ভাষা সবচেয়ে বেশী ব্যবহৃত এবং ভারতে বোধগম্য ভাষা”।

অমিত শাহের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তামিলনাড়ুর বিরোধীদলনতা তথা ডিএমকে নেতা এমকে স্ট্যালিন, তিনি বলেন, দক্ষিণের রাজ্যে হিন্দি চাপানো যাবে না। তাঁর কথায়, “এটা ভারতবর্ষ, হিন্দিয়া নয়”। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং কেরলের কংগ্রেস নেতা শশী থারুর জোর করে হিন্দি চাপানোর অভিযোগ তুলে সতর্ক করে দেন। এমনকী, কর্নাটকের বিজেপি নেতা বিএস ইয়েদুরাপ্পা ট্যুইট করেন, রাজ্যে কর্নাটকের গুরুত্বের সঙ্গে আপোষ করবে না তাঁর সরকার।

“যদি জিজ্ঞেস করেন কেমন আছেন মোদি, আমার উত্তর ভারতে সব ভালোই”: প্রধানমন্ত্রী মোদি

পরে অমিত শাহ জানান, আঞ্চলিক ভাষার ওপরে তিনি হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার কথা বলেননি। তাঁর কথায়, “আমি শুধু একটি মাতৃভাষার সঙ্গে সঙ্গে, দ্বিতীয় ভাষা হিসেবে হিন্দি শিখতে বলেছিলাম। আমি নিজে একটি অহিন্দি রাজ্য গুজরাটের। যদি কিছু মানুষ রাজনীতি করতে চায়, এটা তাদের পছন্দ”।

অহিন্দিভাষী রাজ্যে হিন্দি চাপিয়ে দেওয়া দেওয়া নিয়ে, ভাবাবেগ তৈরি হয়, বিশেষ করে দক্ষিণের রাজ্যগুলিতে। এর তীব্র বিরোধিতা করে তানিলনাড়ু, গত কয়েকদশকে অনেক হিন্দি-বিরোধী প্রতিবাদ করেছে তারা।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................