আশা করি অর্থনৈতিক সঙ্কট কাটাতে পরামর্শ দেবেন অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়, বললেন দিলীপ ঘোষ

পুনেতে সাংবাদিক বিবৃতিতে অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Abhijit Banerjee) “বাম-ঘেঁষা” বলে মন্তব্য করেন কেন্দ্রীয় বাণিজ্যমন্ত্রী পীযুষ গোয়েল

আশা করি অর্থনৈতিক সঙ্কট কাটাতে পরামর্শ দেবেন অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়, বললেন দিলীপ ঘোষ

দেশের অর্থনৈতিক সঙ্কট নিয়ে বারবার সমালোচনা করেছেন অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়।

কলকাতা:

দেশের অর্থনৈতিক সঙ্কট কাটাতে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhijit Banerjee) পরামর্শ দেবেন বলে আশাবাদী বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) । দেশের অর্থনৈতিক সঙ্কট নিয়ে বারবার সমালোচনা করেছেন অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি নোবেল পুরস্কার পাওয়ার পর থেকেই একাধিক বিজেপি নেতা নানান মন্তব্য করেছেন। নানা মন্তব্য করা বিজেপি নেতাদের থেকে ভিন্ন পথে হেঁটে বিজেপির রাজ্য সভাপতি বলেন, এই অর্থনীতিবিদকে নিয়ে মানুষের ভিন্নমত থাকতে পারে। তিনি বলেন, “তিনি একজন বড় মানুষ এবং দারুণ কৃতিত্ব অর্জন করেছেন, অনেকেই তাঁদের মতামত দিচ্ছেন, প্রত্যেকেই নিজেদের মতামত পোষণ করছেন”।

‘লক্ষ লক্ষ ভারতীয় আপনাকে নিয়ে গর্বিত'': অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানালেন রাহুল গান্ধি

পুনেতে সাংবাদিক বিবৃতিতে অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে “বাম-ঘেঁষা” বলে মন্তব্য করেন কেন্দ্রীয় বাণিজ্যমন্ত্রী পীযুষ গোয়েল। শুক্রবার কেন্দ্রীয় বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নূন্যতম আয় প্রকল্পকে খারিজ করে দিয়েছেন ভারতীয় ভারতীয় ভোটাররা, এবং “তাঁর চিন্তাভাবনাকে গ্রহণ” করার কোনও প্রয়োজন নেই। একই সুরে বিজেপির জাতীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা বলেন, অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের আর্থিক চিন্তাভাবনা ভারতে প্রমাণিত নয়।

“আমার পেশাদারিত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন পীযূষ গোয়েল”, NDTV কে বললেন অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়

গেরুয়া শিবিরের বঙ্গ ব্রিগেডের ক্যাপ্টেন তথা মেদিনীপুর লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ দিলীপ ঘোষ বলেন, নোবেল পুরস্কার পর, তিনিই প্রথম অভিনন্দন জানিয়েছিলেন অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তাঁর কথায়, “আমি নিশ্চিত, ভারত এবং সারা বিশ্ব যে অর্থনৈতিক সঙ্কটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, তার সমাধানে ভাল পরামর্শ দেবেন অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়”।   

অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন জানিয়েছি, কিন্তু তাঁর তত্ত্বকে ভারতের মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে: পীযূষ গয়াল

কামারহাটিতে গান্ধি সঙ্কল্পযাত্রা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, সেখানে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী নিত্যানন্দন রাইও, সেখানে তিনি বলেন, সামাজিক  বার্তা দেওয়া ছাড়াও, এই অনুষ্ঠানের মধ্যে রাজ্যে পরিবর্তনের ডাক দিচ্ছে গেরুয়া শিবির।১৬ অক্টোবর রাজ্যে “গান্ধি সঙ্কল্প যাত্রা” সূচনা নয়, ১০দিনে, রাজ্যের ৪২টি লোকসভা কেন্দ্র ছুঁয়ে যাওযার কর্মসূচী রয়েছে এই যাত্রার।  

দিলীপ ঘোষ বলেন, “তৃণমূল কংগ্রেসের শাসনে রাজ্যের মানুষ অসন্তুষ্ট, ফলে পরিবর্তন চাইছেন তাঁরা, ফলে সন্ত্রাসের পরিবেশ এবং রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরি হয়েছে। রাজ্যজুড়ে আমাদের কর্মূচীতে যেভাবে সাড়া ফেলেছে, এটাই তার প্রমাণ”।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
More News