ভাটপাড়া হাসপাতালের বিল্ডিংয়ে ঢুকে ভাঙচুর, লন্ডভন্ড সিভিক এজেন্সি অফিসও

এলাকায় উত্তেজনা থাকায় বারাকপুরের কমিশনার মনোজ ভার্মার নেতৃত্বে চলছে পুলিশি টহলদারি

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
ভাটপাড়া হাসপাতালের বিল্ডিংয়ে ঢুকে ভাঙচুর, লন্ডভন্ড সিভিক এজেন্সি অফিসও

ভাটপাড়া পুরসভা এলাকার বিভিন্ন জায়গায় ভাঙচুর চালায় দুষ্কৃতীরা


কলকাতা: 

ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের (Barrackpore Lok Sabha constituency) অধীনস্থ ভাটপাড়া ও কাঁকিনাড়ায় (Bhatpara and Kakinada) ফের উত্তেজনা। সোমবার মধ্যরাত পর্যন্ত এলাকার বিভিন্ন জায়গা থেকে দেশি বোমা বিস্ফোরণের (bomb explosion) শব্দ শোনা গেছে। দিনভর হিংসার ঘটনার পর এলাকার পরিস্থিতি সামাল দিতে ব্যারাকপুরের (Barrackpore) কমিশনার মনোজ বর্মার নেতৃত্বে এলাকায় পুলিশি টহলদারি চালাতে হয়। সোমবার সকাল ৯ টা থেকেই ওই অঞ্চল উত্তপ্ত হয়ে ওঠে, এলাকায় একের পর এক বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটতে দেখা যায়। গত লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই রাজনৈতিক হিংসার কারণে বারংবার উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ওই সব অঞ্চল, যার ফল ভোগ করতে হয়েছে স্থানীয় মানুষকে। এরই প্রতিবাদে রেল অবরোধ করে বিক্ষোভও দেখান কাঁকিনাড়ার মানুষজন।

ভেঙে পড়ল ১০০ বছরের পুরোনো বহুতল, মৃত দুই, আটক থাকার আশঙ্কা ৪০-৫০

লোকসভা নির্বাচনে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিংয়ের কাছে পরাজিত হন তৃণমূল প্রার্থী দীনেশ ত্রিবেদী। নির্বাচনের কিছুদিন আগেই তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন অর্জুন।

পুলিশ জানিয়েছে,  একদল দুষ্কৃতী হঠাৎই ভাটপাড়া হাসপাতালে (Bhatpara hospital ransack) ঢুকে পড়ে হাসপাতাল চত্বর এবং সেখানকার কয়েকটি কার্যালয়ে ভাঙচুর চালায়। পাশাপাশি আরেকটি দুষ্কৃতী দল এলাকার একটি নাগরিক সংস্থা কার্যালয়ে (civic agency office ransack) গিয়ে সেখানে ব্যাপক ভাঙচুর করে। কিছু দুষ্কৃতী আবার ভাটপাড়া থানার বাইরে বোমা ছোঁড়ে, পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণের জন্য সেইসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন অভিজ্ঞ পুলিশকর্মীরাও।

এদিকে স্থানীয় মানুষ ঘটনার প্রতিবাদে অবরোধ করলে উত্তর ২৪ পরগনায় স্থানীয় ট্রেন পরিষেবা প্রায় ঘণ্টা দুয়েক ব্যাহত হয়। ট্রেনের পাশাপাশি সড়কেও অবরোধ করলে সেই যোগাযোগ ব্যবস্থাও ব্যাহত হয় দীর্ঘক্ষণ। জানা গেছে, ভাটপাড়া থানা এলাকায় আপাতত যে কোনও বড় জমায়েত নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

একশো টাকার কম দামে ছয় মাস ভ্যালিডিটি দিচ্ছে BSNL

এই অশান্তি ও হিংসার ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস ও বিরোধী দল বিজেপি একে অপরের ঘাড়ে দোষ চাপিয়েছে। তবে পুলিশের মতে, এই হিংসার ঘটনার সঙ্গে দুই দলেরই আশ্রিত দুষ্কৃতীরা জড়িয়ে আছে।

এর আগেও বেশ কয়েকবার উত্তপ্ত হয়েছে ভাটপাড়া সহ ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের অধীনস্থ বেশ কিছু অঞ্চল। সপ্তাহ খানেক আগেই ওই এলাকায় রাজনৈতিক দল ও সমাজকর্মীদের পক্ষ থেকে শান্তি বৈঠকও করা হয়। কিন্তু তারপরেও ফের আরও একবার রাজনৈতিক সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল এলাকা।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................