দেশের নতুন সেনাপ্রধানের দায়িত্বে মনোজ মুকুন্দ নারাভানে

জেনারেল বিপিন রাওয়াত সরে যাওয়ার পরে মনোজ মুকুন্দ নারাভানে দেশের ২৮তম সেনাপ্রধান হলেন।

জেনারেল বিপিন রাওয়াত সরে যাওয়ার পরে মনোজ মুকুন্দ নারাভানে দেশের ২৮তম সেনাপ্রধান হলেন।

নয়াদিল্লি:

জেনারেল বিপিন রাওয়াত (Bipin Rawat) সরে যাওয়ার পরে মনোজ মুকুন্দ নারাভানে (Manoj Mukund Naravane) দেশের ২৮তম সেনাপ্রধান (New Army Chief) হলেন। মঙ্গলবার সকালে বিদায়ী ‘গার্ড অফ অনার' দেওয়া হয় বিপিন রাওয়াতকে। তিনি বলেন, ‘‘আমি আত্মবিশ্বাসী যে উনি সেনাকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাবেন।'' গত সেপ্টেম্বরে সেনার উপপ্রধান হন জেনারেল নারাভানে। তার আগে তিনি সেনার পূর্বাঞ্চলীয় প্রধান ছিলেন। যে সেনাবিভাগের দায়িত্ব চিনের সীমান্তে ভারতের ৪,০০০ কিমি এলাকার দেখভাল করা।

জেনারেল নারাভানে জাতীয় প্রতিরক্ষা অ্যাকাডেমি ও ভারতীয় সেনা অ্যাকাডেমির প্রাক্তন ছাত্র। ১৯৮০ সালের জুনে তিনি যোগ দেন ‘শিখ লাইট ইনফ্যান্ট্রি রেজিমেন্ট'-এ।

‘‘কৌশলের পরিকল্পনা করব'': প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রধান পদ প্রসঙ্গে বিপিন রাওয়াত

দীর্ঘ ৩৭ বছরের কর্মজীবনে জেনারেল নারাভানে বহু দায়িত্ব সামলেছেন। জম্মু ও কাশ্মীর এবং উত্তর-পূর্বে বিদ্রোহের পরিবেশে দায়িত্বপূর্ণ ভাবে শান্তি ফেরানোর প্রক্রিয়ায় যুক্ত ছিলেন তিনি। তিনি জম্মু ও কাশ্মীরে রাষ্ট্রীয় রাইফেলস ব্যাটেলিয়ন এবং পূর্বাঞ্চলীয় ফ্রন্টে ইনফ্যান্ট্রি ব্রিগেডের নেতৃত্ব দেন।

এদিন প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রধান হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত হলেনম বিপিন রাওয়াত। এদিন সকালে দিল্লিতে ‘ন্যাশনাল ওয়ার মেমোরিয়াল'-এ শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করে বিপিন রাওয়াত বলেন, ‘‘প্রতিরক্ষী বাহিনীর প্রধানের পদের অনেক দায়িত্ব রয়েছে। এখনও পর্যন্ত সেনাপ্রধান হিসেবে আমার দায়িত্বের প্রতি মনোযোগী ছিলাম। এবার আমি নতুন দায়িত্ব পেয়েছি। আমি বসে ভবিষ্যতের জন্য নতুন কৌশলের পরিকল্পনা করব।'' ৬৫ বছর বয়স পর্যন্ত এই পদে থাকবেন বিপিন রাওয়াত।