বিরোধীদের আবেদনে সাতদিন পিছোল বাংলাদেশের সাধারণ নির্বাচন, অনুষ্ঠিত হবে ৩০ ডিসেম্বর

সোমবার বাংলাদেশের মুখ্য নির্বাচন কমিশনার জানালেন,  দেশের সাধারণ নির্বাচন সাতদিন পিছিয়ে গিয়ে অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩০ ডিসেম্বর। নির্বাচনের তারিখ পিছিয়ে দেওয়ার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বিরোধীদের বহু অনুরোধ উপরোধে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
বিরোধীদের আবেদনে সাতদিন পিছোল বাংলাদেশের সাধারণ নির্বাচন, অনুষ্ঠিত হবে ৩০ ডিসেম্বর

সোমবার এই কথা জানান মুখ্য নির্বাচন কমিশনার নুরুল হুদা।


ঢাকা: 

দেশটির সাধারণ নির্বাচন নিয়ে উৎসাহ দক্ষিণ এশিয়ার প্রায় সমস্ত বৃহৎ রাষ্ট্রের রাজনৈতিক মহলেই। পালাবদল কি হবে, নাকি হবে না? এটাই এখন মূল প্রশ্ন। তার মধ্যেই সোমবার বাংলাদেশের মুখ্য নির্বাচন কমিশনার জানালেন,  দেশের সাধারণ নির্বাচন সাতদিন পিছিয়ে গিয়ে অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩০ ডিসেম্বর। নির্বাচনের তারিখ পিছিয়ে দেওয়ার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বিরোধীদের বহু অনুরোধ উপরোধে। বিরোধী দলগুলির পক্ষ থেকে আগেই জানানো হয়েছিল, নিজেদের প্রস্তুত করে তোলার জন্য তাদের আরও কিছুটা সময় চাই। গত সপ্তাহেই বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশন ঘোষণা করেছিল, দেশের সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৩ ডিসেম্বর। 

"বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে আসা অনুরোধ মেনে দেশের সাধারণ নির্বাচনের দিনটির কিঞ্চিৎ পরিবর্তন করে এক সপ্তাহ পিছিয়ে দিয়ে ২৩ ডিসেম্বর থেকে ৩০ ডিসেম্বরে নিয়ে যাওয়া হল", রাজধানী ঢাকার একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে এই কথা সংবাদমাধ্যমকে জানান দেশের মুখ্য নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদিত করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে.)


পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................