Ganesh Chaturthi: গণেশ চতুর্থীর তাৎপর্য ও বিশেষ খাবার

Ganesh Chaturthi 2018: এই বছর 13 সেপ্টেম্বর শুরু হবে গণেশ চতুর্থী। ইতিমধ্যেই পুজোর প্রস্তুতি প্রায় শেষ পর্যায়ে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
Ganesh Chaturthi: গণেশ চতুর্থীর তাৎপর্য ও বিশেষ খাবার

গণেশ মূর্তি

নিউ দিল্লি: 

এই বছর 13 সেপ্টেম্বর শুরু হবে গণেশ চতুর্থী। ইতিমধ্যেই পুজোর প্রস্তুতি প্রায় শেষ পর্যায়ে। 10 দিন ধরে চলবে এই উৎসব। মহারাষ্ট্র, গোয়া, তামিলনাড়ু এবং কর্ণাটকের মত নানা রাজ্যেই ধুমধাম করে গণেশ পুজো করা হয়। বলা হয় কৈলাশ ছেড়ে ভক্তদের আশীর্বাদ করতে নেমে আসেন মর্ত্যে। মহারাষ্ট্রে গণেশের বিশাল বিশাল মূর্তি তৈরি করে পুজো করা হয়। সঙ্গে চলে প্যান্ডেল তৈরির কাজও।

ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামী লোকমান্য তিলকের একটি জন আবেদন পর 19 শতাব্দী থেকেই গণেশ চতুর্থী উদযাপন বড় এবং বৃহদায়তন হয়ে ওঠে। পুজোকে কেন্দ্র করে জনগণের বিপুল সমাবেশ ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষের কাছে আশঙ্কা হয়ে দেখা দেয়। গণেশের আগমন ও বিসর্জন দুইই মহা সমারোহে উদযাপিত হয়। বিসর্জনে রঙ খেলাও হয় অনেক জায়গাতেই। এ বছর গণেশ চতুর্থী 13 ই সেপ্টেম্বর। উৎসব চলবে দশ দিন ধরে।

 

গণেশ চতুর্থী: গণেশ চতুর্থীর গুরুত্ব

হিন্দু চন্দ্র-সৌর ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ভাদ্রমাসে যা সাধারণত আগস্ট বা সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যেই পড়ে, গণেশ পুজোর আয়োজন করা হয়। গণপতি, বিনয়াক এবং বিঘ্নহন্তার মতো নানা নাম গণেশের। বলা হয়, গণেশ পুজো বাদ দিয়ে কোনও পুজোই সম্পূর্ণ হয় না। গণেশ ভগবান শিব এবং দেবী পার্বতীর দ্বিতীয় পুত্র ছিলেন। পৌরাণিক কাহিনী অনুসারে, দেবী পার্বতী গণেশের সৃষ্টি করেছিলেন এবং তাঁকে পার্বতীর দরজা পাহারা দিতে নির্দেশ দিয়েছিলেন। শিব ফিরে এসে পার্বতীর ঘরে ঢুকতে গেলে গণেশ তাঁকে বাধা দেন। একটি ছোট ছেলের এই আস্পর্ধা দেখে শিব রেগে যান। শিবের সঙ্গে গণেশের যুদ্ধও শুরু হয়। তখন রাগের মাথায় শিব গণেশের মাথা কেটে ফেলেন। গণেশের মুণ্ডহীন দেহ দেখে পার্বতী কান্নায় ভেঙে পড়েন। তাঁর সন্তানকে ফিরিয়ে দিতে বলেন শিবকে। শিব তখন অন্য দেবতাদের  নির্দেশ দেন উত্তর দিকে গিয়ে যার মাথা আগে দেখতে পাবে সেই মাথাই কেটে নিয়ে আসতে। দেবতারা প্রথমেই একটি হাতি পেয়ে তারই মাথা নিয়ে আসে। সেই মাথাটিই গণেশের দেহে বসিয়ে দেন শিব।

গণেশ চতুর্থীর শুভ দিনে কীভাবে কিনবেন Xiaomi Mi A2 আর Redmi 5A?

গণেশকে বলা হয় বিঘ্নহন্তা অর্থাৎ যিনি বাধা বিপত্তি নাশ করেন। ব্যক্তিগত ও পেশাগত জীবনে নানা বিপত্তি থেকে মুক্তি পেতেই ভক্তরা এই পুজো করেন।


 

গণেশ চতুর্থী 2018: উত্সব উদযাপনের জন্য বিশেষ খাদ্য

গণেশ যে খেতে ভালোবাসেন তা সকলেরই জানা। বিশেষ করে লাড্ডু আর মোদক তাঁর প্রিয়। মোদক হল চালের গুঁড়ো দিয়ে নারকেলের পুর দিয়ে তৈরি বিশেষ মিষ্টি। গণেশ পুজোর ঠিক আগে মহারাষ্ট্রের মিষ্টির দোকানে এই মোদকের নানান বৈচিত্র দেখতে পাওয়া যায়। মোদকের চাহিদাও প্রায় আকাশছোঁয়া। আরেকটি জনপ্রিয় মিষ্টি হল করঞ্জি। মোদকের মতোই দেখতে, খেতেও খানিক একই। তবে দেখতে অন্যরকম। গোয়াতে এই মিষ্টিকে ডাকা হয় নারভি নামে।

এই গণেশ চতুর্থীতে মূর্তিকে গাছে রূপান্তরিত করুন

modak

গণেশ চতুর্থী 2018: মোদক ভালোবাসেন গণেশ


অন্ধ্রপ্রদেশ ও তেলেঙ্গানাতে মোদক, লাড্ডু, ভ্রুন্দ্রাল্লু পানাকাম (গোল মরিচ এলাচ দিয়ে তৈরি পানীয়), ভাদাপাপ্পু (মুগডাল ভিজিয়ে তৈরি) এবং চালিভিড়ি নৈবেদ্য ও মিষ্টি হিসেবে দেওয়া হয় গণেশকে।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর, আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................