This Article is From Feb 24, 2019

গোরক্ষপুর থেকে আনুষ্ঠানিক ভাবে ৭৫ হাজার কোটি টাকার কৃষক প্রকল্পের সূচনা করলেন মোদী, ১০টি তথ্য

ঘোষণা হয়েছিল আগেই এবার আনুষ্ঠানিক ভাবে চালু হতে চলেছে প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি প্রকল্প।

গোরক্ষপুর থেকে আনুষ্ঠানিক ভাবে ৭৫ হাজার কোটি টাকার কৃষক প্রকল্পের সূচনা করলেন মোদী, ১০টি তথ্য

বিরোধী দলগুলি অবশ্য মনে  করছে নির্বাচন সামনে  বলেই  প্রকল্পটির বাস্তবায়ন এত দ্রুত হয়েছে।

হাইলাইটস

  • আনুষ্ঠানিক ভাবে চালু হল প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি প্রকল্প
  • গোরক্ষপুর থেকে ৭৫ হাজার কোটি টাকার এই প্রকল্পের সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • কৃষকদের অ্যাকাউন্টে দু’হাজার টাকা করে পৌঁছে যাওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে
নিউ দিল্লি: উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুর থেকে ৭৫ হাজার কোটি টাকার এই প্রকল্পের সূচনা করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।ঘোষণা হয়েছিল আগেই এবার আনুষ্ঠানিক ভাবে চালু হতে চলেছে প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি প্রকল্প।

রইল দশটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

  1. অন্তর্বর্তীকালীন বাজেটে মোদী সরকার এই প্রকল্পের ঘোষণা করে। বলা হয় ২ হেক্টরের কম জমি আছে এমন ১২ কোটি কৃষককে বছরে ছ'হাজার টাকা করে আর্থিক সাহায্য দেওয়া হবে।

  2. প্রকল্পটি নিয়ে প্রথম থেকেই উতসাহিত  প্রধানমন্ত্রী। টুইট করে শনিবার  তিনি জানান রবিবার একটি  ঐতিহাসিক  দিন। প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি কৃষকদের সামনে নতুন দিগন্ত খুলে  দেবে। তিনি বলেন  ক্ষমতায় আসার আগে  এনডিএ বলেছিল কৃষকদের  দাবিকে  অগ্রাধিকার দেওয়া  হবে।  সে কথা  রাখা  হল। আর তাছাড়া  এ মাসের  ১ তারিখ ঘোষণা হওয়া একটি প্রকল্প এত তাড়াতাড়ি যে দিনের আলো দেখছে সেটিও গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার বলে মনে করেন প্রধানমন্ত্রী। 

  3. বিরোধী দলগুলি অবশ্য মনে  করছে নির্বাচন সামনে  বলেই  প্রকল্পটির বাস্তবায়ন এর দ্রুত হয়েছে। কংগ্রেস সভাপতি আরও বলেছেন এই প্রকল্পের  অঙ্গ হিসেবে কৃষক  প্রতিদিন ৩ টাকা ৩ পয়সা করে পেতে চলেছেন।

  4.  অনেক কৃষক আবার এই প্রকল্পে খুশি হতে পারেননি। কৃষক আন্দোলনের নেতাদের কেউ কেউ এনডিটিভিকে জানিয়েছেন কৃষকদের উচিত  মোদী সরকারকে শিক্ষা দেওয়া। 

  5.  মনরেগার মতোই নানা  রকম সুবিধার ব্যবস্থা করে দেওয়াই এই প্রকল্পের লক্ষ্য। 

  6. এই  অনুষ্ঠান থেকেই বাছাই করা  কৃষকদের সার্টিফিকেট দেওয়ার কাজ  শুরু করেছে। 

  7.  বাজেট ঘোষণার আগেই ডিসেম্বর মাস থেকে প্রকল্পের কাজ শুরু  হয়েছে। 

  8.  নির্বাচনের আগে  এ ভাবে সরকারি টাকা কি দেওয়া যায়? এনডিটিভির  এই প্রশ্নের উত্তরে একাধিক প্রাক্তন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার জানিয়েছেন আদর্শ নির্বাচনী আচরণ বিধি লাগু হওয়ার আগে নাম  নথিভুক্ত হয়নি এমন কাউকে টাকা দেওয়া  যাবে না। 

  9. ২০০৯ থেকে  ২০১০ সাল পর্যন্ত দেশের মুখ্য নির্বাচন কমিশনার থাকা নবীন চাওলা বলেন, কোনও অবস্থাতেই আদর্শ নির্বাচনী আচরণ বিধি লাগু হয়ে  যাওয়ার পর কাউকে  টাকা দিতে  পারবে না  সরকার। 

  10. আরেক মুখ্য নির্বাচনী কমিশনার  নাসিম জাইদি জানান আদর্শ নির্বাচনী আচরণ বিধি লাগু হওয়ার আগে কৃষকদের চিহ্নিত করা না গেলে  টাকা  দেওয়াও যাবে না।                



.