Ayodhya Verdict: অযোধ্যা মামলা নিয়ে টুইট করলেন ফারহান আখতার, দেখুন Tweet

Ayodhya Verdict: টুইটে তিনি (Farhan Akhtar) দেশবাসীর কাছে আবেদন করেন, সুপ্রিম রায়কেই সর্বান্তঃকরণে মেনে নেয়া উচিত। এতে দেশের শান্তি, মঙ্গল।

Ayodhya Verdict: অযোধ্যা মামলা নিয়ে টুইট করলেন ফারহান আখতার, দেখুন Tweet

ফারহান আখতার (Farhan Akhtar) সরব অযোধ্যা মামলা (Ayodhya Verdict) নিয়ে

হাইলাইটস

  • অযোধ্যা মামলা নিয়ে টুইট করলেন ফারহান আখতার
  • সোশ্যালে অভিনেতার আন্তরিক আবেদন
  • আপাতত এই টুইট ঘুরছে সব সোশ্যাল হ্যান্ডেলে
নয়াদিল্লি:

সময় যত এগোচ্ছে ততই দেশবাসী উদগ্রীব অযোধ্যা রায় (Ayodhya Case) নিয়ে। সুপ্রিম রায়ে অযোধ্যায় কার প্রাধান্য-প্রতিপত্তি বজায় থাকবে? নাকি সমতা রক্ষা হবে ধর্মের মধ্যে! তাই নিয়ে টানটান উত্তেজনা দেশে। ইতিমধ্যেই সর্বোচ্চ আদালত জানিয়েছে, যে জমি নিয়ে বিবাদ সেই জমিতে আগে মন্দির ছিল। এএসআই-এর পেশ করা তথ্যকে সমর্থম করে আদালত আরও জানিয়েছে, জমি খননের সময় যা পাওয়া গেছে তা কোনও মসজিদের ভগ্নাংশ নয়। একই সঙ্গে সম্পূর্ণ রায়প্রকাশের আগে এবং পরে দেশের শান্তি বজায় রাখার জন্য আবেদন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও (PM Narendra Modi)।  এবার জনসাধারণের কাছে একই আবেদন জানালেন অভিনেতা ফারহান আখতারও (Farhan Akhtar)। টুইটে তিনি দেশবাসীর কাছে আন্তরিক আবেদন করেন, সুপ্রিম রায়কেই সর্বান্তঃকরণে মেনে নেয়া উচিত। এতে দেশের শান্তি, মঙ্গল। 

অযোধ্যা রায় “বিচারবিভাগের ওপর আবারও আস্থা আনবে”: প্রধানমন্ত্রী

টুইটে ফারহান লেখেন, সুপ্রিম কোর্টের রায় শিরোধার্য। এই রায় কোনও বিশেষ ধর্মের বিপক্ষ বা পক্ষে গেলেও তাকে মেনে নিতে হবে দেশের স্বার্থে। কারণ ভারত আজও এক এবং অভিন্ন। প্রসঙ্গত, সূত্রের খবর অনুযায়ী বিতর্কিত জমিতে মন্দির তৈরির অনুমতি দিতে চলেছে সর্বোচ্চ আদালত। মসজিদের জন্য অন্য জমি দেওয়া হবে বলে খবর।

Ayodhya Verdict: ১৫২৮ থেকে আজ পর্যন্ত জেনে নিন অযোধ্যার ইতিহাস

এই প্রসঙ্গে, রায় পড়ার সময় সুপ্রিম কোর্ট শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের আবেদন খারিজ করে দিয়ে বলে, শুধুই বিশ্বাসের ওপর ভিত্তি করে কাউকে জমির মালিকানা দেওয়া যায় না। তাই আদালত সর্বসম্মতিক্রমে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর আগে শিয়া বোর্ড এই মামলায় একটি পিটিশন দায়ের করে বলেছিল, বিতর্কিত জমিয়ে মসজিদ-ই ছিল। তাই স্থানটি তাদের হস্তান্তর করা উচিত। কিন্তু আদালত সর্বসম্মতিক্রমে সেই আবেদন প্রত্যাখ্যান করে।

More News