উত্তরপ্রদেশের পুলিশকর্মীদের নির্যাতনের ভিডিও ফাঁস, পুলিশের দাবি ‘সামান্য বলপ্রয়োগ’-এর

ওই ব্যক্তি অনেক কাকুতি মিনতি করলেও দুই পুলিশকর্মীর আচরণে কোনও হেলদোল দেখা যায়নি। দু’মিনিট দৈর্ঘ্যের ওই ভিডিওটি তোলা হয়েছে পাশের কোনও বাড়ির ছাদ থেকে।

উত্তরপ্রদেশের পুলিশকর্মীদের নির্যাতনের ভিডিও ফাঁস, পুলিশের দাবি ‘সামান্য বলপ্রয়োগ’-এর

পাশের কোনও বাড়ির ছাদ থেকে তোলা হয়েছে ভিডিওটি।

ইটাওয়া:

উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) ইটাওয়া (Etawah) জেলায় দুই পুলিশ কনস্টেবলের অত্যাচারের (UP Cops Torture Man) ভিডিও প্রকাশ্যে এল। ভিডিওটিতে দুই কনস্টেবলকে গ্রামের এক ব্যক্তির উপরে অকথ্য নির্যাতন করতে দেখা গিয়েছে। ওই ব্যক্তি অনেক কাকুতি মিনতি করলেও দুই পুলিশকর্মীর আচরণে কোনও হেলদোল দেখা যায়নি। দু'মিনিট দৈর্ঘ্যের ওই ভিডিওটি তোলা হয়েছে পাশের কোনও বাড়ির ছাদ থেকে। ইটাওয়ার এক গ্রামে শনিবার ভিডিওটি তোলা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। এও জানা গিয়েছে আক্রান্ত ব্যক্তি মানসিক ভাবে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন। ভিডিওটি ইন্টারনেটে অনেকেই শেয়ার করেছেন। তার মধ্যে রয়েছে সমাজবাদী পার্টিও।

লকডাউনের ধাক্কায় কাশ্মীরে অবরুদ্ধ বারাসতের পর্যটক পরিবার! সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন কাশ্মীরি জনতা

ভিডিওর শুরুতে দেখা যাচ্ছে, একজন কনস্টেবল এক ব্যক্তির মুখে লাঠির আঘাত করতে। ওই ব্যক্তিকে মাটিতে শুয়ে থাকতে দেখা যায়। এরপর ওই একই কনস্টেবলকে নিজের জুতোকে ওই ব্যক্তির বুকে তুলে দিতে এবং মারধর করতে দেখা যায়।

কোভিড-১৯ যোদ্ধাদের বিরাট ধন্যবাদ জ্ঞাপন করবে ভারতীয় সেনা: ১০ তথ্য

ওই কনস্টেবলকে ক্রমান্বয়ে মারধর করতে দেখা যায় এরপর। আক্রান্ত ব্যক্তিটিকে মাটিতে লুটিয়ে থাকা অবস্থায় ‘‘প্রধানজি'' বলে গ্রামের প্রধানকে ডাকতে দেখা যায়। ভিডিওর একেবারে শেষ পর্বে অপর কনস্টেবলকেও মারধর করতে দেখা যায়।

প্রাথমিক ভাবে ইটাওয়া পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আক্রান্ত ব্যক্তির নাম সুনীল যাদব। তিনি একজন মাদকাসক্ত। এলাকার গ্রামবাসীকে উত্যক্ত করতেন তিনি। পুলিশ জানিয়েছে, এক গ্রামবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে ওই দুই পুলিশকর্মী সেখানে উপস্থিত হন। তখন সুনীল তাঁদের উপরে ছুরি নিয়ে লাফিয়ে পড়েন।

পুলিশের বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, তারা ন্যূনতম বল প্রয়োগ করেই অভিযুক্ত সুনীলকে হেফাজতে নিয়েছে। 
পরে অবশ্য ইটাওয়া পুলিশ প্রধানের কাছে এক বর্ষীয়ান পুলিশ কর্মী বিস্তারিত তদন্ত রিপোর্ট জমা দেন। তাতে জানানো হয়েছে, ওই কনস্টেবলরা অত্যধিক বলপ্রয়োগ করেছে অভিযুক্তের উপরে।

পুলিশ জানিয়েছে ওই দুই পুলিশকর্মীর একজনকে বরখাস্ত করা হয়েছে।