This Article is From Jan 08, 2020

জম্ম ও কাশ্মীরে যাচ্ছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত সহ ১৭ জন, থাকছে না ইউরোপিয় ইউনিয়ন

সূত্র মারফৎ NDTV জানতে পেরেছে, যে, জম্মু ও কাশ্মীরে কোনও “গাইডেড সফর” চান না তিনি, নিজের ইচ্ছেমতো লোকজনদের সঙ্গে কথা বলতে চান রাষ্ট্রদূত।

জম্ম ও কাশ্মীরে যাচ্ছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত সহ ১৭ জন, থাকছে না ইউরোপিয় ইউনিয়ন

অগস্টে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করা হয় (ফাইল)

নয়াদিল্লি:

কেন্দ্রের আমন্ত্রণে বৃহস্পতিবার জম্মু ও কাশ্মীরে (Jammu and Kashmir) বিদেশিদের যে প্রতিনিধি দল যাচ্ছে, সেখানে থাকছে না ইউরোপিয়ন ইউনিয়নের কোনও দেশ( European Union), তবে সেই প্রতিনিধি দলে থাকছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত (US envoy) সহ মোট ১৭ জন প্রতিনিধি। ইউরোপের কূটনৈতিক সূত্র NDTV কে জানিয়েছে, যে, জম্মু ও কাশ্মীরে কোনও “গাইডেড সফর” চান না তিনি, নিজের ইচ্ছেমতো লোকজনদের সঙ্গে কথা বলতে চান রাষ্ট্রদূত। সরকারি সূত্র NDTV কে জানিয়েছে, জম্মু ও কাশ্মীরে সফরের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন ইউরোপিয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূতরা, তবে তাঁদের অনেকেই জানিয়েছেন, এটা খুবই কম সময়ের ব্যবধানে এবং পরের কোনও দিনে সফর করতে চান তাঁরা। জম্মু ও কাশ্মীরের পরিস্থিতির “ব্যপক উন্নতি” হয়েছে বলেও মন্তব্য করেছেন তাঁরা।

চলতি সপ্তাহে জম্মু ও কাশ্মীরে দ্বিতীয় বিদেশি প্রতিনিধিদল: সূত্র

জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বা ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার এবং রাজ্যটিকে ভেঙে দুটি ভাগে বিভক্ত করার তিনমাস পর গত অক্টোবরে সেখানে যান ইউরোপিয় ইউনিয়নের সাংসদরা। সেবারের সফরে পরিস্থিতি সম্পর্কে জানতে স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি নিরাপত্তারক্ষীদের থেকে বিস্তারিত তথ্য নেন। সেটি ছিল ব্যক্তিগত ক্ষমতায় সফর।

সেবারের মতোই বৃহস্পতিবারও একইরকম কর্মসূচী রাখা হয়েছে, এবাবের সফরে থাকবেন আমেরিকা, ল্যাটিন আমেরিকা ও আফ্রিকার রাষ্ট্রদূত সহ মোট ১৭ জন প্রতিনিধি। অস্ট্রেলিয়া ও পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলের একাধিক দেশের প্রতিনিধি “নির্ধারিত” কর্মসূচীর কারণে সফর বাতিল করেছেন, তাঁরা এই সফরে থাকবেন বলেই মনে করা হয়েছিল।

জম্মু ও কাশ্মীরের ইন্টারনেট চালু করা ও বন্দিদের মুক্তি নিয়ে আমেরিকার আর্জি ভারতকে

NDTV কে একটি সূত্র জানিয়েছে, “কাশ্মীরে গাইডেড সফর চান না ইউরোপিয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূতরা। আমরা নিজেদের ইচ্ছেমতো মানুষদের সঙ্গে কথা বলব”। আধিকারিকরা জানান, পাশাপাশি ওই সূত্রটি আরও জানায়, তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা, ফারুক আবদুল্লা, এবং মেহবুবা মুফতির সঙ্গে কথা বলতে চান প্রতিনিধিরা। ৫ অগস্ট, কেন্দ্রের পদক্ষেপ করার সময় থেকে আটক করে রাখা হয়েছে তাঁদের।

কাশ্মীরে রাজনৈতিক নেতাদের আটক করা এবং ৬ মাস ইন্টারনেট বন্ধ রাখার বিষয়টি নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলেও চর্চা হয়েছে। বহু দেশ এবং মার্কিন হাউজ অফ রিপ্রেজেন্টেটিভ ও কাশ্মীর প্রসঙ্গ তুলেছে।

আজকের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি দেখতে ক্লিক করুন: 

সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সংসদে ৫ অগস্ট কাশ্মীর নিয়ে সিদ্ধান্ত ঘোষণার সময়ে, জম্মু ও কাশ্মীরে যে সমস্ত পদক্ষেপ করা হয়েছিল, তা আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করার তাগিদেই।

অক্টোবরে জম্মু ও কাশ্মীরে যায় ইউরোপিয় ইউনিয়নের ২৩ জনের একটি প্রতিনিধি দল, তাতে ক্ষোভ প্রকাশ করে বিরোধীরা। তারপর থেকে, সেরাজ্যে যেতে দেওয়া হয়নি বিরোধীদের। শ্রীনগর বিমানবন্দর থেকে ফিরিয়ে দেওয়া হয় রাহুল গান্ধির নেতৃত্বাধীন প্রতিনিধি দলকে।