অমিত শাহর হিন্দি নিয়ে মন্তব্যের প্রতিবাদে মুখর বাংলার বিশিষ্টরা

শনিবারই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) দেশের জন্য একটি সাধারণ ভাষা হিসেবে হিন্দির নাম প্রস্তাব করেন।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
অমিত শাহর হিন্দি নিয়ে মন্তব্যের প্রতিবাদে মুখর বাংলার বিশিষ্টরা

বাংলার বিভিন্ন ক্ষেত্রের ৫০ জন উজ্জ্বল ব্যক্তিত্ব কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর (Amit Shah) মন্তব্যের বিরুদ্ধে সরব হলেন।


কলকাতা: 

বাংলার বিভিন্ন ক্ষেত্রের ৫০ জন উজ্জ্বল ব্যক্তিত্ব রাজ্যের মানুষকে আহ্বান জানালেন সমস্ত ভাষাকে সম্মান করার এবং কোনও একটিকে চাপিয়ে দেওয়ার (Hindi Imposition) বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে। শনিবারই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) দেশের জন্য একটি সাধারণ ভাষা হিসেবে হিন্দির নাম প্রস্তাব করেন। তাঁর বক্তব্য ছিল, হিন্দিই দেশের মধ্যে সবথেকে বেশি ব্যবহৃত ভাষা। এই ভাষা সকলকে এক করতে সাহায্য করবে। এরই প্রতিবাদে সোমবারের এই ফেসবুক (Facebook) পোস্ট। ফেসবুকে তাঁরা সকলকে অনুরোধ করলেন বাংলা ভাষাকে তাঁদের জীবন থেকে সরিয়ে দেওয়ার যে কোনও প্রয়াসের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সামিল হতে। এই ব্যক্তিত্বদের মধ্যে ছিলেন কবি সুবোধ সরকার, কবি-গদ্যকার বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়, আবৃত্তিকার ঊর্মিমালা বসু ও জগন্নাথ বসু, স্বাধীন চলচ্চিত্র নির্মাতা প্রদীপ্ত ভট্টাচার্য।

ওই পোস্টে কৌশলে একটি ভাষাকে চাপিয়ে দেওয়ার প্রতিবাদ করার পাশাপাশি জানানো হয়, ‘‘অদূর ভবিষ্যতে একদিন এমনও আসতে পারে, যেদিন আমাদের মাতৃভাষা, আমাদের প্রিয় বাংলা ভাষাকে বিপণ্ণ হতে হবে।''

‘‘কোনও শাহ, সুলতান পারবেন না'': হিন্দি আগ্রাসন নিয়ে কমল হাসানের প্রতিবাদ

সুবোধ সরকার অন্য একটি স্টেটাসে জানান, ‘‘হিন্দি ভাষাকে আমি সম্মান করি । কিন্তু একই সঙ্গে কন্নড়, মালয়ালি, মারাঠি, কোঙ্কনি এবং দেশে ব্যবহৃত অন্য সমস্ত ভাষাকেও সম্মান করি। কোনও ভাষা বড় বা ছোট হয় না। ভারত বহু ভাষার দেশ। কিন্তু আমাদের মাথায় রাখতে হবে, মাতৃভাষা একজন মানুষের আসল রেশন কার্ড।''

হিন্দি হোক ভারতের জাতীয় ভাষা, হিন্দি দিবসে প্রস্তাব অমিত শাহের

হিন্দি সব সময়ই ‘লিঙ্ক ল্যাঙ্গোয়েজ' সমাজের সবক্ষেত্রে। ইংরেজি একটি বিশেষ সামাজিক স্তরেই ব্যবহৃত হয়। সুবোধ প্রশ্ন তুলেছেন, ‘‘রাতারাতি কী হল যে একজন (অমিত শাহ) বললেন, ‘এক দেশ এক ভাষা' স্লোগান দিলেন?''

প্রতিবাদ শুরু হয়েছে দেশের অন্যত্রও। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ‘এক দেশ এক ভাষা' নিয়ে একাধিক টুইট সর্বসমক্ষে আসার পর থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ একে হিন্দি আগ্রাসন বলে দাবি করছেন।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শনিবার জানিয়েছেন, মানুষের উচিত সব ভাষা ও সংস্কৃতিকে সম্মান করা। কিন্তু নিজেদের মাতৃভাষার মূল্যে নয়।

কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন, ডিএমকে প্রধান এমকে স্টালিন, ডিএমকে প্রধান এমকে স্টালিন, কর্নাটকের প্রাক্তন‌ মুখ্যমন্ত্রী এইচডি কুমারাস্বামী প্রমুখরাও অমিতের মন্তব্যের বিরোধিতা করেছেন।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................