"টাকা নিয়ে উদ্বেগ করো না, বলত ছেলে," স্মৃতিচারণায় মৃত আইবি আধিকারিকের মা

সন্তানহারা মায়ের দাবি, "সেদিন বিকেল ৪টে বেজে ৩০ মিনিট নাগাদ কাজ থেকে ফিরছিল ছেলে। সেই সময় উন্মত্ত জনতা তিনজনকে তুলে নিয়ে যায়। স্থানীয়রা বলেছেন, সেই তিনজনের মধ্যে একজন আমার ছেলে ছিল।"

২৩ বছর বয়সে আইবি'র দফতরে যোগ দিয়েছিলেন মৃত অঙ্কিত শর্মা।

হাইলাইটস

  • ছেলের নিখোঁজের অভিযোগ নেয়নি পুলিশ, অভিযোগ মৃত অঙ্কিত শর্মার মায়ের
  • মঙ্গলবার বিকেলে কাজ থেকে ফেরার পথে উন্মত্ত জনতা আক্রমণ করে অঙ্কিতকে
  • বুধবার সকালে চাঁদপুরের ড্রেন থেকে উদ্ধার হয় তাঁর নিথর দেহ
নয়া দিল্লি:

দিল্লি হিংসায় মৃত্যু হয়েছে গোয়েন্দা অঙ্কিত শর্মার। চাঁদবাগের এক ড্রেন থেকে উদ্ধার করা হয়েছে তাঁর মৃতদেহ। কিন্তু মঙ্গলবার রাতে ছেলে নিখোঁজের অভিযোগ জানাতে গেলেও গা করেনি দিল্লি পুলিশ। বুধবার এমন বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন মৃত ওই আইবি আধিকারিকের মা। জানা গিয়েছে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কাজ সেরে বাড়ি ফেরার পথে উন্মত্ত জনতার সামনে পড়ে গিয়েছিলেন অঙ্কিত। তখনই গণপ্রহারে মৃত্যু হয় তাঁর। কিন্তু মঙ্গলবার রাতে ছেলে নিখোঁজ এই প্রসঙ্গে পুলিশের দ্বারস্থ হলেও কোনও সক্রিয়তা দেখানো হয়নি। একমাত্র বুধবার সকালে প্রথম এফআইআর দায়ের করে পুলিশ। দিল্লি পুলিশের বিরুদ্ধে এইভাবে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন ওই বৃদ্ধা। 

“আমার কথায় ভরসা রাখুন” দিল্লির হিংসা কবলিত এলাকায় বললেন অজিত দোভাল

0h66qs2gহিংসা-দীর্ণ উত্তর-পূর্ব দিল্লি তেহেক উদ্ধার হয় অঙ্কিতের মৃতদেহ। 

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঠিক কী হয়েছিল? সে ব্যাপারে সন্তানহারা মায়ের দাবি, "সেদিন বিকেল ৪টে বেজে ৩০ মিনিট নাগাদ কাজ থেকে ফিরছিল ছেলে। সেই সময় উন্মত্ত জনতা তিনজনকে তুলে নিয়ে যায়। স্থানীয়রা বলেছেন, সেই তিনজনের মধ্যে একজন আমার ছেলে ছিল।" ছেলে খুব প্রতিভাবান ছিল। এমন দাবি করে সেই মায়ের উল্লেখ, "দিল্লি পুলিশের চাকরি পেয়েছিল অঙ্কিত। কিন্তু সেটা ছেড়ে আইবি-র চাকরিকে প্রাধান্য দিয়েছিল" সন্তান হারানোর শোকের মধ্যেই সেই মা দাবি করেছেন, আমার ছেলে নিরীহ ছিল। কখনও বিতণ্ডায় জড়ায়নি। আমাকে খালি বলত টাকা নিয়ে ভেব না। তমাদের চিকিৎসা নিয়ে ভেব না। 

"বিদ্বেষ ছড়ানোর নেপথ্যে যারা, তাঁদের বিরুদ্ধে এফআইআর," দিল্লি হিংসায় নির্দেশ হাইকোর্টের

এদিকে আবার ছেলের মৃত্যুর জন্য আম আদমি পার্টিকে দায়ী করেছেন অঙ্কিত শর্মার বাবা। পেশায় আইবি আধিকারিক রবিন্দর শর্মা বলেছেন, আমার ছেলেকে মেরে পালিয়েছে আপ নেতা। পুলিশ ওকে গ্রেফতার করে শাস্তি দিক। বুধবার বেলার দিকে অঙ্কিতের দেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠানো হয়েছে। এমনটাই দিল্লি পুলিশ সূত্রে খবর। 

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com