"মহিলা পরিবহনকর্মীদের নাইট শিফট বন্ধ হোক": চন্দ্রশেখর রাও

দেশ জুড়ে গণক্ষোভের মধ্যেই এমন ঘৃণ্য ঘটনা নিয়ে মুখ খুললেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও। জানালেন, মহিলা পরিবহনকর্মীদের জন্য নিরাপদ নয় নাইট শিফট।   

নারীদের নাইট শিফট তেলেঙ্গানায়

হায়দ্রাবাদ:

হায়দ্রাবাদ কাণ্ড যেন চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল, দেশের কোনও শহর এখনও রাতে নিরাপদ নয় নির্ভয়াদের জন্য। যে কারণে ধর্ষিত হয়ে জীবন্ত পুড়ে মরতে হল হল ২৬ বছরের পশু চিকিৎসক প্রিয়াঙ্কাকে। দেশ জুড়ে গণক্ষোভের মধ্যেই এমন ঘৃণ্য ঘটনা নিয়ে মুখ খুললেন তেলেঙ্গানার (Telangana) মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও (K Chandrashekar Rao)। জানালেন, মহিলা পরিবহনকর্মীদের জন্য নিরাপদ নয় নাইট শিফট।  

‘‘আমাদের মতো দেরিতে নয়, ও দ্রুত বিচার পাক'': হায়দরাবাদের নিগৃহীতা প্রসঙ্গে নির্ভয়ার মা

স্পর্শকাতর বিষয়টি নিয়ে এই প্রথম মুখ খুললেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী। তখনই তিনি বলেন, 'কী মনে হয়, প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে যারা এই কাণ্ড ঘটিয়েছেে তারা মানুষ? তারা আসলে মানুষের মতো দেখতে একদম জন্তু। আমার চোখে এরা কোনোভাবেই মানুষ পদবাচ্য নয়। তাই এদের হাতে থেকে সবার আগে নিরাপত্তা দেওয়া উচিত আরটিসি-র (Road Transport Corportion) মহিলাকর্মীদের। সবার আগে এঁদের নাইট শিফট বন্ধ করা উচিত।' রবিবার নিজের সরকারি বাসভবন-কাম-ক্যাম্প অফিসে রাজ্য পরিবহন কর্মীদের উদ্দেশ্য একথা বলেন তিনি। যদিও ইদানিং আইটি সেক্টর সহ বেশ কয়েকটি সেক্টরের মহিলা কর্মীরা বলেছিলেন, মেয়েদের নাইট শিফট বন্ধ করে দিলে তাঁদের কর্মসংস্থান আরও সঙ্কুচিত হয়ে পড়বে।

পাশাপাশি, প্রিয়াঙ্কার পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে তাঁদের পাশে সবসময় থাকার কথাও বলেন চন্দ্রশেখর। প্রতিশ্রুতি দেন সব সাহায্যের। পাশাপাশি এও জানান, মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য ফাস্ট ট্র্যাক আদালত এর শুনানি হবে। প্রসঙ্গত, নির্ভয়া কাণ্ডের পুনরাবৃত্তি ফের নাড়িয়ে দিয়েছে দেশকে। অপরাধীদের ধরতে প্রশাসনের গরিমষি ভালো চোখে দেখেনি দেশবাসী। ফলে, রাগে-ক্ষোভে-হতাশায় ফুটছে সবাই। সেসব সামলাতে গিয়ে অপরাধের তিনদিন পরে মুখ খুললেন চন্দ্রশেখর। এবং রাজনৈতিক মহলের বক্তব্য, বিষয়টি যথেষ্ট স্পর্শকাতর হওয়ায় মুখ্যমন্ত্রী মুখ খুলেছেন অতি সতর্কতার সঙ্গে। পরিস্থিতি বুঝে।

"গণপিটুনিই দেওয়া উচিত": তেলেঙ্গানা ধর্ষণকাণ্ড প্রসঙ্গে বললেন জয়া বচ্চন

প্রসঙ্গত, অঘটনের দিন সন্ধেয় একটি টোল প্লাজার সামনে স্কুটির টায়ার পাংচার হয়েছিল নিগৃহীতার। তখনই সেই টায়ার সারিয়ে দেওয়ার অজুহাতে যুবতীর কাছে এসেছিল মহম্মদ আরিফ, জলু শিভা, জলু নবীন ও চিন্তাকুন্তা চেন্নাকেসাভুলু। ঘড়িতে তখন রাত ৯.১৫। পাঁচ ঘণ্টার মধ্যে গণধর্ষণ করে জ্যান্ত জ্বালিয়ে দেওয়া হয় ওই পশু চিকিৎসককে, জানা গেছে প্রাথমিক তদন্তে। নিজের দূরবস্থার কথা জানিয়ে ৯.২২-এ বোনকে শেষ ফোন করেছিলেন গণধর্ষিতা। তারপরেই তিনি চিরকালের জন্য স্তব্ধ।

More News